শনিবার, ২৪ আগস্ট ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

রবিবার, ২৮ জুলাই, ২০১৯, ১২:৫৮:৫২

দুর্বৃত্তের দেওয়া এসিডে দগ্ধ মাদরাসা ছাত্রী ঢামেকে

দুর্বৃত্তের দেওয়া এসিডে দগ্ধ মাদরাসা ছাত্রী ঢামেকে

ঢামেক+ ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার পাঁচবাগ ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসার ডিগ্রি প্রথম বর্ষের ছাত্রী মিনহারা ফিদা (২০) দুর্বৃত্তের দেওয়া এসিডে দগ্ধ হয়ে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঘটনাটি ঘটে।

মিনহারা ফিদা ময়মনসিংহ জেলার গফরগাঁও উপজেলার পাগলা থানার চর সাকচুড়া গ্রামের পল্লী চিকিৎসক মোহাম্মদ সালাউদ্দিন এর মেয়ে।

দগ্ধ ছাত্রীর বড় ভাই নূর উদ্দিন খাঁ জানান, সকালে মাদরাসা থেকে চর সাকচুড়া বাসায় ফেরার পথে তারাটিয়া নামক নির্জন স্থানে পেছন থেকে মোটরসাইকেল যোগে দুইজন অজ্ঞাত যুবক বোতল থেকে এসডি জাতীয় পদার্থ মিনহারার শরীর ছুড়ে মারে।

তিনি বলেন, এতে দুই হাত আর নাক থেকে থুতনি পর্যন্ত দগ্ধ হয়ে যায়। চিৎকারে শুনে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে। তাৎক্ষণিকভাবে আমি এসে তাকে মুখে ও হাতে পানি ঢালতে থাকি। পরে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে হোসেন পুর থানা সাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেই। পরে কিশোরগঞ্জ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখান থেকে রাত সোয়া ১০টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে আনা হয়।

নূর উদ্দিন জানান, এসিড ছুড়ে মারার সময় পিছন থেকে মোটরসাইকেল চালক বলে উঠে, এ মেয়ে না। তার আগেই পিছন থেকে ওই যুবক ছুড়ে মারে এতে মিনহারা ঝলসে যায়।

এ শনিবার পাগলা থানায় মামলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন নূর উদ্দিন।

বার্ন ইউনিটের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. তরিকুল ইসলাম জানান কেমিকেল বার্নে তার মুখ এবং দুই হাত দগ্ধ হয়েছে। তবে সেটা এসিড জাতিয় কি না পরীক্ষার মাধ্যমে বলা যাবে। বর্তমানে মিনহারা বার্নইউনিটে ভর্তি রয়েছে।

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?