বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

শুক্রবার, ১৫ মার্চ, ২০১৯, ০১:৫৭:৩৪

আ.লীগপন্থি সভাপতি, বিএনপিপন্থি সম্পাদক জয়ী

আ.লীগপন্থি সভাপতি, বিএনপিপন্থি সম্পাদক জয়ী

ঢাকা: বিগত কয়েক বছর ধরে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতিতে এক আধিপত্য করে আসছেন বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা। এবার তাতে ভাগ বসালেন আওয়ামী লীগপন্থি আইনজীবীরা। এবারের নির্বাচনে সভাপতি পদে জয় পেয়েছেন আওয়ামীপন্থি আইনজীবী এ এম আমিন উদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক পদে এ এম মাহাবুব উদ্দিন খোকন।

শুক্রবার (১৫ মার্চ) দুপুর ১২টার দিকে ভোট গণনা শেষে এই ফলাফল ঘোষণা হয়। নির্বাচন উপ-কমিটির আহবায়ক ও জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ ওয়াই মসিউজ্জামান এই ফলাফল ঘোষণা করেন।

বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত জাতীয়তাবাদী আইনজীবী (নীল) প্যানেল একটি সহ-সভাপতি, কোষাধ্যক্ষ ও একটি সহ-সম্পাদক ও ৪টি সদস্যসহ মোট ৮ পদে জয়ী হয়ে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে। আওয়ামী লীগ সমর্থক বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ (সাদা) প্যানেল পেয়েছে সভাপতি, একটি সহ-সভাপতি, একটি সহ-সম্পাদক ও ৩টি সদস্যসহ ৬টি পদ।

গত দুই মেয়াদেই সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতিতে নেতৃত্বে ছিলেন বিএনপির জয়নুল আবেদীন ও মাহবুব উদ্দিন খোকন। এ এম আমিন উদ্দিন ২০০৬-০৭ মেয়াদে সুপ্রিম কোর্ট বারের সম্পাদক নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। মাহবুব উদ্দিন খোকন এ নিয়ে টানা ৭ বার সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছেন।

এর আগে উৎসবমুখর পরিবেশে বুধবার ও বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে মাঝখানে বিরতি দিয়ে বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ করা হয়। মোট ৭ হাজার ৮‘শ ২৫ জন আইনজীবী ভোটারের মধ্যে ৬ হাজার ১’শ ৩৫ জন আইনজীবী তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন।

এবারের নির্বাচনে ১৪টি পদের বিপরীতে ৩৪ জন প্রার্থী হয়েছিলেন। আওয়ামী লীগ সমর্থিত সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ (সাদা) ও বিএনপি সমর্থিত জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য (নীল) প্যানেলে এ নির্বাচন করেন। এছাড়া কয়েকজন স্বতন্ত্র প্রার্থীও রয়েছেন।

আওয়ামী লীগ সমর্থিত (সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ) প্যানেলে সভাপতি পদে প্রতিন্দ্বন্দ্বিতা করেন আবু মোহাম্মদ আমিন উদ্দিন (এএম আমিন উদ্দিন)। সম্পাদক পদে অ্যাডভোকেট আব্দুন নূর দুলাল, সহ-সভাপতি পদে মো. জসিম উদ্দিন ও বিভাস চন্দ্রবিশ্বাস, সহ-সম্পাদক পদে বাসির উদ্দিন ভূঁইয়া এবং কাজী শামসুল হাসান শুভ, ট্রেজারার পদে সৈয়দ আলম টিপু। এ ছাড়া সদস্য পদে মোহাম্মদ জগলুল কবির, মশিউর রহমান, শামীম সরদার, আফিয়া আফরোজি রানী, আওলাদ হোসেন, হুমায়ূন কবির, চঞ্চল কুমার বিশ্বাস।

অন্যদিকে বিএনপি সমর্থিত নীল প্যানেল থেকে সভাপতি পদে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল জামিল (এ জে) মোহাম্মদ আলী এবং সাধারণ সম্পাদক পদে বর্তমান সম্পাদক ব্যারিস্টার এএম মাহাবুব উদ্দিন খোকন প্রার্থী হোন। সহ-সভাপতি পদে মো. আব্দুল জব্বার ভূইয়া এবং আব্দুল বাতেন। কোষাধ্যক্ষ পদে মো. ইমাম হোসেন।

সহ-সম্পাদক পদে মোহাম্মদ মুজিবুর রহমান এবং শরীফ ইউ আহম্মেদ। এ ছাড়াও সদস্য পদে অ্যাডভোকেট রাশিদা আলিম ঐশী, মোহাম্মদ ওসমান চৌধুরী, কাজী আখতার হোসেন, মো. শাফিউর রহমান, মো. শরীফ উদ্দিন রতন, মো. মোহাদ্দেস উল ইসলাম ও সৈয়দা শাহীন আরা লাইলি প্রার্থী হয়েছেন।

এ দু প্যানেল ছাড়াও স্বতন্ত্রভাবে সভাপতি প্রার্থী হয়েছেন এবিএম ওয়ালিউর রহমান খান ও ড. মো. ইউনুছ আলী, সম্পাদক পদে মনির হোসেন, সহ-সম্পাদক পদে ফরহাদ উদ্দিন আহমেদ ভুইয়া ও সদস্য পদে তপন কুমার দাস। এর মধ্যে সভাপতি এবিএম ওয়ালিউর রহমান খান এবং সম্পাদক পদে মনির হোসেন বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী। নির্বাচনের দুইদিন আগে তাদের বহিষ্কারও করা হয়।

 

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?