বৃহস্পতিবার, ২৪ অক্টোবর ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১১:৫৪:১৮

দুর্নীতি করলে রাজনীতিবিদ-জনপ্রতিনিধিদেরও ছাড় নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

দুর্নীতি করলে রাজনীতিবিদ-জনপ্রতিনিধিদেরও ছাড় নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

দুর্নীতির বিরুদ্ধে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল হুঁশিয়ারি করে বলেছেন, ‘কোনও দুর্নীতিবাজকে বরদাস্থ করা হবে না। সে রাজনীতিবিদ, সরকারি চাকরিজীবী কিংবা নির্বাচিত প্রতিনিধি হোক তাকে আইনের আওতায় আনা হবে বলে।’

মঙ্গলবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে ইউএনওডিসি আয়োজিত কারাববন্দিদের জন্য তৈরি ডাটাবেজ উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জঙ্গি সন্ত্রাসের পর মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছেন। এখন তিনি দুর্নীতি পরায়ণ ব্যক্তিদেরকে সতর্ক করছেন, তিনি কোনো দুর্নীতিকে বরদাস্থ করবেন না।’

কারাগারের কর্মকর্তাদের দুর্নীতি প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘সব জায়গায় দুর্নীতি আছে। কোনও দুর্নীতিপরায়ণ ব্যক্তিদের আমরা আশ্রয়-প্রশ্রয় দেবো না।’

মন্ত্রী বলেন, ‘পরিষ্কার কথা- যেই দুর্নীতি করবে, হোক রাজনীতিবিদ, নির্বাচিত প্রতিনিধি, চাকরিজীবী কিংবা কারা কর্মকর্তা, তাদের বিরুদ্ধেই আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কারাগারে যে শুদ্ধি অভিযান চলছিল, সেটা চলবে।’

অন্যদিকে জাতিসংঘের মাদক ও অপরাধ বিষয়ক অফিস (ইউএনওডিসি) কারাবন্দিদের বায়োমেট্রিক তথ্য সম্বলিত ডাটাবেজ সফটওয়্যার প্রস্তুত করেছে। গত জুন মাস থেকে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এবং গাজীপুর জেলা কারাগারের পাইলট ভিত্তিতে এটি ব্যবহার করা হচ্ছে।

কারাগারে বন্দি ব্যবস্থাপনা এই ডাটাবেজ প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ক্রিমিনাল ডাটাবেজের মাধ্যমে কারাগারে অবস্থিত প্রত্যেক বন্দিদের সকল তথ্য সংরক্ষিত থাকবে। এতে করে, কোন বন্দির কি অপরাধ, কে কখন কোথায় যাচ্ছে এবং কোন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে সব লিপিবদ্ধ থাকবে।’

কারাগার সূত্র বলছে, ‘বন্দিদের আঙ্গুলের ছাপ ও চোখের কর্নিয়ার ছবি সংরক্ষণ করা থাকাতে, এই ডাটাবেজের মাধ্যমে কারাগারে ভুল ব্যক্তির অবস্থান সহজে শনাক্ত করা যাবে।’

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত রবার্ট মিলার এবং জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি মিয়া শেপ্পো।

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?