বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

শনিবার, ২৬ অক্টোবর, ২০১৯, ০৬:২০:৪১

শার্শায় প্রাথমিক শিক্ষকদের মুখে কালোকাপড় বেঁধে প্রতিবাদ

শার্শায় প্রাথমিক শিক্ষকদের মুখে কালোকাপড় বেঁধে প্রতিবাদ

বেনাপোল প্রতিনিধি : প্রাথমিক শিক্ষকদের মহাসমাবেশে নির্যাতনের প্রতিবাদে মুখে কালোকাপড় বেঁধে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করেছেন শার্শা উপজেলার শিক্ষকরা।

যশোরের শার্শা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাধারন সম্পাদক ওসমান গনি মুকুল বলেন, শনিবার উপজেলার ১২৬টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা তাদের বিদ্যালয়ের সামনে সকাল ১১টা থেকে ১১টা ১০মিনিট পর্যন্ত এই কর্মসূচি পালন করেন। একযোগে দেশের সব বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা এ কর্মসূচি পালন করেছেন।

মুকুল আরো বলেন, গত বুধবার মহাসমাবেশে শিক্ষকদের ওপর নির্যাতনের প্রতিবাদে শিক্ষকরা স্ব-স্ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শনিবার সকাল ১১টা থেকে ১১টা ১০মিনিট পর্যন্ত একযোগে মুখে কালোকাপড় বেঁধে এ কর্মসূচি পালন করতে নির্দেশনা দেন শিক্ষক সমিতির কেন্দ্রীয় নেতারা।

উল্লেখ্য, গত বুধবার গ্রেড পরিবর্তন ও বেতন বৃদ্ধির দাবিতে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শিক্ষকদের পূর্বঘোষিত মহা সমাবেশে বাধা দেয় পুলিশ। শিক্ষকরা শহীদ মিনারের সামনে থেকে সরে গিয়ে পাশেই অবস্থান নেন।

এ সময় পুলিশের দুই দফায় লাঠিচার্জে ১০ জন আহত হন বলে শিক্ষক নেতারা দাবি করেছেন। আগামী ১৩ নভেম্বরে মধ্যে ১০ম গ্রেড ও সহকারীদের ১১তম গ্রেড না দিলে আসন্ন প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা এবং পরে বার্ষিক পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দেন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকেরা।

এই বিভাগের আরও খবর

  বাঁশে ঝুলিয়ে যুবককে নির্যাতন, সালাম মেম্বার ধরা পড়লেন

  পিইসি পরীক্ষায় ‘বহিষ্কার’ কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট

  বিভিন্ন জেলায় আজও পরিবহন ধর্মঘট, ভোগান্তি

  কিশোরগঞ্জে ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত, ট্রেন চলাচল বন্ধ

  কারণ ছাড়া প্রসূতির সিজার: ২৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে রিট

  ‘সন্তানরা আরেকবার রাস্তায় নামলে আমাদের কারও পিঠে চামড়া থাকবে না’

  একটি গোষ্ঠী চাল নেই, লবণ নেই বলে অপপ্রচার চালাচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী

  অপপ্রচারে কান দিয়ে বিভ্রান্ত হবেন না: প্রধানমন্ত্রী

  প্রাণ গ্রুপের কাভার্ড ভ্যানের চাপায় নিহত ২

  শিখা অনির্বাণে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

  স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আশ্বাসের পরও খুলনায় চলছে না বাস

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?