বুধবার, ০৮ এপ্রিল ,২০২০

Bangla Version
  
SHARE

শনিবার, ০৭ মার্চ, ২০২০, ০৬:৪৪:০৫

ফাইভজি ফ্ল্যাগশিপ ফাইন্ড এক্স২ সিরিজ আনল অপো

ফাইভজি ফ্ল্যাগশিপ ফাইন্ড এক্স২ সিরিজ আনল অপো

ঢাকা : অত্যাধুনিক সব প্রযুক্তি নিয়ে ফাইভজি ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন ফাইন্ড এক্স২ সিরিজ উন্মোচন করল বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড অপো। এ সিরিজের আওতায় ফাইন্ড এক্স২, ফাইন্ড এক্স২ প্রো এবং ফাইন্ড এক্স২ প্রো ল্যাম্বরগিনি সংস্করণের তিনটি ফোন বাজারে আনবে প্রতিষ্ঠানটি। এর পাশাপাশি ফাইভজি প্রযুক্তির একটি সিপিই ডিভাইসও বাজারে আনার ঘোষণা দিয়েছে অপো।

নতুন ফ্ল্যাগশিপ ফাইন্ড এক্স২ সিরিজের স্মার্টফোনগুলো ব্যবহারবারীদের দেবে প্রিমিয়াম এক্সপেরিয়েন্স। এ সিরিজের স্মার্টফোনগুলোতে থাকছে ৩কে রেজ্যুলেশনের কিউএইচডি প্লাস ডিসপ্লে যাতে থাকছে ১২০ হার্জ আল্ট্রা হাই রিপ্রেশ রেট যা নিশ্চিত করবে অসাধারণ অভিজ্ঞতা। স্মার্টফোনটিতে আছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন মোবাইল প্ল্যাটফর্ম। ফাইন্ড এক্স২ সিরিজ ডুয়েল মোড ফাইভজি সমর্থন করে। এ সিরিজের স্মার্টফোনগুলোতে থাকবে ৬৫ওয়াটের সুপার ভোক ২.০ চার্জিং প্রযুক্তি।

নতুন এই ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোনটিতে যুক্ত করা হয়েছে অত্যাধুনিক আল্ট্রা ভিশন ক্যামেরা সিস্টেম। এতে থাকছে ৪৮ মেগাপিক্সেল ওয়াইড অ্যাঙ্গেল লেন্স, ৪৮ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা ওয়াইড অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা এবং ১৩ মেগাপিক্সেল পেরিস্কোপ টেলিফটো লেন্সের সমন্বয়। ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে কাস্টোমাইজড আইএমএক্স৬৮৯ সেন্সর যাতে থাকছে অল পিক্সেল অমনি-ডিরেকশনাল পিডিএএফ প্রযুক্তি যার মাধ্যমে শতভাগ পর্যন্ত পিক্সেল ফোকাসিং করা যাবে। এছাড়া এটি প্রথম স্মার্টফোন যা ১২ বিটের ফটো ক্যাপচার সমর্থনন করে।

ফাইন্ড এক্স সিরিজের সাথে ল্যাম্বরগিনির যে কোলাবোরেশন ছিল, তার ধারাবাহিকতা থাকছে ফাইন্ড এক্স২ সিরিজেও। সলিড এবং স্মুথ হ্যান্ড ফিল প্রদানে অপো ফাইন্ড এক্স২ প্রো ল্যাম্বরগিনি সংস্করণে থার্মাল অ্যাবসরপশন গ্লাস প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে।

স্মার্টওয়াচের পাশাপাশি অন্যান্য ডিভাইস ও প্রযুক্তিতেও সমান পদচারনা রয়েছে অপোর। এরই অংশ হিসেবে ফাইন্ড এক্স২ সিরিজের পাশাপাশি একটি ফাইভজি সিপিই ডিভাইস ও অপো স্মার্টওয়াচও বাজারে আনার ঘোষণা দিয়েছে অপো।

