মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল ,২০২০

Bangla Version
  
SHARE

রবিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২০, ০১:১০:০৪

সৌদি থেকে ফিরেছেন আরও ১৪৫ জন বাংলাদেশি

সৌদি থেকে ফিরেছেন আরও ১৪৫ জন বাংলাদেশি

ঢাকা : সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশিদের ফেরা অব্যাহত রয়েছে। শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাতে সৌদি আরব থেকে আরও ১৪৫ বাংলাদেশিকে দেশে পাঠানো হয়েছে। সৌদি এয়ারলাইন্সের এসভি ৮০২ বিমানযোগে শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাত সোয়া ১২টায় তারা দেশে ফেরেন। এ নিয়ে গত দেড়মাসে সাড়ে পাঁচ হাজার বাংলাদেশি সৌদি আরব থেকে ফিরলেন। প্রবাসী কল্যাণ ডেস্কের সহযোগিতায় বরাবরের মতো গতকালও ফেরত আসাদের ব্র্যাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রাম থেকে জরুরী সহায়তা প্রদান করা হয়।

শনিবার ফেরাদের একজন মো. শহিদুল ইসলাম জানান, মাত্র তিন মাস আগে তিন লাখ টাকা খরচ করে ড্রাইভিং কাজে গিয়েছিলেন সৌদি আরবে। কিন্তু কোন কারণ ছাড়াই তাকেও দেশে ফিরতে হয়েছে শূন্য হাতে। মাত্র আট মাসের মাথায় নরসিংদীর শিবপুর উপজেলার একই গ্রামের দুই যুবক বিজয় মিয়া ও নাজির উদ্দিন দেশে ফিরেছেন। তারা বলেন তিন লাখ করে টাকা খরচ করে ড্রাইভিং ভিসাতে যাওয়ার পর সেখানে নিয়োগকর্তা তাদের আকামা করেনি। পুলিশ ধরলে তারা নিয়োগকর্তার সাথে যোগাযোগ করলে তাদের কোর দায়িত্ব নেয়নি নিয়োগকর্তা।

যাওয়ার নয় মাসের মধ্যে দেশে ফিরে এসেছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আল-আমিন, নোয়াখালীর শাহজাহান,চাঁদপুরের আমিনুল, নারায়ণগঞ্জের হোসেন আলী, মৌলভীবাজারের পারভেজ মিয়া, সাতক্ষিরার ওবায়দুল্লাহ। ব্র্যাকের অভিবাসন কর্মসূচির প্রধান শরিফুল হাসান জানান, গত দেড়মাসে সৌদি আরব থেকে সাড়ে পাঁচ হাজার প্রবাসী ফিরেছেন যাদের অনেককেই যাওয়ার তিন মাস থেকে এক বছরের মধ্যে ফিরতে হয়েছে। গতকাল রাতে দুজন বলছিলেন তারা তিন লাখ করে টাকা খরচ করে সেখানে গিয়েছিলেন। কিন্তু নিয়োগকর্তা তাদের আকামাই করেনি। পুলিশ ধরলে তারা নিয়োগকর্তার সাথে যোগাযোগ করলে তাদের কোর দায়িত্ব নেয়নি। প্রশ্ন হলো কারা তাহলে সৌদি আরব পাঠালো। এই ধরনের প্রতারণা বন্ধ হওয়া উচিত।

প্রবাসী কল্যাণ ডেস্কের তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছরের জানুয়ারিতে তিন হাজার ৬৩৫ জন এবং ফেব্রুয়ারিতে এক হাজার ৯৫৯ জন সৌদি আরব থেকে ফিরে এসেছেন। এদের মধ্যে অন্তত তিনশজন রয়েছেন নারী। আর প্রবাসী কল্যাণ ডেস্কের তথ্য অনুযায়ী ২০১৯ সালে মোট ৬৪ হাজার ৬৩৮ কর্মী দেশে ফিরেছেন যাদের পরিচয় ডিপোর্টি। এদের মধ্যে ২৫ হাজার ৭৮৯ জনই ফিরেছেন সৌদি আরব থেকে।

ব্র্যাক অভিবাসন কর্মসূচির প্রধান শরিফুল হাসান বলেন, ফেরত আসা এই প্রবাসীদের পাশে সরকারি ও বেসরকারি সংস্থা সবার সমন্বিতভাবে দাঁড়ানো উচিত। পাশাপাশি এভাবে যেন কাউকে শূন্য হাতে ফিরতে না হয় এবং প্রত্যেকে গিয়ে যেন কাজ পায় এবং কাজের মেয়াদ শেষে খরচের টাকাটা অন্তত তুলতে পারে সেটা নিশ্চিত করতে হবে। রিক্রুটিং এজেন্সি, দূতাবাস ও সরকার সবাই মিলে এই কাজটি করতে হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

  করোনায় বিপর্যয়ের মুখে দেশের পার্লার ব্যবসা

  করোনা ভাইরাসে মারা যাওয়া দুদক পরিচালকের দাফন সম্পন্ন

  একাধিক করোনা রোগী ৪ এলাকায়, ছড়িয়েছে ১৫ জেলায়

  চিকিৎসা দেয়নি কোনো হাসপাতাল, মারা গেলেন ঢাবি শিক্ষার্থী

  চট্টগ্রামে হঠাৎ রাস্তায় মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লেন পোশাকশ্রমিক ও রিকশাচালক

  চট্টগ্রামে শ্বাসকষ্ট নিয়ে চিকিৎসাধীন মুক্তিযোদ্ধাসহ ২ জনের মৃত্যু

  বাংলাদেশেও লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্ত রোগী

  করোনা রোগী আছে এমন সব এলাকা পুরোপুরি লকডাউনের নির্দেশ

  জেনে নিন রমজানে অফিসের সময়সূচী

  ভালুকায় বেতন-ভাতার বিক্ষোভে শ্রমিক-পুলিশ রণক্ষেত্র, নিহত ২

  দেশে এক লাফে ২৯ করোনা রোগী শনাক্ত, মোট ১১৭

আজকের প্রশ্ন

বিএনপির নেতারা আইন না বুঝেই মন্তব্য করে আইনমন্ত্রীর এমন বক্তব্যে আপনি কি একমত?