বুধবার, ১৩ নভেম্বর ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

রবিবার, ০৩ নভেম্বর, ২০১৯, ০৯:৩০:৫২

স্বেচ্ছাসেবক লীগ মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের শীর্ষ পদ পেতে দৌড়ঝাঁপ

স্বেচ্ছাসেবক লীগ মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের শীর্ষ পদ পেতে দৌড়ঝাঁপ

ঢাকা: ২০০৬ সালের ৩১ জুলাই সম্মেলনের মাধ্যমে স্বেচ্ছাসেবক লীগের অবিভক্ত ঢাকা মহানগরকে উত্তর ও দক্ষিণ দুই ভাগে ভাগ করা হয়েছিল। এরপর দীর্ঘ দিন কমিটি না হওয়ায় ঝিমিয়ে পড়েছিলেন সংগঠনটির ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতারা। আগামী ১১ ও ১২ নভেম্বর উত্তর ও দক্ষিণের সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা হওয়ায় এখন আবারো চাঙ্গা হয়ে উঠেছেন দুই অংশের নেতারা। শীর্ষ পদ পেতে প্রভাবশালী নেতা-মন্ত্রীর অফিস ও বাসায় সময়-অসময়ে গিয়ে হাজির হচ্ছেন ওয়ান ইলেভেনের পরীক্ষিত, ত্যাগী ও মেধাবী ছাত্রনেতারা। তাদের দাবি, দলের দুঃসময়ে ত্যাগী ও পরীক্ষিত ছাত্রনেতাদের মূল্যায়ন করা হোক। পাশাপাশি নিষ্ক্রিয় নেতারাও নিয়মিত হাজিরা দিচ্ছেন বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউর আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় ও দলীয় সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে।

জানা গেছে, এবার যারা পদপ্রত্যাশী তাদের প্রত্যেকের অতীত ও বর্তমান কর্মকাণ্ডের দিকে নজর রাখছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। বিশেষ করে যুবলীগের ক্যাসিনোকাণ্ডের পরে যাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের অপকর্মে জড়িত থাকার অভিযোগ উঠেছে তাদের কাউকেই কমিটির শীর্ষ পদ দেয়া হচ্ছে না, ইতোমধ্যে এমনটি ইঙ্গিত দেয়া হয়েছে। মেধাবী, পরিশ্রমী, দক্ষ ও ক্লিন ইমেজের আওয়ামী পরিবারের সন্তান ও সাবেক ছাত্রনেতাদের সমন্বয়ে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের কমিটি গঠন করা হবে।

এরমধ্যে দক্ষিণে শীর্ষ পদে আলোচনায় আছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি কামরুল হাসান রিপন, মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ হাওলাদার, মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, সাবেক ছাত্রনেতা শেখ মো: আনিসুজ্জামান রানাসহ ডজনখানেক নেতা। এর মধ্যে কামরুল হাসান রিপন ২০০১ সালে অনেক হামলা-মামলার শিকার হয়েছিলেন। ওয়ান ইলেভেনের সময় আওয়ামী লীগ প্রধান শেখ হাসিনার মুক্তি আন্দোলনে ছাত্রনেতা হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন তিনি। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াতের শাসনামলে ছাত্রলীগের রাজনীতি করার জন্য আমার বিরুদ্ধে ১৬টি মামলা দেয়া হয়েছিল। অনেক হামলার শিকার হয়েছি। ওয়ান ইলেভেনের সময় নির্যাতনের শিকার হয়েছি। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী যে শুদ্ধি অভিযান পরিচালনা করছেন তাতে আমি স্বাগত জানাই। এ শুদ্ধি অভিযানের মাধ্যমে আগামীতে দুর্নীতিমুক্ত, স্বচ্ছ ও ক্লিন ইমেজের নেতৃত্ব উঠে আসবে। নেত্রী সব সময় ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করেন। আশা করি, আগামী সম্মেলনেও নেত্রী ত্যাগী ছাত্রনেতাদের মূল্যায়ন করবেন।

মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ হাওলাদার বলেন, সব সময় স্বচ্ছ রাজনীতি করেছি। সংগঠনের সব তৃণমূল ত্যাগী ও পরিচ্ছন্ন নেতাকর্মীদেরও প্রত্যাশা, সংগঠনের কার্যক্রমকে আরো গতিশীল করতে আগামী সম্মেলনে সৎ, শিক্ষিত, সাবেক ছাত্রনেতা, ত্যাগী ও পরিশ্রমীদের মধ্যে থেকে সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক মনোনীত করা হোক। তাহলেই সংগঠন আরো গতিশীল, প্রাণবন্ত ও উজ্জীবিত হবে।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান ইরান ২০০১ সালে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে হামলার মামলায় পুলিশি নির্যাতনে মাদারীপুর ছেড়ে ঢাকা আসেন। ২০০২ সালে তিনি ক্রীড়া ভবনের সামনে থেকে গ্রেফতার হন। তিনি বলেন, মাদারীপুর জেলার ওয়ার্ড পর্যায় থেকে রাজনীতিটা করে আসছি। এখনো করছি। ১/১১-এর সময়ে নেত্রীর মুক্তির জন্য রাত-দিন বাহাউদ্দিন নাছিম ভাইয়ের নেতৃত্বে মাঠে ছিলাম। দলের দুর্দিনে সক্রিয়ভাবে সব সময় পাশে থাকার চেষ্টা করেছি। কখনো হাল ছাড়িনি। এখনো মাঠে রয়েছি। নেত্রী যখনই ডাকবেন, তখনই আমরা হাজির হব। মহানগর দক্ষিণে নেত্রী তার ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতাদের দায়িত্ব দিয়ে মূল্যায়ন করবেন এই প্রত্যাশা করছি।

এই বিভাগের আরও খবর

  বেনাপোল কাস্টমস হাউসের গোপনীয় ভোল্ট ভেঙে ২০ কেজি স্বর্ণ চুরি

  প্রাথমিক শিক্ষকদের নতুন বেতন গ্রেডে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মতি

  বিএনপিতে যত মুক্তিযোদ্ধা আছে আ.লীগে তা নেই: মওদুদ

  ইডেন ছাত্রলীগ নেত্রীদের বিরুদ্ধে যত অভিযোগ

  আওয়ামী লী‌গের ডিএনএ টেস্ট করা দরকার: আলাল

  ট্রেন দুর্ঘটনা: গুরুতর আহত ১০ জনকে পাঠানো হলো ঢাকায়

  বাগদাদি মরেনি, তার মৃত্যুর খবর প্রচার একটি মার্কিন ফাঁদ: সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট

  ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার কারণ জানতে বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ

  ক্ষমা চেয়ে লাভ নেই জনগণ ক্ষমা করবেনা, রাঙ্গাকে কাদের

  খালেদা জিয়ার অঙ্গ-প্রত্যঙ্গগুলো পঙ্গু হয়ে যাচ্ছে: ফখরুল

  ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় যাত্রীবাহী দুই ট্রেনের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১৫



আজকের প্রশ্ন