বৃহস্পতিবার, ২২ নভেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ০৫:৪৩:১০

নাস্তা না সেরেই কাজে বের হন?

নাস্তা না সেরেই কাজে বের হন?

স্বাস্থ্য ডেস্ক : বেশি রাত পর্যন্ত জেগে অফিসের বা সংসারের বাড়তি কাজকর্ম সারা, টিভি দেখা বা বই পড়ার নেশা থাকে অনেকের। তাতে সকালে ঘুম থেকে উঠতে দেরি হয়। ফলে সকালবেলা তাড়াহুড়ো করে সংসারের অন্য কাজ সেরে স্বামি-সন্তানদের গুছিয়ে দিয়ে কাজে বের হন নাস্তা না করেই।

সকালবেলা বড়োজোর এক কাপ চা বা কফি খাওয়ার সময় বের করে উঠতে পারি আমরা, এক-আধদিন সেটুকুও জোটে না৷ কিন্তু জানেন কি, এর ফল হতে পারে সুদূরপ্রসারী ও মারাত্মক।

ব্রেকফাস্ট না খাওয়ার ফলে আপনার ধমনীগুলি ক্রমশ শক্ত হতে আরম্ভ করে, ফলে বাড়ে হৃদরোগের আশঙ্কা। এর আগেই কিন্তু প্রমাণিত হয়ে গিয়েছে যে সকালবেলার জলখাবার না খেলে ওবেসিটি, ডায়াবেটিস, হাই কোলেস্টেরলের মতো নানা ধরনের সমস্যা হতে পারে।

ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়ার সঙ্গে যুক্ত ডা. প্রকাশ দিদওয়ানিয়া বলছেন, ‘‘যাদের ওজন বেশি, তাঁরা সাধারণত ওজন কমানোর জন্য ব্রেকফাস্টটা স্কিপ করার চেষ্টা করেন, এর ফলে কাজের কাজ তো কিছুই হয় না, উলটে বাড়ে মেটাবলিক অ্যাবনরম্যালিটি।”

ডায়েটিশিয়ান মিতা শুক্লাও পরামর্শ দিচ্ছেন, রোজের কাজের চাপ যতই হোক না কেন, পেট ভরে ব্রেকফাস্ট খেয়ে তবে দিন শুরু করা উচিত৷ ‘‘পেট ভরা থাকলে আপনি কাজের এনার্জি পাবেন৷ খিদেয় পেট চুঁইচুঁই না করলে মাঝে মধ্যেই মুখ চালাতেও ইচ্ছে করবে না, ফলে হিসেবের বাইরে খাওয়ার আশঙ্কা কম৷ সম্ভব হলে ঘুম থেকে ওঠার আধ ঘণ্টা পর থেকেই অল্প অল্প করে কিছু না কিছু খাওয়ার অভ্যেস তৈরি করুন, তাতে শরীর ভালো থাকবে বেশিদিন৷ নিয়ম মেনে পুষ্টিকর প্রাতরাশ খেলে ওজনও কমতে বাধ্য,’’ বলছেন তিনি৷

সূত্র : ফেমিনা

আজকের প্রশ্ন

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন ‘খালেদা জিয়ার শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে বিএনপির নেতারা মিথ্যাচার ও বিভ্রান্তি করছে। আপনিও কি তাই মনে করেন?