শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮, ০৫:০৮:৩৭

‘বাংলাদেশ-চীন সম্পর্কে ভারতের উদ্বেগের কিছু নেই’

‘বাংলাদেশ-চীন সম্পর্কে ভারতের উদ্বেগের কিছু নেই’

ঢাকা : চীনের সঙ্গে বাংলাদেশের ক্রমবর্ধমান সম্পর্কে ভারতের উদ্বেগের কিছু নেই বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেশের উন্নয়নের স্বার্থেই বেইজিংয়ের সঙ্গে সহযোগিতা জোরদার করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।
 
ভারতীয় সাংবাদিকদের একটি প্রতিনিধিদল মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে গণভবনে সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এই মন্তব্য করেন।
 
প্রধানমন্ত্রী তাদের জানান, তার সরকার শুধু উন্নয়ন নিয়ে চিন্তু করছে এবং এ ব্যাপারে বাংলাদেশকে সহাযোগিতা করতে চায়- এমন যেকোনো দেশের সঙ্গে কাজ করতে প্রস্তুত।
 
জাতিসংঘের প্রতিবেদন মতে, বাংলাদেশ এখনো একটি স্বল্প আয়ের দেশ (এলডিসি)। ২০২৪ সালের মধ্যে এলডিসি তালিকা থেকে বের হওয়ার চেষ্টা করছে সরকার। এজন্য স্বাস্থ্য ও শিক্ষা খাতের উন্নয়ন ছাড়াও অর্থনীতিতে প্রচুর বিনিয়োগ দরকার।
 
ভারতীয় প্রতিনিধিদলকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘যারাই প্রস্তাব দেবে, তাদের কাছ থেকেই আমরা বিনিয়োগ ও সহযোগিতা নেবো। আমরা দেশের উন্নয়ন চাই। উন্নয়নে লাভবান হবে দেশের জনগণ। তাই আমরা তাদের কথাই ভাবছি।’
 
তিনি জানান, বাংলাদেশকে সহায়তার জন্য শুধু চীন নয়; ভারত, জাপান, এমনকি মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোও আগ্রহী। তার ভাষায়, ‘এ নিয়ে ভারতের উদ্বেগের কিছু নেই।’
 
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি বরং পরামর্শ দিই, বাংলাদেশসহ অন্য প্রতিবেশীদের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক থাকা উচিত ভারতের, যাতে এই অঞ্চলে আরো উন্নয়ন হয়। পৃথিবীকে দেখাতে চাই, আমরা একসঙ্গে কাজ করি।’
 
সমুদ্রসীমা ও স্থলসীমা সংক্রান্ত সমস্যা সমধান করে বাংলাদেশ-ভারত দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে বলেও উল্লেখ করেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘অতীতে যেমন হয়েছে, কোনো সমস্যা থাকলে আমরা আলোচনার মাধ্যমে তার সমাধান করতে পারি। আমরা একটি শান্তিপূর্ণ দক্ষিণ এশিয়া গড়ে ‍তুলতে চাই।’
 
সম্প্রতি সামরিক পর্যায়েও বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ প্রত্যয় ব্যক্ত করেছে চীন। এক্ষেত্রে বাংলাদেশী সেনাদের প্রশিক্ষণ ও অস্ত্র দিয়ে সহায়তা দিতে চায় দেশটি।
 
এদিকে বৈঠকে রোহিঙ্গা ইস্যুতে ভারতের সহায়তা কামনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজকের প্রশ্ন

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন ‘খালেদা জিয়ার শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে বিএনপির নেতারা মিথ্যাচার ও বিভ্রান্তি করছে। আপনিও কি তাই মনে করেন?