শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ,২০২০

Bangla Version
  
SHARE

শনিবার, ২৪ আগস্ট, ২০১৯, ০১:৫০:১৬

১০ বছর পেরিয়েও টিআরপি সেরা

১০ বছর পেরিয়েও টিআরপি সেরা

বিনোদন ডেস্ক : দশ বছরে কত কী পাল্টে গিয়েছে। যে দর্শক সেদিন কলেজ পাশ করে বেরিয়েছিলেন, তিনি হয়তো আজ তার কেরিয়ারের মধ্যগগনে। আবার যিনি অফিস থেকে ফিরে রোজ স্টার প্লাস দেখতেন, তিনি হয়তো এখন অবসর নিয়েছেন। কিন্তু ধারাবাহিক শেষ হয়নি। ‘ইয়ে রিশতা কেয়া কহলতা হ্যায়’ এখনো চলছে। শুধু তাই নয়, ১০ বছর পরেও টিআরপি তালিকায় সেরা স্থানটি দখল করতে সক্ষম হয়েছে।

উদয়পুরের সিংহানিয়া পরিবারে বিয়ে হয়ে আসে মাহেশ্বরী পরিবারের মেয়ে অক্ষরা। একান্নবর্তী শ্বশুরবাড়িতে সবার প্রিয় বউ হয়ে ওঠার গল্প দিয়ে শুরু হয়েছিল ধারাবাহিক। অক্ষরা ও নৈতিক এক সময়ে আদর্শ স্বামী-স্ত্রীর পোস্টার দম্পতি হয়ে উঠেছিলেন। নিঃসন্দেহে হিনা খান ও করণ মেহরার জুটি হিন্দি টেলিভিশনের সেরা জুটিগুলির অন্যতম।

কিন্তু দশ বছর পরে আর ধারাবাহিকে নেই অক্ষরা-নৈতিক। তাদের মেয়ে নায়রার জীবন নিয়েই ছুটে চলেছে গল্পের গাড়ি, যে চরিত্রে সত্যিই নিজেকে প্রমাণ করেছেন শিবাঙ্গী জোশি। শিবাঙ্গী ও মোহসিন খানের জুটি হিনা-করণের জুটির চেয়ে কম সফল নয়। দর্শকের মনে পুরোনো জুটির রেশ কাটিয়ে নতুন জুটির প্রতি আনুগত্য তৈরি করা সহজ ছিল না। গত তিন বছরে কিন্তু সেই কঠিন কাজটি করে ফেলেছেন শিবাঙ্গী-মোহসিন।

তাই এখনো টিআরপি তালিকায় সেরা স্থানটি দখল করতে সক্ষম ‘ইয়ে রিশতা’। বলিউড লাইফের সাম্প্রতিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, এই সপ্তাহের হিন্দি টেলিভিশনের টিআরপি অনুযায়ী, সর্বোচ্চ স্থানে রয়েছে ‘ইয়ে রিশতা কেয়া কেহলাতা হ্যায়’।

ধারাবাহিকের চিত্রনাট্য টিম ঠিক জানে, কখন কেমন ক্রাইসিস তৈরি করে গল্পের প্রতি দর্শককে চুম্বকের মতো টেনে রাখতে হয়। এই মুহূর্তে যেমন কার্তিক ও নায়রার জীবনে এক ধরনের ঝড় উঠেছে বলা যায়। ছেলে কায়রভের সার্জারি। কী হবে সার্জারির পরিণাম, সেই ভাবনায় অস্থির দুই চরিত্র। তাই দর্শকের চোখ আরো বেশি করে ধারাবাহিকের দিকে।

এমনকী ধারাবাহিকের গল্পের এই বিশেষ পর্যায়টির জন্য হ্যাশট্যাগও তৈরি হয়ে গিয়েছে। কার্তিক ও নায়রাকে ফ্যানেরা ভালোবেসে বলেন কায়রা। সম্প্রতি কায়রভের সার্জারি প্রসঙ্গে তৈরি হয়েছে নতুন হ্যাশট্যাগ- স্টে স্ট্রং কায়রা। ১০ বছর পরেও যখন কোনো ধারাবাহিক টিআরপি সেরা হয়, তখন নিঃসন্দেহে নির্মাতাদের একটা বড় প্রশংসা প্রাপ্য। সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

আজকের প্রশ্ন

ঢাকার সিটি নির্বাচনে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট হলে জনগণের রায় প্রতিফলিত হবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আপনিও কি তাই মনে করেন?