মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

শুক্রবার, ৩১ মে, ২০১৯, ০৩:১৫:২৭

হঠাৎ তিন মুসলিম দেশের ঘনিষ্ঠ বন্ধুত্ব: মুসলিম বিশ্বের নতুন সম্ভাবনার আভাস ?

হঠাৎ তিন মুসলিম দেশের ঘনিষ্ঠ বন্ধুত্ব: মুসলিম বিশ্বের নতুন সম্ভাবনার আভাস ?

তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাওলুদ চাভুসওগ্লু বলেছেন, পাকিস্তান-মালয়েশিয়া তুরস্কের গুরুত্বপূর্ণ বন্ধু। বুধবার (২৯ মে) জেদ্দায় ওআইসির পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সম্মেলনে পাকিস্তানের মন্ত্রী শাহ্ মাহমুদ কুরাইশী ও মালয়েশিয়ার মন্ত্রী দাতো সাইফুদ্দিন বিন আব্দুল্লাহ’র সাথে সাক্ষাতের পর তুর্কী পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

তুর্কী পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, মুসলিম দেশগুলোতে অর্থনৈতিক সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিলে নতুন করে সম্ভাবনা তৈরি হবে। একসাথে কাজ করলে ভালো ফলাফল আশা করা যায়। তিনি বলেন, পাকিস্তানকে উচ্চস্তরের সহযোগিতা করতে আমরা বৈঠক করবো। আফগান শান্তি প্রক্রিয়াতে ইসলামাবাদকে এগিয়ে আসতে তুরস্ক অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে।

ফিলিস্তিনের জেরুজালেমের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়ার অধিকার আমেরিকার নেই!

জেরুজালেম আল-কুদস ফিলিস্তিনি জাতির সম্পদ। কাজেই এ ব্যাপারে আমেরিকা বা ইহুদিবাদী ইসরায়েল সিদ্ধান্ত নিতে পারবে না।ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ এ কথা বলেছেন। বুধবার নিজের অফিসিয়াল টুইটার পেজে প্রকাশিত এক পোস্টে এ মন্তব্য করেন তিনি ।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ জারিফ বলেন, আল-কুদস (জেরুজালেম) আমেরিকার কোনো বিষয় নয় যে সে দিয়ে দেবে এবং ইসরায়েলেরও কোনো বিষয় নয় যে, সে নিয়ে নেবে।

অথবা এই নগরী কোনো পণ্য নয় যে কেউ তা বেচাকেনা করবে। এটি ফিলিস্তিনিদের উত্তরাধিকার এবং তাদেরই থাকবে। বুধবার সন্ধ্যায় তেহরানে নিযুক্ত মুসলিম দেশগুলোর রাষ্ট্রদূতদের সম্মানে এক ইফতার মাহফিলের আয়োজন করেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। সেখানে তিনি বলেন, আল-কুদস হচ্ছে মুসলমানদের প্রথম কেবলা এবং তাদের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতীক।

মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ মুসলিম বিশ্বের বর্তমান পরিস্থিতিকে ‘অত্যন্ত বেদনাদায়ক’ হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, এর চেয়ে কষ্টদায়ক আর কিছু হতে পারে না যে, আমেরিকা ও ইসরায়েল মিলে আল-কুদসের ভবিষ্যত নির্ধারণের যে লজ্জাজনক পরিকল্পনা তৈরি করেছে তার প্রতি সমর্থন দিচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যেরই কিছু আরব দেশ।

উল্লেখ্য, ফিলিস্তিনি জনগণের অধিকার চিরতরে নির্মূল করে দেয়ার লক্ষ্যে আমেরিকা কথিত ‘শতাব্দির সেরা চুক্তি’ নামক পরিকল্পনা তৈরি করেছে। সৌদি আরবসহ কয়েকটি আরব দেশ এই পরিকল্পনার প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানিয়েছে। এই পরিকল্পনায় আল-কুদসকে ইহুদিবাদী ইসরাইলের হাতে ন্যস্ত করার কথা বলা হয়েছে এবং ফিলিস্তিনি শরণার্থীদের মাতৃভূমিতে ফিরে আসার অধিকার চিরতরে খর্ব করা হয়েছে।

এই ন্যক্কারজনক পরিকল্পনায় আরো বলা হয়েছে, জর্দান নদীর পশ্চিম তীর ও গাজা উপত্যকার যতটুকু অংশে এখন ফিলিস্তিনিরা ঘেরাও হয়ে রয়েছে ততটুকু অংশ নিয়ে ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠিত হবে।

ফিলিস্তিনের পাশে রাশিয়া-চীন !

আমেরিকার উদ্যোগে চলতি বছরের জুন মাসে বাহরাইনের রাজধানী মানামায় যে অর্থনৈতিক সম্মেলন অনিুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে তাতে চীন ও রাশিয়া যোগ দেবে না বলে জানিয়েছেন ফিলিস্তিনে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত গুয়ো ওয়েই।

মঙ্গলবার এ খবর জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম। গুয়ো ওয়েই ফিলিস্তিনের পররাষ্ট্র উপদেষ্টা নাবিল শা’তকে জানিয়েছেন, চীন ও রাশিয়া বাহরাইনের সম্মেলন বয়কটের বিষয়ে একটি সমঝোতায় পৌঁছেছে।

চীনা রাষ্ট্রদূত বলেন,চীন ফিলিস্তিনের জনগণকে সমর্থন করে; তাদের ভাগ্য নির্ধারণের অধিকারের প্রতি বেইজিং প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। শুধু তাই নয় স্বাধীন ফিলিস্তিনি রাষ্ট্র গঠনের পরিকল্পনাকেও সমর্থন করে বেইজিং। ২৫ ও ২৬ জুন অনুষ্ঠেয় এ সম্মেলনকে অর্থনৈতিক সম্মেলন বলা হলেও মূলত সেখানে ইসরাইল-ফিলিস্তিন সংকট সমাধানের জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রণীত বিতর্কিত ‘শতাব্দির সেরা চুক্তি’ উন্মোচন করা হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

চেক প্রজাতন্ত্রকে ফিলিস্তিনের অভিনন্দন ইসরাইলের রাজধানী তেলআবিব থেকে চেক প্রজাতন্ত্র তাদের দূতবাস জেরুজালেমে স্থানান্তর করবে না বলে জানিয়েছে।এজন্য দেশটিকে অভিনন্দন জানিয়েছে ফিলিস্তিন।সোমবার এ খবর জানিয়েছে তুর্কি সংবাদ মাধ্যম ইয়েনি শাফাকের।

এক বিবৃতিতে চেক প্রজাতন্ত্র জানিয়েছে, চেক প্রজাতন্ত্র আন্তর্জাতিক আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।এজন্য ইসরাইল চেক প্রজাতন্ত্রের দূতাবাস জেরুজালেমে হস্তান্তরের যে প্রস্থাব দিয়েছে তা প্রত্যাখ্যান করে চেক প্রজাতন্ত্র।কারণ এই পদক্ষেপটি ইইউ এবং জাতিসংঘের অবস্থানের প্রতি বিরোধিতা করা হয়।

জেরুজালেম নিয়েই মূলত মধ্যপ্রাচ্যে সংঘাতের সৃষ্টি হয়, ১৯৬৭ সালে পশ্চিম জেরুজালেম ফিলিস্তিনিদের কাছ থেকে ইসরাইল দখল করে নেয়।এর আগে আমেরকা এবং গুয়েতেমালা আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের দূতাবাস জেরুজালেমে স্থানান্তর করে।

বাঁ থেকে মালয়, তুর্কী ও পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?