রবিবার, ২৯ মার্চ ,২০২০

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ০৩ মার্চ, ২০২০, ১১:১৯:৪৫

‘মৃত’ স্ত্রীকে ৭ বছর পর প্রেমিকের বাসায় খুঁজে পেলেন স্বামী!

‘মৃত’ স্ত্রীকে ৭ বছর পর প্রেমিকের বাসায় খুঁজে পেলেন স্বামী!

অনলাইন ডেস্ক: স্ত্রীকে খুনের দায়ে এক মাস জেল খাটতে হয়েছিল। সেই ‘মৃত’ স্ত্রীকে অবশেষে ভুক্তভোগী যুবই খুঁজে বের করেছেন। সাত বছর পর গত রোববার পুলিশের সহায়তায় তিনি স্ত্রীকে প্রেমিকের সঙ্গে ধরে ফেলেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার’র এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৩ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি উড়িষ্যার বাসিন্দা অভয় সুতারের সঙ্গে ইতিশ্রী মহারানার বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের দুই মাস পরই শ্বশুরবাড়ি থেকে পালিয়ে নিখোঁজ হন ওই গৃহবধূ। তাকে খুঁজে না পেয়ে ২০১৩ সালের ২০ এপ্রিল পাতকুরা থানায় অভিযোগ জানিয়েছিলেন স্বামী অভয়।

ইতিশ্রী নিখোঁজ হওয়ার পর তার বাবা প্রহ্লাদ মহারানা ওই বছরের মে মাসে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন। সেখানে পণের জন্য তার মেয়েকে অত্যাচার করে মেরে ফেলার অভিযোগ করেন তিনি। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই অভয়কে গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ। সেই গ্রেপ্তারির পর এক মাস জেল খেটে জামিনে মুক্ত হন অভয়।

কিন্তু জেল থেকে ছাড়া পেয়ে অভয়ের সন্দেহ হয়, তার স্ত্রী কারও সঙ্গে পালিয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে খোঁজ-খবর চালাতেও শুরু করেন তিনি। অবশেষে পিপলিতে প্রেমিকের সঙ্গে স্ত্রীর থাকার খবর পান তিনি। সে কথা পুলিশকে জানান। তারপর পুলিশ পিপলিতে গিয়ে আটক করে ইতিশ্রী ও তার প্রেমিককে। গতকাল সোমবার তাদের দুজনকে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন পাতকুরা থানার এক কর্মকর্তা।

পুলিশ জানায়, বিয়ের দুমাস পর প্রেমিক রাজীবের সঙ্গে গুজরাট পালিয়ে গিয়েছিলেন ইতিশ্রী। সেখানেই সাত বছর ছিলেন তারা। তাদের এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। সম্প্রতি তারা গুজরাট থেকে উড়িষ্যায় ফেরেন।

স্ত্রীর কুকীর্তি ফাঁস হওয়ার পর অভয় বলেন, ‘যখন পুলিশ খুঁজে পেল না, তখন আমিই খোঁজ শুরু করি। বহু জায়গায় খোঁজ চালানোর পর পিপলিতে তাদের খোঁজ পাই। সাত বছর পর নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে পেরে আমি খুশি।’

এই বিভাগের আরও খবর

আজকের প্রশ্ন

বিএনপির নেতারা আইন না বুঝেই মন্তব্য করে আইনমন্ত্রীর এমন বক্তব্যে আপনি কি একমত?