সোমবার, ২১ অক্টোবর ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

শুক্রবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১১:৫৯:১২

৯ কোটি টাকায় মৃতকে জীবিত করলেন সাব-রেজিস্ট্রার

৯ কোটি টাকায় মৃতকে জীবিত করলেন সাব-রেজিস্ট্রার

ভালুকা : ভালুকায় জমির কাগজ জালিয়াতির মাধ্যমে নয় কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে এক সাব-রেজিস্ট্রারসহ তিনজনের বিরুদ্ধে দুটি মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। প্রতিষ্ঠানটির ময়মনসিংহ সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ-সহকারী পরিচালক সাধন সূত্র ধর জানান, গত বুধবার ওই তিনজনের বিরুদ্ধে দুটি মামলা করেছে দুদক।

অভিযুক্ত সাব-রেজিস্ট্রার জাহাঙ্গীর আলম এক মাস আগে ভালুকা থেকে যশোরের ঝিনাইদহ সাব-রেজিস্ট্রার অফিসে বদলি হয়েছেন।

দুদকের করা মামলার এজাহারে বলা হয়, ভালুকার সাব-রেজিস্ট্রার অফিসের দলিল লেখক সিরাজুল ইসলাম সুজন ও জমির দালাল আবু রাসেল চৌধুরীর যোগসাজশে জাহাঙ্গীর আলম প্রতারণা করে নয় কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়, তিনি জালিয়াতির মাধ্যমে উপজেলার ভরাডোবা ইউনিয়নের এক মৃত ব্যক্তি ও বিদেশে অবস্থানরত এক ব্যক্তির নাম, ঠিকানা ব্যবহার করে ভুয়া দলিলদাতা সাজিয়ে কমিশন গঠন করেন। ২০১৭ সালে ২০ অক্টোবর আবু রাসেল চৌধুরীর নামে দুটি আমমোক্তারনামা (এমন এক ধরনের দলিল যার মাধ্যমে কোনো ব্যক্তি তার পক্ষে উক্ত দলিলে বর্ণিত কাজ সম্পাদনের জন্য আইনানুগভাবে অন্য কোনো ব্যক্তির নিকট ক্ষমতা অর্পণ করেন) দলিল নিবন্ধন করেন সাব-রেজিস্ট্রার জাহাঙ্গীর আলম। একটি দলিলে জমির পরিমাণ নয় একর ৭৩ শতাংশ, আরেকটিতে আট  একর ২০ শতাংশ।

মামলার এজাহারে আরও বলা হয়, নয় কোটি ৭৭ লাখ টাকা জমির মূল্য নির্ধারণ করে রাসেল চৌধুরী ওই জমি একই বছরের ৯ ও ১৪ই নভেম্বর ব্যবসায়ী আজমল কবিরের কাছে  দলিলে (কোনো ব্যক্তি তার সম্পত্তি অন্যের নিকট বিক্রি করে যে দলিল সম্পাদন ও রেজিস্টারি করে দেন তাকে সাফ কবলা দলিল বলা হয়) বিক্রি করে দেন। এভাবে জালিয়াতির মাধ্যমে প্রায় ১০ কোটি টাকা মূল্যের জমি আত্মসাৎ করে ওই টাকা তারা তিনজন মিলে ভাগাভাগি করে নেন।

ঘটনা জানাজানি হলে প্রাথমিক অনুসন্ধানে জমি আত্মসাৎ ও দলিল জালিয়াতির সত্যতা পেয়ে দুদক তাদের বিরুদ্ধে দুইটি মামলা করে।

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?