শনিবার, ০৮ আগস্ট ,২০২০

Bangla Version
  
SHARE

শনিবার, ০১ আগস্ট, ২০২০, ১১:১৮:৪৭

সারা দেশে ঈদ জামাতে রোগব্যাধি মুক্তির প্রার্থনা

সারা দেশে ঈদ জামাতে রোগব্যাধি মুক্তির প্রার্থনা

ঢাকা : যথাযথ মর্যাদা, ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও উৎসবের আমেজে রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে পবিত্র ঈদুল আজহার জামাত।

করোনা ভাইরাসের বিরূপ বাস্তবতায় দেশের প্রায় সকল ঈদ জামাতে কাতারে কাতারে মুসল্লিরা জামাত শেষে মোনাজাতে অংশ নিয়ে বিশ্ববাসীর রোগমুক্তির কামনা করেন। একইসঙ্গে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতদের জন্য দোয়া করা হয়। দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা কামনা করা হয়।

শনিবার (১ আগস্ট) সকাল থেকেই ঢাকাসহ দেশের সকল বিভাগীয়, জেলা, উপজেলা ও স্থানীয় পর্যায়ে একযোগে ঈদের জামাত শুরু হয়। ঈদের নামাজ শেষে পরম করুণাময় আল্লাহতায়ালার সন্তুষ্টি লাভের আশায় এখন চলছে পশু কোরবানি।

এদিন সকাল সকাল ৭টায় জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে ঈদের প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম জামাতে ইমামতি করেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম হাফেজ মুফতি মাওলানা মিজানুর রহমান। মুকাব্বির ছিলেন মুয়াজ্জিন হাফেজ ক্বারি কাজী মাসুদুর রহমান।

মিজানুর রহমান মোনাজাতে বলেন, ‘আল্লাহ, যারা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ইন্তেকাল করেছেন, তাদের আপনি শাহাদাতের মর্যাদা দান করে দিন। হে আল্লাহ, যারা অসুস্থ আছেন, দয়া করে তাদের শেফা দান করে দিন। এই বিমারি থেকে, রোগ-ব্যাধি থেকে আমাদের সবাইকে হেফাজত করে দিন।’

এরপর পর্যায়ক্রমে আরও ৫টি জামাতসহ মোট ৬টি জামাত অনুষ্ঠিত হয় বায়তুল মোকাররমে। জাতীয় মসজিদ ছাড়াও ঢাকার দুটি সিটির বিভিন্ন উল্লেখযোগ্য মসজিদ ও প্রায় প্রতিটি ওয়ার্ডেই স্থানীয়ভাবে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। তবে এবছর করোনা সংক্রমণ এড়াতে হাইকোর্ট সংলগ্ন জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদুল ফিতরের মতো ঈদুল আজহায়ও ঈদের জামাত স্থগিত রাখা হয়েছে।

ঢাকার বাইরে খুলনায় টাউন জামে মসজিদে ঈদুল আজহার প্রধান ও প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে সকাল ৮টায়। তবে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে খুলনায় এবার উন্মুক্ত স্থানে বা মাঠে কোনও ঈদের জামাত হতে দেখা যায়নি।

রাজশাহী নগরীতে সকাল ৮টায় হজরত শাহ মখদুম (রহ.) কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে পবিত্র ঈদুল আজহার প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়। বিভিন্ন দফতরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা-কর্মচারী, রাজনৈতিক নেতাসহ সাধারণ মুসল্লিরা ঈদের নামাজ আদায় করেন।

বন্দরনগরী চট্টগ্রামে ঈদের প্রথম জামাত সকাল ৮টায় দামপাড়ার জমিয়তুল ফালাহ মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ওই জামাতে ইমামতি করেন জমিয়তুল ফালাহ মসজিদের খতিব ও জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়া মাদরাসার মুহাদ্দিস হজরতুল আল্লামা সৈয়দ আবু তালেব মোহাম্মদ আল্লাউদ্দীন আল কাদেরী।

নামাজ শেষে মোনাজাতে দেশ-জাতির মঙ্গল কামনায় আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করা হয়। করোনার কারণে নামাজ শেষে মুসল্লিরা কোলাকুলি থেকে বিরত থাকলেও ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। এর বাইরে সামাজিক দূরত্ব মেনে নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলরদের উদ্যোগে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

গোপালগঞ্জে সকাল সাড়ে ৭টায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ঈদগাহের পরিবর্তে কেন্দ্রীয় কোর্ট মসজিদে ঈদুল আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। কিশোরগঞ্জ ও দিনাজপুরেও সকাল ৮টায় ঈদের প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয়। তবে করোনা ভাইরাসের কারণে উপমহাদেশের প্রাচীন ও বাংলাদেশের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানে এবারও ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়নি।

সিলেটে সকাল ৮টায় ঈদুল আজহার প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয়। মুসল্লিদের নিরাপত্তায় নগরীর শাহজালাল (রহ.) মাজারসহ বিভিন্ন স্থানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

এছাড়াও দেশের প্রতিটি জেলা-উপজেলায় সকাল থেকে ঈদুল আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজকের প্রশ্ন

বিএনপির নেতারা আইন না বুঝেই মন্তব্য করে আইনমন্ত্রীর এমন বক্তব্যে আপনি কি একমত?