শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

শুক্রবার, ২০ জুলাই, ২০১৮, ০২:০২:৪১

সন্দেহের বশে লজ্জাস্থানে বৈদ্যুতিক শক দিয়ে স্ত্রীকে হত্যা

সন্দেহের বশে লজ্জাস্থানে বৈদ্যুতিক শক দিয়ে স্ত্রীকে হত্যা

ঢাকা: স্ত্রী তার সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে, শুধুমাত্র এই সন্দেহের বশেই ভারতের সেনাবাহনীর এক সেনা তার স্ত্রীর লজ্জাস্থানে বৈদ্যুতিক শক দিয়ে তাকে হত্যা করল। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের ছত্তিশগড়ের বলোদাবাজার ভাটাপাড়া জেলায়।

পুলিশ জানিয়েছে, সিএএফে কর্মরত সেনা সুরেশ মিরি এই ঘটনাটি ঘটিয়েছে। তার স্ত্রী লক্ষ্মী সেই সময় বাথরুমে কাপড় ধোয়ার কাজ করছিলেন। হঠাৎই সুরেশ বাথরুমে ঢুকে স্ত্রীকে মারতে শুরু করে। মারের চোটে লক্ষ্মী অজ্ঞান হয়ে যান। এরপরই সুরেশ তারের সাহায্যে তার গোপনাঙ্গে বৈদ্যুতিক শক দেয়। লক্ষ্মীর মৃতদেহর পাশ থেকেই উদ্ধার করা হয়েছে তারটি।

দান্তেওয়াড়া জেলার সিএএফের ৬তম ব্যাটেলিয়ানে সুরেশ রাঁধুনির কাজ করত। পুলিসের কাছে সুরেশ নিজের দোষ স্বীকার করেছে। সে জানিয়েছে, তার স্ত্রীর বিবাহ-বর্হিভূত সম্পর্ক আছে বলে তার সন্দেহ ছিল। বুধবার তাদের মধ্যে এ নিয়ে উত্তপ্ত কথোপকথন হয়। এরপরই এই ঘটনার সূত্রপাত।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, লক্ষ্মীকে খুন করার পর সুরেশ তার শ্বশুড়বাড়িকে জানায় যে তার স্ত্রী খুব অসুস্থ হয়ে পড়েছে। এরপরই সুরেশ একটি ভ্যান ভাড়া করে স্ত্রীর দেহটিকে মুঙ্গেলি জেলায় নিয়ে যায়। সেখানে লক্ষ্মীর মা-বাবাকে সে বলে যে অসুস্থতার জন্য লক্ষ্মী মারা গেছে। কিন্তু তাদের গোটা বিষয়টি সন্দেহ হওয়ায় তারা পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ এসে সুরেশকে গ্রেফতার করে।    ‌

 

 

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?