শনিবার, ১৮ আগস্ট ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল, ২০১৮, ০৫:১৪:৫১

আমতলীতে মাদ্রাসা সুপার নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ

আমতলীতে মাদ্রাসা সুপার নিয়োগে অনিয়মের  অভিযোগ

আমতলী  প্রতিনিধি : বরগুনা জেলার আমতলী উপজেলার কুকুয়া ইউনিয়নের মহিষকাটা নেছারিয়া দাখিল মাদ্রাসার সপার নিয়োগে  অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে । প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজিং কমিটির  সভাপতি মোঃ আবু জাফর কে চাহিদানুযায়ী  ঘুষ না দেয়ায় বিধি লংঘন করে নিয়োগের পায়তারা চালাচ্ছে । সুপার পদে নিয়মনুযায়ী নিয়োগ পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকারী মাওলানা মো.মজিবুর রহমান এসব অভিযোগ করেন।

মজিবুর রহমান লিখিত অভিযোগে জানান, গত ১২ নভেম্বর ২০১৭ ইং তারিখ দৈনিক সৈকত সংবাদ ও দৈনিক যায়যায়দিন  পত্রিকায় মহিষকাটা নেছারিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়। অত:পর গত ১০/০৩/২০১৮ইং তারিখ উক্ত মাদ্রাসার সুপার পদের নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত নিয়োগ পরীক্ষায় ডিজি, মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর এর প্রতিনিধি হিসাবে উপ-পরিচালক (অর্থ) মোহাম্মদ শামসুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

নিয়োগ পরীক্ষায় ১০ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহন করেন এবং মাওলানা মোঃ মজিবুর রহমান, পিতা: মৃত ময়জদ্দিন হাং, ইনডেক্স নং- ৩৬১৭৭০, ২২ নম্বর পেয়ে মেধা তালিকায় প্রথম স্থান অধিকার করেন এবং সুপার পদে নির্বাচিত হন। বাছাই কমিটির সকল সদস্য তাকে নিয়োগপত্র প্রদানের সুপারিশ করেন। এরপর মাদ্রাসার সভাপতি তার কাছে মোটা অংকের ঘুষ দাবী করেন। তিনি ঘুষ দিতে অস্বীকার করলে, অদ্য পর্যন্ত মাদ্রাসার সভাপতি মোঃ আবু জাফর তাকে নিয়োগপত্র প্রদান করেন নাই। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী মাওলানা মজিবুর রহমান গত ০৪/০৪/১৮ইং তারিখ আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।

এ ব্যাপারে মাদ্রাসার সভাপতি মোঃ আবু জাফরের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মাওলানা মোঃ মজিবুর রহমান পরীক্ষায় প্রথম হয়েছেন এবং বাছাই কমিটিও তাকে নিয়োগপত্র প্রদান করার জন্য সুপারিশ করেছেন কিন্তু আমি মাননীয় সংসদ সদস্য মহোদয়ের অনুমতি ছাড়া তাকে নিয়োগপত্র প্রদান করতে পারব না।

আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সরোয়ার হোসেনের কাছে অভিযোগের বিষয় জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট বিভাগকে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য নির্দেশ দেয়া হবে।
এ ব্যাপারে বরগুনা-১ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু জানান, নিয়মানুযায়ী যিনি প্রথম হয়েছে ম্যানেজিং কমিটি তাকেই নিয়োগ দিবে।

এখানে আমার দোহাই দেয়ার কিছু নাই। এ বিষয় শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ মুঠো ফোনে জানান, অভিযোগটি লিখিত ভাবে  মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড এবং আমাকে দেয়া হলে নিয়মনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।
অভিযোগকারী ও ভুক্তভোগী মাওলানা মোঃ মজিবুর রহমান নিয়োগ পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকার করেও এখন দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। তিনি তার নিয়োগপত্র পাওয়ার জন্য প্রশাসন ও মাদ্রসা শিক্ষা বোর্ডের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

 

আজকের প্রশ্ন

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন ‘খালেদা জিয়ার শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে বিএনপির নেতারা মিথ্যাচার ও বিভ্রান্তি করছে। আপনিও কি তাই মনে করেন?