মঙ্গলবার, ১৮ ডিসেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

শুক্রবার, ১২ জানুয়ারী, ২০১৮, ০৫:২৬:৩৫

এক সাথে ৩১ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করল ভারত

এক সাথে ৩১ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করল ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : এক সঙ্গে ৩১টি বিদেশি কৃত্তিম উপগ্রহ (স্যাটেলাইট) উৎক্ষেপণ করে ইতিহাস গড়ল ভারত। শুক্রবার ভারতীয় সময় সকালে অন্ধ্র প্রদেশের শ্রীহরিকোটার সতীশ ধবন মহাকাশ কেন্দ্র থেকে এই উপগ্রহগুলি উৎক্ষেপণ করে দেশটির মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরো। ইসরো তাদের পোলার স্যাটেলাইট লঞ্চ ভেহিকল (পিএসএলভি) সি-৪০ রকেটে চাপিয়ে একসঙ্গে এই ৩১টি উপগ্রহকে মহাকাশে পৌঁছে দেয়। এই উপগ্রহ উৎক্ষেপণের মধ্যে দিয়েই মহাকাশে ১০০ তম উপগ্রহ উৎক্ষেপণের রেকর্ড করল ইসরো।

ইসরোর প্রজেক্ট ডিরেক্টর আর. হাটন জানান ‘পিএসএলভি’৪০ সফলভাবে মহাকাশে পাঠানো সম্ভব হয়েছে’।

আজ পিএসএলভি-সি৪০ রকেটে করে যে উপগ্রহগুলি মহাকাশে পাঠানো হয়, তার মধ্যে ইসরোর আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ উপগ্রহ কার্টোস্যাট-২ সিরিজের একটি কৃত্তিম উপগ্রহ রয়েছে। এছাড়া ভারত থেকে একটি মাইক্রো এবং ন্যানো উপগ্রহ পাঠানো হয়। বাকি ২৮ টি উপগ্রহই বিদেশের। যার মধ্যে তিনটি মাইক্রো এবং ২৫ টি ন্যানো স্যাটেলাইট আছে। বিদেশি উপগ্রহের মধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, দক্ষিণ কোরিয়া, কানাডা, ফিনল্যান্ড’এর উপগ্রহ উৎক্ষেপণ করা হয়েছে। সব মিলিয়ে প্রায় ৭১০ কিলোগ্রাম ওজনের কৃত্রিম উপগ্রহকে মহাকাশে পাঠানো হয়।

তবে এবারই প্রথম নয়, এর আগে ১০১ টি বিদেশি সহ ১০৪ টি উপগ্রহ  উৎক্ষেপণ করে ইতিহাস গড়েছিল ইসরো। সেই অভ্যাসকে বজায় রাখতেই ফের একবার একসঙ্গে এতগুলি উপগ্রহকে মকাকাশে পাঠালো ইসরো। যদিও চার মাস আগে ইসরোর শেষ উৎক্ষেপণ পিএসএলভি-৩৯ যান্ত্রিক কারণে ব্যর্থ হয়েছিল। তারপর এত বড় একটি উৎক্ষেপণ ইসরোর মুকুটে নতুন পালক বলেই মনে করছেন বিজ্ঞানীরা।

এদিকে সফল ভাবে উপগ্রহ উৎক্ষেপণের জন্য ইসরোর বিজ্ঞানীদের ধন্যবাদ জানিয়েছে দেশটির উপ-রাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডু, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ট্যুইট করে মোদি জানান ‘নতুন বছরে এই সাফল্য দেশের মহাকাশ প্রযুক্তিতে দ্রুত অগ্রগতির ক্ষেত্রে, আমাদের সাধারণ মানুষ, কৃষক, মৎসজীবীদের সুফল বয়ে আনবে। ভারতের মহাকাশ কর্মসূচীর উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ ও মহিমান্বিত সাফল্য-উভয় ক্ষেত্রেই ইসরোর পক্ষে ১০০ তম উপগ্রহ উৎক্ষেপণ অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। 

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?