রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ১১ জুন, ২০১৯, ০৭:০৫:৪১

নাইক্ষ্যংছড়ির বাইশারী-গর্জনিয়া সড়কের বেহাল দশা দেখার কেউ নেই

নাইক্ষ্যংছড়ির বাইশারী-গর্জনিয়া সড়কের বেহাল দশা দেখার কেউ নেই

উথোয়াইচিং মারমা, বান্দরবান থেকে : বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী-গর্জনিয়া সড়ক এখন আর সড়ক নেই। রাস্তা নয় মনে হয় যেন মরন ফাঁদ।

দৈনিক কোনো না কোনো ঘটনা ঘটেই যাচ্ছে। বিগত এক যুগ যাবত সড়কটি মেরামত না করায় প্রতিদিন দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে পথচারী। তার পর ও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দীর্ঘ আট কিলোমিটার সড়ক পথ পাড়ি দিয়ে গন্তব্য স্থানে ছুটছে লোকজন।

অবহেলিত জনপদের রাস্তাটি তিন ইউনিয়নের লক্ষাধিক লোকের চলাচলের একমাত্র মাধ্যম। পুরো এলাকাটি উন্নয়ন ও কৃষি ফলনশীল। শুকনো মৌসুমে কোনো রকম চলাচল করলেও বর্ষা মৌসুম শুরু হলে দুঃখের আর সীমা থাকে না।

এসব কথা জানালেন স্থানীয় বাসিন্দা মোঃ আব্দুল আলিম, মোঃ বেলাল, মো জসিম, গর্জনিয়া ইউনিয়ন যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সাইমুন হাসান মানু, জয়নাল আবেদীন, মোঃ নাজেরসহ অনেকে। পার্বত্য বান্দরবান জেলার বাইশারী ইউনিয়নের আওতায় এক কিলোমিটার এবং দীর্ঘ আট কিলোমিটার সড়কটির অবস্থান রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়ন হয়ে ক”ছপিয়া ভায়া গর্জনিয়া বাজার।

ওই সড়ক দিয়ে দুটি উপজেলা সদর, নাইক্ষ্যংছড়ি ও রামু উপজেলা যাওয়ার একমাত্র রাস্তা। শুধু সংস্কারের অভাবে দিন দিন খানা খন্দ বেড়ে যাচ্ছে।

সড়কটি মেরামত জরুরি হয়ে পড়েছে। দীর্ঘ আট কিলোমিটার সড়ক পথে বড়বিল, থোয়াইঙ্গাকাটা, থিমছড়ি, সিকদার পাড়া জুমছড়ি, শাহ মোহাম্মদের পাড়াসহ বিভিন্ন স্থানে করুণ দশায় পরিণত হয়েছে।

এ বিষয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান ছৈয়দ নজরুল ইসলাম সড়কটির করুণ পরিণতির কথা স্বীকার করে বলেন, তিনি বিষয়টি সমন্বয় সভায় উপস্থাপন করেছেন।

অচিরেই কাজ শুরু করা হবে। তিন ইউনিয়নের লক্ষাধিক জনগণ সড়কটি জরুরি ভিত্তিতে মেরামতের জন্য নব-নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যানের নিকট জোর দাবি জানান।

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?