শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

শুক্রবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ০৯:৩৮:৪৩

সম্পর্ক নষ্ট হতে পারে টাকা-পয়সার কারণেও

সম্পর্ক নষ্ট হতে পারে টাকা-পয়সার কারণেও

লাইফস্টাইল ডেস্ক : প্রবল প্রেমের সম্পর্কটাও অনেক সময় টাকা-পয়সার কারণে নষ্ট হতে পারে। কর্নেল ইউনিভার্সিটির কর্নেল পপুলেশন সেন্টার কিছু বাস্তব দৃষ্টান্ত দিয়ে দেখিয়েছে, যে সব স্বামী-স্ত্রী মোটামুটি একইরকম অঙ্কের টাকা রোজগার করেন, তাঁদের সুখী হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। তাই খেয়াল রাখুন আপনাদের সম্পর্কের মাঝখানে যেন টাকাপয়সা বাধা হয়ে না দাঁড়ায়-

একটা কমন লক্ষ্য থাকা দরকার
আপনারা দু’জনে সমান রোজগার করুন বা না করুন, আপনাদের লক্ষ্যটা একরকম হওয়া দরকার। যেমন ধরা যাক, আপনি টাকা জমাতে চান পাঁচবছরের মধ্যে একটা নতুন বাড়ি কেনার জন্য আর আপনার স্বামী হয়তো চাইছেন নানা খাতে টাকাটা বিনিয়োগ করতে। আপনাদের দু’জনের কল্পনায় ভবিষ্যৎ সম্পর্কে ছবিটা একইরকম না হলে সমস্যা হতে পারে।

খরচের হাত
সঞ্চয়ের মতো খরচের ব্যাপারটাও একইরকম জরুরি। আপনার যদি পাইপয়সা জমানোর অভ্যেস থাকে আর আপনার স্বামী যে কোনও ছুতো পেলেই হাত খুলে খরচ করতে চান, তা হলে কিন্তু আপনাদের ঝামেলা অনিবার্য!
আরো পড়ুন:- সোশাল মিডিয়ার প্রভাব দাম্পত্যে?

চাবির দখল
না, ‘চাবি’ কথাটা অত আক্ষরিক অর্থে নেওয়ার দরকার নেই। কিন্তু মোদ্দা কথাটা হল, সংসারের আর্থিক দায়িত্ব যাঁর হাতে, তিনি একটু বেশি ক্ষমতাশালীই হন। কিন্তু সুখী সংসার গড়তে হলে আর্থিক দায়িত্ব সমান বণ্টন হওয়া জরুরি। সংসারের বড়ো খরচগুলোর সিদ্ধান্ত পুরুষরাই নেবেন, এমন মধ্যযুগীয় ধারণা থেকে বেরিয়ে আসুন। সাংসারিক খরচের দায়িত্ব সমানভাগে ভাগ করে নিন, দাম্পত্যে সুখ অটুট থাকবে।

ঋণের ফাঁদ
ক্রেডিট কার্ড, ইএমআইয়ের হাতছানি কাটিয়ে বেঁচে থাকা সত্যিই কঠিন। এখানেও অভ্যেসের একটা ব্যাপার রয়েছে। আপনার টাকা জমানোর অভ্যেস অথচ স্বামী ছোট ছোট ব্যাপারেও ইএমআইয়ের উপর নির্ভর করলে বড়ো ঝামেলা হওয়াটা স্রেফ সময়ের অপেক্ষা! এরকম ক্ষেত্রে স্বামীর সঙ্গে কথা বলুন, ঋণের ফাঁদ এড়িয়ে চলুন যে কোনও মূল্যে।

লুকোছাপা নয়
আপনি হয়তো কোনও ঝুঁকিপূর্ণ জায়গায় বিনিয়োগ করেছেন স্বামীকে না জানিয়ে। অথবা আপনার স্বামী বেমক্কা একটা বড়ো লোন নিয়ে বসে আছেন অথচ আপনি বিন্দুবিসর্গও জানেন না! এধরনের পরিস্থিতি এড়িয়ে চলাই ভালো। কারণ একসময় জানাজানি হবেই, তখন সামাল দিতে মুশকিলে পড়বেন। কাজেই যে কোনও বড়ো অর্থনৈতিক সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে পরস্পর আলোচনা করে নিন।

সূত্র : ফেমিনা

আজকের প্রশ্ন

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন ‘খালেদা জিয়ার শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে বিএনপির নেতারা মিথ্যাচার ও বিভ্রান্তি করছে। আপনিও কি তাই মনে করেন?