রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ০২:৪৩:০৪

কেন নারীদের বেশি মুড সুইং হয়?

কেন নারীদের বেশি মুড সুইং হয়?

লাইফস্টাইল ডেস্ক : মেজাজ হুট করেই বদলে যাওয়া, মন ভাল না খারাপ তাও বুঝতে না পারা, এই হাসিমুখ তো পরক্ষণেই রাগ এগুলো মনের একটা অসুখের লক্ষণ। যার নাম মুড সুইং।

এই মুড সুইং এ শিকার ব্যক্তি অনবরত বিপরীতধর্মী সব আবেগের মধ্য দিয়ে যেতে পারে। হঠাৎ মন ভাল থেকে একটু খারাপ, অনেক বেশি খারাপ, তীব্র হতাশা, আবার খুশি হয়ে যাওয়া এইসব ঘটতে পারে অল্প সময়ের মধ্যে।

মুড সুইং বেশি দেখা যায় নারীদের মধ্যে। বিশেষ করে পরিবর্তিত শারীরিক অবস্থায় যেমন মাসিক আর গর্ভাবস্থায় তাদের মুড সুইং অনেক বেশি হয়ে থাকে।

এসময় শরীরে হরমোনের তারতম্যে কারণে একজন নারী মানসিকভাবে অনেকটা বিপর্যস্ত থাকে। যার কারণে হালকা বা চরম মাত্রার মুড সুইং হতে পারে।

ঋতুচক্রের সময়টা অল্প হয় বলে এই সময়ের মুড সুইং দ্রুত কেটে যায়। কিন্তু গর্ভকালীন মুড সুইং দীর্ঘমেয়াদী হয় আর খুব প্রবল মাত্রায় ঘটতে পারে।

সন্তান জন্মদানের পরেও মানসিক অশান্তির রেশ থেকে যেতে পারে। যা মা ও শিশু দুইজনের জন্যই ভয়াবহ।

তাই বলে কেবল নারীরাই মুড সুইংয়ের শিকার হন না, মুড সুইং ঘটে পুরুষদেরও। টানা কিছু দিন ধরেই মনমেজাজ বদলে যাওয়া পুরুষদের মাঝেও খুব সাধারণ বিষয় হতে পারে।

কিন্তু সপ্তাহ পেরিয়ে গেছে, বা আরো বেশি সময় পার হয়েছে কিন্তু মেজাজ ঠিক হচ্ছে না তবে বিশেষজ্ঞদের মতামত বা কাউন্সেলিং প্রয়োজন।

তবে অনেক সময় আক্রান্ত ব্যক্তি নিজেকে ধ্বংস করার চিন্তাও করে। আর তাই নিয়মিত নিজের মানসিক স্বাস্থ্যের খেয়াল রাখা উচিত প্রতিটি মানুষেরই।

আজকের প্রশ্ন

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন ‘খালেদা জিয়ার শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে বিএনপির নেতারা মিথ্যাচার ও বিভ্রান্তি করছে। আপনিও কি তাই মনে করেন?