মঙ্গলবার, ২১ মে ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

শনিবার, ১১ মে, ২০১৯, ০৬:৩৮:৪৭

ওসি মোয়াজ্জেমকে রংপুরে বদলির প্রতিবাদে জুতা প্রদর্শন করে মানববন্ধন

ওসি মোয়াজ্জেমকে রংপুরে বদলির প্রতিবাদে জুতা প্রদর্শন করে মানববন্ধন

ফেনী : ফেনীর মাদরাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে সোনাগাজী মডেল থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

পরে তাকে রংপুর রেঞ্জে সংযুক্ত করা হলে এর প্রতিবাদে জুতা প্রদর্শন করে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করেন শিক্ষার্থীরা।

শনিবার নগরীর লালবাগ মোড়ে ওসি মোয়াজ্জেমকে রংপুর রেঞ্জ থেকে অবিলম্বে প্রত্যাহার এবং স্থায়ী চাকরিচ্যুত করার দাবিতে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আয়োজনে ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

সংগঠনটির রংপুর বিভাগীয় কমিটির আহ্বায়ক রায়হান শরীফের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, নারী জাগরণের অগ্রদূত বেগম রোকেয়ার পূণ্যভূমি রংপুরে নুসরাত হত্যার সাহায্যকারী মোয়াজ্জেমের ঠাই হবে না।

আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনকে রংপুর রেঞ্জ থেকে প্রত্যাহার, স্থায়ী চাকরিচ্যুত এবং হত্যার ঘটনায় জড়িত সবাইকে দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবি জানান তারা।

মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে জুতা প্রদর্শন করে নারী নির্যাতন ও হত্যাকারীদের সহযোগী ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের প্রতি ঘৃণা প্রকাশ করা হয়। পাশাপাশি হত্যার ঘটনায় জড়িত সবাইকে দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবি জানানো হয়।

এতে রংপুর বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, কারমাইকেল কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন।

এই বিভাগের আরও খবর

  পাকিস্তানের জন্য ভিসা বন্ধ করলো বাংলাদেশ

  বালিশের কথা শুনে হাসলেন বিচারপতিরা

  ফলের বাজার নজরদারিতে কমিটি গঠনের নির্দেশ হাইকোর্টের

  স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে সেই পুলিশ সদস্য প্রত্যাহার

  প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে জাপানি রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

  রূপপুর বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্পে দুর্নীতি তদন্তের প্রতিবেদন চেয়েছে হাইকোর্ট

  বালিশের দাম ৫৯৫৭ টাকা, যা বললেন গণপূর্তমন্ত্রী

  দুর্নীতির প্রতিবাদে বালিশ বিক্ষোভ

  পুলিশের বিরুদ্ধে স্কুলছাত্রীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ

  ঈদযাত্রা নিরাপদ করতে যাত্রী কল্যাণ সমিতির ২০ দফা প্রস্তাব

  রাঙামাটিতে যুবলীগ সভাপতিকে গুলি করে হত্যা

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?