শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮, ০৮:৫৪:১৭

ব্যাটারির আয়ু বাড়াতে জেনে নিন

ব্যাটারির আয়ু বাড়াতে জেনে নিন

ঢাকা : ঘনঘন চার্জ দিলে ব্যাটারির আয়ু দ্রুত কমে যায়! তাই ফোন ও স্মার্টফোনসহ অন্যান্য মোবাইল ডিভাইস ব্যবহারকারীরা তাদের ডিভাইসটির চার্জ একেবারে ফুরিয়ে যাওয়াার পরই এতে রিচার্জ করার কথা ভাবেন। কিন্তু এটি আমাদের ভুল। স্মার্টফোন ব্যাটারি প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান ক্যাডেক্স সম্প্রতি একথা জানিয়েছে। কোম্পানিটি তাদের ওয়েবসাইটে জানায়, লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি কীভাবে প্রেসারের শিকার হয়। এতে বলা হয়, অতিরিক্ত পরিশ্রমে মানুষ যেমন ক্লান্ত হয়ে যায় ব্যাটারির ক্ষেত্রেও তেমনটি ঘটে। তাই ব্যাটারির পারফরম্যান্স ধরে রাখতে নিচের চারটি অভ্যাস জরুরি :

ব্যাটারি ঠাণ্ডা রাখুন : সবসময় স্মার্টফোনের ব্যাটারি ঠাণ্ডা রাখার চেষ্টা করুন। প্রযুক্তি জায়ান্ট অ্যাপল'র মতে, আইফোনের কিছু কিছু কেস ব্যাটারি অতিরিক্ত গরম করে দেয়।  সংস্থার ম্যানুয়ালে স্পষ্ট বলা হয়েছে, যদি দেখেন যে চার্জ দেওয়ার সময় ডিভাইস গরম হয়ে যাচ্ছে; তাহলে সবার আগে তা কেস থেকে বের করে ফেলুন। যদি তীব্র রোদের নীচে থাকেন, তাহলে ফোনটি ঢেকে রাখার ব্যবস্থা করুন।

ফুল চার্জ হয়ে গেলে প্লাগের সঙ্গে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করুন : ব্যাটারি ইউনিভার্সিটির মতে, সারারাত চার্জ করার পরেও প্লাগ লাগিয়ে রাখলে ব্যাটারির আয়ু দ্রুত কমে যায়। লক্ষণীয় যে, একবার ১০০% চার্জ হয়ে গেলে ব্যাটারি প্লাগে লাগানো অবস্থায় ফের চার্জ হারাতে থাকে। সেইসঙ্গে ব্যাটারির পরিশ্রমও বাড়ে। ফলে ব্যাটারির ভেতরের রাসায়নিক উপাদান ক্ষয়ে যায়।

শতভাগ চার্জ করবেন না : খুব দরকার না হলে ব্যাটারি ১০০ ভাগ চার্জ করবেন না। ব্যাটারি ইউনিভার্সিটির মতে, লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি সম্পূর্ণ চার্জ দেওয়ার দরকার পড়ে না। পুরোপুরি চার্জ ছাড়াই এই ব্যাটারি পূর্ণ কর্মক্ষম থাকে। এভাবেই তা তৈরি করা হয়েছে। তা না হলেব্যাটারি দ্রুত ক্ষয়ে যায়।

দিনে দুই থেকে তিন বার চার্জ করুন : প্রয়োজনে দিনে দুই থেকে তিন বার চার্জ দেওয়ার অভ্যাস করুন। ব্যাটারি ১০ শতাংশ চার্জ হারালে আবার চার্জ করতে পারলে সবচেয়ে ভালো হয়। কিন্তু বাস্তবে তা সম্ভব নাও হতে পারে। তাই যখন সুযোগ পাবেন, তখনই ফোন চার্জ করুন। স্মার্টফোনের বেশ কিছু পরিষেবা আছে যা ব্যাটারির আয়ু ফুরিয়ে দেয়। তাই বেশি বেশি চার্জ করলে তা থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, বর্তমানে দেশের মানুষের ক্রয়ক্ষমতা নাগালের বাইরে চলে গেছে। আপনি কি একমত?