প্রথমবারের মতো স্মার্টওয়াচ নিয়ে এসেছে অপো। এতে ব্যবহার করা হয়েছে থ্রিডি ফ্লেক্সিবল হাইপাবলয়েড ডিসপ্লে যা সাধারণত ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোনে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। বিল্ট-ইন সেলুলার কানেক্টিভিটি এবং হেলথ ট্র্যাকার সমৃদ্ধ স্মার্টওয়াচটিতে আছে অপোর নিজস্ব ডুয়েল চিপ এনডিউরেন্স সিস্টেম এবং ওয়াচ ভোক ফ্ল্যাশ চার্জিং প্রযুক্তি। এর মাধ্যমে মাত্র ৭৫ মিনিটে ফুল চার্জ এবং ১৫ মিনিটে ৪৬% চার্জ দেওয়া যাবে যা দিয়ে স্মার্টওয়াচটি ব্যবহার করা যাবে ১৮ ঘণ্টা পর্যন্ত।

অপো ফাইভজি সিপিই (কাস্টমার প্রিমিসেস ইকুইপমেন্ট) অমনি ডিভাইসে থাকছে স্ন্যাপড্রাগন এক্স৫৫ মডেম এবং অপোর নিজস্ব প্রযুক্তির ও-রিজার্ভ ফাইভজি স্মার্ট এন্টেনা এবং ও-মোশন ৩৬০ ডিগ্রী ফাইভজি এন্টেনা যার মাধ্যমে ফাইভজি নেটওয়ার্কে ডিভাইসটিতে ৭.৫ জিবিপিএস পর্যন্ত গতি পাওয়া যাবে। প্রাথমিকভাবে ডিভাইসটি ওয়েস্টার্ন ইউরোপ এবং এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের বাজারে পাওয়য়া যাবে এবং পরবর্তীতে মিলবে চীনের বাজারে।

অপোঃ
বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড অপো এর ক্রেতাদের শিল্প ও উদ্ভাবনী প্রযুক্তির মিশেলে তৈরি পণ্য সরবরাহের জন্যে একটি নিবেদিত প্রতিষ্ঠান। তারুণ্য, নতুন ট্রেন্ড/প্রবণতা সৃষ্টি আর সৌন্দর্যের প্রতীক একটি ব্র্যান্ড হিসেবে ডিজিটাল জীবনযাত্রার আরো অসাধারন অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করতে অপো বরাবরই তার গ্রাহকদের জন্যে নিয়ে আসে সর্বোত্তম সেবা দিতে সক্ষম ইন্টারনেট অপটিমাইজড প্রোডাক্ট। এই ব্র্যান্ডের হাত ধরেই সূচনা হয় ‘সেলফি বিউটিফিকেশন’ এর এক নতুন যুগ। স্মার্টফোন জগতে নিজেদের এক ভিন্ন ভাবমূর্তি প্রতিষ্ঠায় ‘অপো’ নিয়ে এসেছে ‘মোটোরাইজড রোটেটিং’ ক্যামেরা, আল্ট্রা এইচডি ফিচার, ৫এক্স ডুয়াল ক্যামেরা জুম প্রযুক্তি। ২০১৬ সালে ‘অপো’র সেলফি-বিশেষজ্ঞ খ্যাত ‘এফ’ সিরিজ বাজারে আসার পরপরই স্মার্টফোন জগতে সেলফি তোলার প্রবণতা সৃষ্টিতে অগ্রগ্রামী ভূমিকা রাখে অপো। ২০১৭ সালে আইডিসি এর র্যাং কিং অনুসারে অপো বিশ্বের চতুর্থ সেরা স্মার্টফোণ ব্র্যান্ড হিসেবে নির্বাচিত হয়। বর্তমানে ৪০টি দেশে ২০ কোটির অধিক গ্রাহক আর ৪,০০,০০০ এর অধিক স্টোর আর বিশ্বজুড়ে ৪টি রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টারের মিশেলে বিশ্বজুড়েই তরুণদেরকে স্মার্টফোন ফটোগ্রাফিতে সর্বোৎকৃষ্ট অভিজ্ঞতা দিয়ে চলেছে অপো।

আজকের প্রশ্ন

বিএনপির নেতারা আইন না বুঝেই মন্তব্য করে আইনমন্ত্রীর এমন বক্তব্যে আপনি কি একমত?