মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

বুধবার, ০৭ নভেম্বর, ২০১৮, ০৩:৩৪:৫৯

মাছেই কমবে শ্বাসকষ্ট

মাছেই কমবে শ্বাসকষ্ট

স্বাস্থ্য ডেস্ক : শ্বাসকষ্ট বা হাঁপানি জনিত রোগে অনেকেই ভোগেন৷ হোমিওপ্যাথি কিংবা অ্যালাপ্যাথি, কোনও কিছুতেই কাজ হয়নি৷ শেষমেষ আশা ছেড়ে দিয়েছেন৷ ছোট থেকে বড় কাউকেই রেহাই দেয় না রোগটি৷ কেউ কেউ আবার অনেক কম বয়সেই রোগটিতে আক্রান্ত হয়৷ কিন্তু ঘরোয়া উপায়েই মিলতে পারে সমাধান৷ তবে ফলো করতে হবে নিয়মিত৷ খাদ্যতালিকাতে যোগ করতে পারেন স্যামন, ট্রাউট কিংবা সার্ডিনের মত সামুদ্রিক মাছগুলোকে৷

সম্প্রতি, বিষয়টি নিয়ে গবেষণা করেন অস্ট্রেলিয়ার গবেষকরা৷ যেখানে দেখা গেছে, স্যামন, ট্রাউট, সার্ডিনের মধ্যে থাকে বিশেষ কিছু উপাদান৷ যেগুলো বাচ্চাদের হাপাঁনির প্রবণতাকে অনেকাংশে কমিয়ে দেয়৷ তাই এখনই খাদ্য তালিকাতে যোগ করুন উপাদানগুলোকে৷

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, অতিরিক্ত ফ্যাট, চিনি এবং লবণজাতীয় খাবার শিশু শরীরকে (হাঁপানিতে আক্রান্ত) সরাসরি প্রভাবিত করে৷ কিন্তু এখন এটাও প্রমাণিত হেলদি খাদ্যতালিকা এবং সঠিক উপাদান কমাবে পারে শিশুদের শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যাকে৷

মোট ৬৪ জন হাঁপানিতে আক্রান্ত বাচ্চার উপর পরীক্ষাটি করা হয়৷ যেখানে দুটি ভাগে ভাগ করে নিয়ে পরীক্ষাটি করা হয়৷ প্রথমের গ্রুপটিকে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য বিশেষ ডায়েট দেওয়া হয়৷ খাওয়ানো হয় প্রচুর তেলযুক্ত মাছ৷

বাকিদের সাধারণ খাবার দেওয়া হয়৷ যারা বিশেষ তেলযুক্ত মাছের ডায়েটটি ফলো করেছিল তাদের মধ্যে এসেছে পরিবর্তন৷ তেলযুক্ত সামুদ্রিক মাছগুলোর মধ্যে থাকে ওমেগা-৩৷ যেটি অনেকাংশে কমায় শিশুদের হাঁপানির প্রবণতাকে৷

সূত্র: কলকাতা ২৪x৭

এই বিভাগের আরও খবর

  দেশে রাজনৈতিক সঙ্কট বিরাজ করছে, বিরোধী মনোভাবকে সহ্য করতে হবে: আকবর আলি খান

  চট্টগ্রামে পুলিশের সঙ্গে গুলিবিনিময়, ১৪ মামলার আসামি নিহত

  ৩০ তারিখ নির্ধারিত হবে বিএনপি থাকবে কিনা: নাসিম

  পুঁজিবাজারের সূচক পতনের পেছনে কেউ আছে: অর্থমন্ত্রী

  দলের যৌথ নেতৃত্ব নিয়ে ফখরুলের সন্তোষ

  শ্রীলঙ্কায় জরুরি অবস্থা জারি, কমান্ডো মোতায়েন

  নন-ক্যাডারে ১৫৯৭ জনকে নিয়োগ দিচ্ছে পিএসসি

  যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় গির্জা উড়িয়ে দেয়ার হুমকি

  রোহিঙ্গারা যেন ভোটার না হয় : সর্বোচ্চ সতর্কতার নির্দেশনা ইসির

  শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলা: সর্বশেষ যা জানা যাচ্ছে

  অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশি নারী খুন, স্বামী আটক



আজকের প্রশ্ন