মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ২৫ জুন, ২০১৯, ০৪:৩২:২৪

খাওয়া-শারীরিক সম্পর্কের জন্য ডেটিং করেন অনেক নারী!

খাওয়া-শারীরিক সম্পর্কের জন্য ডেটিং করেন অনেক নারী!

লাইফস্টাইল ডেস্ক : ফ্রি’তে খাওয়া আর এর রাতের শারীরিক চাহিদা মেটানোর জন্য ডেটিং করেন ভারতের অনেক নারী! এমনটাই বলছে ভারতীয় গণমাধ্যম এই সময়। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ডেটিং সাইটের এখন খুবই রমরমা। প্রেম থেকে বিয়ে পুরোটাই এখন অনলাইন। শাকসবজি জামাকাপড় তো সেই কবেই অনলাইনে এসেছে। এবার পারলে অর্ন্তবাসও….যাই হোক এবার আসল কথায় আসা যাক।

সোশ্যাল মিডিয়া থেকে প্রেম নতুন নয়। অনেকেই এসব প্রেমে পড়ে ঠকেছেন। অনেকেই আবার দিব্য উতরে গিয়েছেন। প্রথম ডেটে গিয়ে গিয়েছেন। লাঞ্চ কিংবা ডিনারের প্ল্যান। ওয়েটার আসামাত্র ছেলেরা কিন্তু মেয়েদের দিকেই মেনুকার্ড এগিয়ে দেন এবং তাঁদেরই পছন্দে প্রাধান্য দেন। সে যতই নিজের অপছন্দ হোক না কেন। গুছিয়ে গদগদ গল্প করে খাওয়া দাওয়া পর্ব সারা। এবার যখন বিল আসে তখন খুব কম মেয়েই বলে থাক আমি দিচ্ছি কিংবা শেয়ার করছি। আবার অনেক ছেলের গায়ে লাগে, ডেটে এসে মেয়েরা টাকা দেবে।

সেই পুরুষত্ব বোধ থেকেই অনেকে মেয়েদের থেকে টাকা নিতে অস্বীকার করেন। টাকা দিতে না হলে অনেক ময়েই ভাবেন যাই হোক, আমার পয়সা বেঁচে গেল। ফ্রি’তে খাওয়া গেল।

সম্প্রতি গবেষণায় এমনই উঠে এসেছে। মেয়েরা নাকি ছেলেদের পয়সায় পেট ভরাবে বলেই ডেটে যেতে পছন্দ করেন। তা বলে ভাববেন না সব মেয়েই এরকম। ২৩ থেকে ৩৩ শতাংশ মেয়ে এই রকম মানসিকতার হন এবং এরা সকলেই কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়া থেকেই বয়ফ্রেন্ড খুঁজেন ও দফায় দফায় তা পরিবর্তন করেন।

ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সাইকোলজির গবেষকরা এই ধরনের মেয়েদের বলছেন ফুডি কল। বলা হয়েছে, অনেক মেয়েই আছেন এই ফ্রি খাওয়াদাওয়ার পর কিঞ্চিৎ খেলাধুলো করতে চান এবং সেখানে অভিযোগ আরও মারাত্মক। একরাত কাটানো থেকে ভুয়ো অর্গ্যাজম সবেতেই মেয়েরা জড়াচ্ছেন। এই মেয়েরা এটাও জানিয়েছেন খাওয়া এবং এক রাতের যৌন সুখের জন্য এরা যে কোনও মানুষের সঙ্গে যে কোনও রকম সম্পর্কে যেতে রাজি।

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?