মঙ্গলবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ,২০১৭

Bangla Version
  
SHARE

শুক্রবার, ০৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ১১:০৯:৩৪

চিনি নয়, এ যেন সাদা মৃত্যু!

চিনি নয়, এ যেন সাদা মৃত্যু!

স্বাস্থ্য ডেস্ক : চিনির স্বাদ মিষ্টি হলেও এটি শরীরের জন্য এক প্রকার বিষ বলা চলে। চিনি জাতীয় কোন খাবার গ্রহণ করার সাথে সাথে আমাদের শরীরের বেটা এন্ডরফিন নামের একটি উপাদানের গতি আরও দ্রুততর হয়।

 

এটি সরাসরি মস্তিষ্কে পৌঁছে বলে আমাদের শরীরেও প্রশান্তি বয়ে যায়। কিন্তু এই চিনি আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য কতটা ক্ষতিকর আসুন জেনে নেয়া যাক-

 

১) পেশীর প্রোটিনে আক্রমণ করে: অতিরিক্ত চিনি খেলে শরীরে গ্লুকোজ-৬ ফসফেট এর পরিমাণ বৃদ্ধি পায়। এতে করে পেশীর প্রোটিনে পরিবর্তন আসে। এতে করে হার্ট দুর্বল হয়ে যায় এবং হার্ট অ্যাটাকের কারণ হয়ে দাড়ায়।

 

২) বয়স বৃদ্ধি করে: ২০০৯ সালের একটি জরিপ থেকে জানা যায়, চিনি খাওয়ার ফলে টিস্যু এবং মস্তিষ্কের বয়স বৃদ্ধি পায়।

 

৩) লিভারের সর্বনাশ করে: মাত্রাতিরিক্ত চিনি খাওয়া অভ্যাস লিভারকে অতিরিক্ত কাজ করতে বাধ্য করে। বলাই বাহুল্য যে অতিরিক্ত কাজের ফলে লিভারের ফাংশনে জটিলতা তৈরি হয়। এতে লিভারের কার্যক্ষমতা নষ্ট পর্যন্ত হয়ে যেতে পারে।

 

৪) প্যানক্রিয়েটিক ক্যান্সারের জন্য দায়ী: মাত্রাতিরিক্ত চিনি গ্রহণ করলে তার ফলে প্যানক্রিয়েটিক ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

 

৫) ইনসুলিন হরমোনের কার্যকারিতা নষ্ট করে: খাবারকে দেহের ব্যবহারযোগ্য এনার্জিতে রূপান্তর করতে সহায়তা করে ইনসুলিন হরমোন। অতিরিক্ত চিনি খাওয়া দেহে এই হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট করে। দেহে ইনসুলিনের মাত্রা কমে বা বেড়ে গেলে মারাত্মক সব শারীরিক সমস্যা দেখা দিতে পারে।

 

৬) বাতের ব্যথা বাড়ায়: চিনিতে আছে ইউরিক অ্যাসিড, যা যে কোন ধরণের বাতের ব্যথার সমস্যা বৃদ্ধি করতে ভূমিকা রাখে। বিশেষ করে গেটে বাতের জন্য চিনি এক সর্বনাশের নাম।

 

৭) কিডনির রোগ বাড়ায়: অতিরিক্ত চিনি, বিশেষ করে কোমল পানীয়ের সাথে গ্রহণ করা বাড়তি চিনি কিডনির রোগের জন্য দায়ী। -সূত্রঃ টাইম্‌স ফুড।

 

 



আজকের প্রশ্ন