বৃহস্পতিবার, ২৪ জানুয়ারী ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

বুধবার, ১১ জুলাই, ২০১৮, ১১:০৯:৩৩

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশী সিন্ডিকেটের কবল থেকে ৬৬ বাংলাদেশি গ্রেপ্তার

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশী সিন্ডিকেটের কবল থেকে ৬৬ বাংলাদেশি গ্রেপ্তার

মালয়েশিয়া: মালয়েশিয়ার অবৈধ শ্রমিকদের বৈধ করার বাংলাদেশি মালিকের একটি অফিস  এবং একটি ঘরের মধ্য থেকে ৬৬ জন বাংলাদেশিকে গ্রেফতার করেছে মালয়েশিয়া ইমিগ্রেশন এর স্পেশাল ব্রাঞ্চ। গত ১০ জুলাই গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ২৫ সদস্যর একটি স্পেশাল বাহিনী মালয়েশিয়ার প্রাণকেন্দ্র কুয়ালালামপুরের পার্শ্ববতী সিরি সেরডাং সেলাংগার এলাকায় অভিযান চালায়। যদিও রিহায়রিং প্রোগ্রামের আওতায় লাইসেন্স পেয়েছিল ওই বাংলাদেশী মালিকানাধীন কোম্পানিটি । শ্রমিকদের ঠকিয়ে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে গতকাল অভিযান পরিচালনা করে ইমিগ্রেশন বিভাগ । এ সময় অফিসে কর্মরত ছিল ১১  জন বাংলাদেশি ও দুইজন মালয়েশিয়ান নাগরিক । ৯৮ টি পাসপোর্টের ফটোকপি ২ লক্ষ ৫০ হাজার মালয় রিংগিত  আটক করে । এছাড়া অপর একটি রুম থেকে  ৫৫ জন বাংলাদেশি ও দুইজন ভারতীয় নাগরিককে গ্রেপ্তার করে । ইমিগ্রেশন
 বিভাগের মহাপরিচালক দাতুক সেরি মোস্তফার আলী জানান , দীর্ঘদিন ধরে মালয়েশিয়াকে ট্রানজিট হিসেবে ব্যবহার করে অবৈধ শ্রমিক আমদানি করে মালয়েশিয়ার বিভিন্ন কলকারখানায় সাপ্লাই করতো সিন্ডিকেট গ্রুপটি । তিনি আরো জানান , বিভিন্ন দেশ  থেকে অবৈধভাবে শ্রমিক এনে ঐ রুমটি ট্রানজিট রুট হিসেবে ব্যবহার করে মালয়েশিয়ার প্রত্যন্ত অঞ্চলে সাপ্লাই করতো মানবপাচারকারীরা। আটককৃতদের বিরুদ্ধে অভিবাসন আইন ১৯৫৯/৬৩, ১৯৬৬, ১৬৩ গ্রেফতার দেখানো হয়েছে ।

এই বিভাগের আরও খবর

  দূতাবাসে ভাঙচুর: কুয়েত থেকে ফেরত পাঠানো হচ্ছে ৩০০ বাংলাদেশিকে

  সৌদিতে ৩ বাংলাদেশির হাত-পা কেটে দেয়ার আদেশ

  মালয়েশিয়ায় ২ বাংলাদেশির হাত-পা-চোখ বাঁধা লাশ উদ্ধার

  দক্ষিণ আফ্রিকায় যেভাবে নিরাপদে থাকতে পারেন প্রবাসীরা

  যেসব কারণে প্রবাসে বাংলাদেশিরা মারা যাচ্ছেন

  বিদেশি অবৈধ কর্মীদের বৈধ করবে না মালয়েশিয়া

  মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি যুবককে পিটিয়ে হত্যা

  মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি শ্রমিককে প্রকাশ্যে পিটিয়ে হত্যা

  আমিরাতে কুড়িয়ে পাওয়া কোটি টাকা ফিরিয়ে দিলেন বাংলাদেশি

  যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশ হাইকমিশনে সাঈদা মুনা তাসনিমের যোগদান

  বাংলাদেশির অভিবাসন বাতিলে ভুল স্বীকার যুক্তরাজ্যের

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?