রবিবার, ২৭ মে ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারী, ২০১৮, ০৯:৩৬:৪৩

চলতি বছর হজযাত্রী ১ লক্ষ ২৭ হাজার ১৯৮ জন

চলতি বছর হজযাত্রী ১ লক্ষ ২৭ হাজার ১৯৮ জন

ঢাকা : চেষ্টা করেও বাড়ানো যায়নি হজযাত্রীর কোটা। গতবারের মত এবারও বাংলাদেশের হজযাত্রীর কোটা নির্ধারণ করা হয়েছে। ফলে ২০১৮ সালে বাংলাদেশ থেকে পবিত্র হজ পালনে যাবেন মোট ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজযাত্রী।

ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মোহাম্মদ মতিউর রহমানের নেতৃত্বাধীন প্রতিনিধি দলের সঙ্গে সৌদি সরকারের এবারের হজ চুক্তিতে এই সিদ্ধান্ত হয়।

সৌদি আরবের স্থানীয় সময় ১৪ জানুয়ারি বাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যে (১৪৩৯ হিজরি সন) হজ সংক্রান্ত চুক্তিটি সম্পাদিত হয়। এসময় বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব এস এম গোলাম ফারুক, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. আনিছুর রহমান, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব (হজ) মো. হাফিজ উদ্দিন, ধর্ম মন্ত্রীর ব্যক্তিগত কর্মকর্তা মো. আবু সাইদ, সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ্, কনসাল জেনারেল, জেদ্দা এফ এম বোরহান উদ্দিন, বাংলাদেশ হজ অফিস, জেদ্দার কাউন্সেলর (হজ) মো. মাকসুদুর রহমান ও কনসাল (হজ) মো. আবুল হাসান উপস্থিত ছিলেন।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মোহাম্মদ আনোয়ার হোসাইন মঙ্গলবার হজচুক্তির সত্যতা নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের নেতৃত্বে সৌদি সফররত প্রতিনিধি দলের সঙ্গে সৌদি সরকারের হজ চুক্তি হয়েছে। গতবারের মতই এবারও বাংলাদেশের হজযাত্রীর কোটা মোট ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন নির্ধারণ করা হয়েছে। আরো বেশ কিছু চুক্তি রয়েছে। সেগুলো শেষ হলে প্রতিনিধি দল আগামী ২০ কিংবা ২১ জানুয়ারি দেশে ফিরে আসবে। দেশে ফেরার পর সংবাদ সম্মেলন করে হজ চুক্তি সংক্রান্ত বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য জানিয়ে দেওয়া হবে।

জানা গেছে, বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে ২০১৮ সালে অতিরিক্ত ১০ হাজার হজযাত্রীর কোটা বাড়ানোর জোরালো আবেদন জানানো হয়, কিন্তু সৌদি সরকার তাতে রাজি হয়নি।

চলতি বছর সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৬ হাজার ৬২৫ জন ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ২ লাখ ২১ হাজার ২৭৪ জন প্রাক-নিবন্ধন করেছেন। গত বছর (২০১৭) সরকারি ব্যবস্থাপনায় ১০ হাজার ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ১ লাখ ১৭ হাজার ১৯৮ জনের কোটা নির্ধারিত ছিল।

সৌদি সরকারের হজ ও ওমরাহ মন্ত্রী ড. সালেহ মোহাম্মদ বিন তাহের বেনতেনের আমন্ত্রণে ধর্মমন্ত্রীর নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের বাংলাদেশ প্রতিনিধি দল হজ চুক্তি-২০১৮ সম্পাদনের লক্ষ্যে ১১ জানুয়ারি সৌদি আরব যান। ২০/২১ জানুয়ারি তাদের দেশে আসার কথা রয়েছে।

আজকের প্রশ্ন

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন ‘খালেদা জিয়ার শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে বিএনপির নেতারা মিথ্যাচার ও বিভ্রান্তি করছে। আপনিও কি তাই মনে করেন?