সোমবার, ২০ নভেম্বর ,২০১৭

Bangla Version
  
SHARE

রবিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৭, ০১:২৫:১৯

গুজরাট নির্বাচনের আগেই কংগ্রেস সভাপতি হচ্ছেন রাহুল

গুজরাট নির্বাচনের আগেই কংগ্রেস সভাপতি হচ্ছেন রাহুল

ঢাকা: আগামী মাসের ৯ তারিখে গুজরাট রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের আগেই ভারতীয় কংগ্রেস সভাপতির দায়িত্বভার গ্রহন করতে পারেন রাহুল গান্ধী। সোমবার এ বিষয়ে এক বৈঠকে বসবে দলের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী পরিষদ ‘কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটি’। তবে এই মিটিং একটি নিয়মরক্ষা মাত্র। খবর- এনডিটিভি’র।

গত ১৭ বছর ধরে টানা সভাপতির দায়িত্ব পালন করা সোনিয়া গান্ধী সোমবার সকালের এই বৈঠকে সভাপতিত্ব করবেন; সভাপতি হিসেবে এটাই তার শেষ সভা হতে যাচ্ছে বলে ধারণা দিয়েছে এনডিটিভি।

রুদ্ধদ্বার এ বৈঠকেই ওয়ার্কিং কমিটির ২৫ সদস্য দলপ্রধান নির্বাচনের তারিখ ঠিক করবেন।

ভারতীয় নির্বাচন কমিশনের বেঁধে দেয়া অতিরিক্ত সময় অনুযায়ী ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যেই প্রেসিডেন্ট পদের জন্য সাংগঠনিক নির্বাচন সম্পন্ন করতে হবে কংগ্রেসকে।

শনিবার কংগ্রেস নেতা জনার্দান দিভেদি সাংবাদিকদের জানান, ‘যদি মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন পর্যন্ত অন্য কোনো প্রার্থী না থাকে তবে রাহুলই হবেন দলের সভাপতি।’ এখন পর্যন্ত অন্য কেউই প্রতিদ্বন্দীতা করছেন না বলেও জানান তিনি।

অর্থাৎ, খুব শীঘ্রই (১ ডিসেম্বরের মধ্যে) নতুন সভাপতি পেতে যাচ্ছে ভারতীয় কংগ্রেস।

‘খুব শীঘ্রই রাহুলের পদোন্নতি ঘটছে,’ গত মাসে ভারতীয় গণমাধ্যমকে এমনটাই জানিয়েছিলেন সোনিয়া গান্ধী।

৭০ বছর বয়সী সোনিয়া ১৯৯৮ সাল থেকে কংগ্রেসের সভাপতি  এবং ইতোমধ্যে দলটির ইতিহাসে সর্বোচ্চ সময় ধরে থাকা দলটির সভাপতি। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে তার শারীরিক অবস্থার কিছুটা অবনতি হয়েছে। সে কারণেই তিনি দলের ভার তুলে দিতে চাইছেন রাহুলের হাতে। একাধিকবার চিকিৎসার জন্য যুক্তরাষ্ট্রেও গিয়েছেন সোনিয়া।

প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালে ভারতীয় কংগ্রেসের ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে উন্নীত হন রাহুল গান্ধী। সেই থেকে দলের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পদে আসীন তিনি। গত বছরের নভেম্বরে দলের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী পরিষদ তার পদোন্নতির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়।

আজকের প্রশ্ন

কিছু সহিংসতা ও অনিয়ম হলেও সামগ্রিকভাবে ইউপি নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে—সিইসির এই বক্তব্যের সঙ্গে আপনি একমত?