বুধবার, ২০ নভেম্বর ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৯, ০২:৪৬:২০

স্মৃতি কাতর মাধবন-দিয়া!

স্মৃতি কাতর মাধবন-দিয়া!

বিনোদন ডেস্ক : আজ থেকে ১৮ বছর আগে ভারতীয় প্রেম আর খুনসুটির জগতে সাড়া ফেলে দিয়েছিল একটি সিনেমা! ম্যাডি এবং রীনার প্রেমের সেই গল্প এখনো সব প্রজন্মের মানুষের কাছেই ভীষণই পছন্দের। ম্যাডি ও রীনার চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন আর মাধবন এবং দিয়া মির্জা। সিনেমার নাম ‘রেহনা হ্যায় তেরে দিল মে’।

সিনেমার ১৮ বছর পূর্তিতে সিনেমার একটি জিআইএফ শেয়ার করেছেন দিয়া মির্জা। তার অনুরাগীদের থেকে এই সিনেমার বিষয়ে তাদের প্রিয় স্মৃতিগুলিও শেয়ার করতে বলেছেন দিয়া। “রেহনা হ্যায় তেরে দিল মে- চিরকাল #আরএইচটিডিএম-এর ১৮ বছর! এই প্রেমের গল্পের সঙ্গে যুক্ত আপনার সেরা মুহূর্তগুলি শেয়ার করুন,” ট্যুইট করেছেন দিয়া।

তবে মাধবনের উত্তর সবার মন জয় করেছে! “আমার কাছে যেন ঠিক গতকালের মতো স্মৃতি এটা… বিশেষত যেহেতু তুমি একেবারে একই দেখতে রয়েছো!” টুইট করেন মাধবন। যার উত্তরে ফের দিয়া তিনটি হার্ট ইমোটিকন সহ ‘ম্যাড্ডিইইই’ লিখেছেন।

২০০১ সালে প্রথম মুক্তি পেয়েই মাধবন, দিয়া মির্জা, সাইফ আলি খান অভিনীত ‘রেহনা হ্যায় তেরে দিল মে’ সফল হয়। আর বছরের পর বছর ধরে এর জনপ্রিয়তা ক্রমেই বেড়েছে। ‘রেহনা হ্যায় তেরে দিল মে’ সিনেমার গান এই সিনেমার অন্যতম সম্পদ। সিনেমার সুরকার ছিলেন হ্যারিস জয়রাজ। ‘রেহনা হ্যায় তেরে দিল মে’ আসলে তামিল সিনেমা ‘মিন্নালে’র হিন্দি রিমেক। তামিল সিনেমাতেও অভিনয় করেছিলেন মাধবন। দু’টি সিনেমাই পরিচালনা করেছিলেন সেই সময়ের নবাগত পরিচালক গৌতম মেনন।

রেহনা হ্যায় তেরে দিল মে সিনেমাটি দিয়েই বলিউডে অভিষেক হয় দিয়া মির্জা এবং আর মাধবনের। এরপরে দম, পরিণীতা, লাগে রহো মুন্না ভাই এবং কোই মেরে দিল মে হ্যায় এর মতো একের পর এক সিনেমাতে অভিনয় করেন দিয়া মির্জা। অন্যদিকে মাধবনও বলিউড চলচ্চিত্র শিল্প জগতের এক অন্যতম নাম হয়ে ওঠেন এবং আলাইপেয়ুথে এবং এন্নভালের মতো বিখ্যাত তামিল সিনেমাতেও কাজ করেন তিনি।

আর মাধবনকে শেষ দেখা গিয়েছে বলিউডের সিনেমা ‘জিরো’তে। আগামীতে তার ‘রকেট্রি: দ্য নাম্বি এফেক্ট’ সিনেমাটি মুক্তির অপেক্ষায়। সূত্র: এনডিটিভি

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?