শুক্রবার, ২১ জুন ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

রবিবার, ২৬ মে, ২০১৯, ১১:০০:৩৪

‘জয় পাকিস্তান’ বিতর্কে জাতির কাছে ক্ষমা চাইলেন এ কে খন্দকার

‘জয় পাকিস্তান’ বিতর্কে জাতির কাছে ক্ষমা চাইলেন এ কে খন্দকার

ঢাকা : নিজের লেখা ‘১৯৭১: ভেতরে বাইরে’ বইয়ে ভুল তথ্যের জন্য জাতির কাছে ক্ষমা চেয়েছেন মুক্তিযুদ্ধের উপ-অধিনায়ক এবং সাবেক মন্ত্রী এ কে খন্দকার (বীর উত্তম)। বইটিতে ‘জয় বাংলা’র পাশাপাশি বিতর্কিত ‘জয় পাকিস্তান’ লেখার কারণে তার এই ক্ষমা প্রার্থনা। ‘জয় পাকিস্তান’ শব্দটি ফেলে দিয়ে সংশোধনের জন্য বইটির প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান প্রথমা প্রকাশনির সহযোগিতা চেয়েছেন তিনি।

আজ রোববার একটি টেলিভিশনে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জাতির কাছে ক্ষমা চান একে খন্দকার। তিনি বলেন, ‘আমার ভুল করেছি যে পাকিস্তান কথাটা বলেছি। ওটা ভুল। আমার ভুল হয়েছে, একেবারে সম্পূর্ণ ভুল। আমি নিজেই জানি না কেন ভুল করলাম।’
এ সময় নিজের ভুলের জন্য ক্ষমা চান তিনি। বলেন, ‘আমি যে ভুল করেছি তার জন্য আমি ক্ষমা চাচ্ছি।’

তার এই ভুলে জন্য ক্ষমা চেয়ে শেষবারের মতো বঙ্গবন্ধুকন্যার সঙ্গে দেখা করতে চান মুক্তিযুদ্ধের উপ-অধিনায়ক একে খন্দকার।

নিজের আত্মজীবনী ১৯৭১: ভেতরে বাইরে বইটির ‘জয় পাকিস্তান’ অংশটুকু ইতিহাস বিকৃত করেছে। বিধায় আমৃত্যু বঙ্গবন্ধুর আদর্শীক বিশ্বাসী থাকবেন বলেও দাবি করেছেন সাবেক এই মন্ত্রী।

একে খন্দকারকে স্বাধীন দেশে বঙ্গবন্ধু বিমানবাহিনীর প্রধানের দায়িত্ব দিয়েছিলেন। ১/১১ এর পর যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে গঠিত প্লাটফর্মে নেতা ছিলেন তিনি। তাই মহাজোট সরকার ক্ষমতায় আসার পর পরিকল্পনা মন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হয় তাকে। কিন্তু ২০১৪ সালে মন্ত্রীত্ব ছাড়ার পর প্রকাশ করেন নিজের আত্মজীবনী ১৯৭১: ভেতরে বাইরে।

বইটির ৩২ নম্বর পৃষ্ঠায় বঙ্গবন্ধু ঐতিহাসিক ৭মার্চের ভাষণের শেষে ‘জয় পাকিস্তান’ বলেছিলেন- এমনটা উল্লেখ করায় সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি।

জয় পাকিস্তান বিতর্কে বিএনপি সমর্থন দিলেও পরবর্তীতে একে খন্দকারের সমালোচনা করে দলটি। কারণ বইটিতে উল্লেখ আছে জিয়াউর রহমান নয়, একজন রেডিও কর্মচারি প্রথম বঙ্গবন্ধুর পক্ষে স্বাধীনতার ঘোষণা করেন।

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?