বুধবার, ২২ জানুয়ারী ,২০২০

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ০৭ অক্টোবর, ২০১৯, ০৫:৫২:৪৩

আরমানকে নিয়ে মুখ খুললেন নায়িকা শিরিন শিলা

আরমানকে নিয়ে মুখ খুললেন নায়িকা শিরিন শিলা

ঢাকা : ঢাকা দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সহ-সভাপতি এনামুল হক আরমান। বাড়ি নোয়াখালী। আরমানের উত্থান ঘটে রাজধানীর বায়তুল মোকাররম এলাকা থেকে। এক সময় সিঙ্গাপুর থেকে ঢাকায় লাগেজ আনার ব্যবসা করতেন তিনি। সম্রাট ঢাকা দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি হলে সহ-সভাপতি করা হয় আরমানকে। সম্রাটের ক্যাসিনোর ক্যাশিয়ার হিসেবে পরিচিত আরমান।

মূলত তার মাধ্যমেই ক্যাসিনোজগতে প্রবেশ ঘটে সম্রাটের। ক্যাসিনো কারবারে আরমানকে গুরু বলে মানতেন সম্রাট নিজেই। যুবলীগের একাধিক নেতা জানিয়েছেন, আরমান নিজের টাকা দিয়ে প্রথমে ক্যাসিনোর সরঞ্জাম কিনে আনেন ঢাকায়। এছাড়া আরমান চলচ্চিত্র প্রযোজক হিসেবেও আত্মপ্রকাশ করেন। সম্প্রতি দুটি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে তিনি কয়েক কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছেন।

আরমানের গ্রেফতারের পর থেকেই মিডিয়া পাড়ায় আলোচনা শুরু হয়। তার গ্রেফতারে চিত্রনায়িকা শিরিন শিলার নাম উঠে আসে। বলা হয় তাদের মধ্যে বেশ কয়েকবার দেখা ও কথাও হয়েছে। এমন খবরের সত্যতা জানতে বিডি২৪লাইভ থেকে যোগাযোগ করা হয় নায়িকা শিরিন শিলার সাথে। এসময় তিনি প্রতিবেদকের সাথে একান্তে কথা বলেন।

শিরিন শিলা বলেন, আমি আরমান ভাইকে চিনি একজন প্রযোজক হিসেবে। এর বাহিরে ওনার সাথে আমার কোন যোগাযোগ নেই। ওনার একটি সিনেমায় আমাকে নেয়ার কথা ছিল আমি ওই মূহুর্তে দেশের বাহিরে থাকার কারণে অন্য এক নায়িকা নেয়া হয়েছে। এরপর আমি দেশে এসে কয়েকবার যোগাযোগ করেছি।

শিরিন শিলা বলেন, একজন প্রযোজকের সাথে নায়িকার যোগাযোগ থাকবে এটাই স্বাভাবিক কিন্তু ওনি টাকা কোথায় পায়, তার ইনকামের উৎস কি এটা আমার জানার বিষয় না। আমি শুনেছি ওনি বড় বাজেট নিয়ে সিনেমা বানাতে চেয়েছেন ও বানিয়েছেন। মিতু নামের নতুন নায়িকা নিয়ে তিনি কাজ করছেন একটুকু জানি।

গত মাসে (সেপ্টেম্বর) আমার সাথে আরমান ভায়ের কয়েকবার কথা হয়েছিল সিনেমার বিষয়ে। আমি তখন দেশের বাহিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। আমি দেশের বাহির থেকে এসে আমার বিভিন্ন ব্যস্ততার কারণে আর ওনার সাথে যোগাযোগ করা হয়নি।

শিরিন শিলা বলেন, আমি গণমাধ্যমের প্রতিনিধিদের বলবো আপনারা আমার সাথে যোগাযোগ না করে বিভ্রান্তি মূলক কোন সংবাদ প্রকাশ করবেন না। সত্য মিথ্যা যে খবরই হোক আমার সাথে যোগাযোগ করে করবেন আশা করি।

আজকের প্রশ্ন

ঢাকার সিটি নির্বাচনে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট হলে জনগণের রায় প্রতিফলিত হবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আপনিও কি তাই মনে করেন?