শুক্রবার, ১৯ অক্টোবর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল, ২০১৮, ০৩:৩৮:০৪

টরেন্টোর হামলাকারী সম্পর্কে সর্বশেষ যা জানা যাচ্ছে

টরেন্টোর হামলাকারী সম্পর্কে সর্বশেষ যা জানা যাচ্ছে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : কানাডার টরেন্টোয় পথচারীদের ওপর গাড়ি চালিয়ে দেয়ার ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দশজনে দাঁড়িয়েছে। এই হামলায় আহত হয়েছেন আরো ১৫ জন।

এই হামলার ঘটনায় সন্দেহভাজন হিসেবে মিনাসিয়ান নামের ২৫ বছরের ওই যুবককে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দেশটির পুলিশ। তিনি কানাডার একটি বিখ্যাত কলেজের ছাত্র বলে জানা গেছে। তবে, এ ঘটনার উদ্দেশ্য সম্পর্কে এখনো জানতে পারেনি পুলিশ।

সোমবার দুপুরে টরেন্টো শহরের এক ব্যস্ত অফিসপাড়ায় মধ্যাহ্নভোজনের বিরতির সময়ে হামলা ঘটে। চালক একটি সাদা রংয়ের ভ্যান চালিয়ে ফুটপাথে পথচারীদের ধাক্কা দিতে শুরু করে। প্রায় দেড় কিলোমিটার ধরে তাণ্ডবলীলা চালানোর প্রায় ২৫ মিনিট পর তাকে থামানো সম্ভব হয়। ততক্ষণে তার গাড়ির ধাক্কায় কমপক্ষে ১০ জন নিহত ও ১৫ জন আহত হয়েছে।

পুলিশের বরাত দিয়ে সিবিএস নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, পথচারীদের ওপর গাড়ি চালিয়ে দিয়ে চালক পালিয়ে যান। পরে কর্তৃপক্ষ জানায়, ঘটনাস্থলের কিছুটা দূরে গাড়িসহ চালককে আটক করে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

সন্দেহভাজন মিনাসিয়ানের ছবি সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইটে পাওয়া যায়। তিনি অন্টারিওর রিচমন্ড হিলের বাসিন্দা। তার আগের কোনো অপরাধের রেকর্ড পুলিশের কাছে নেই।

পুলিশের হাতে ধরা পড়ার সময়ে মিনাসিয়ান বন্দুক চালানোর হুমকি দিচ্ছিলো। সে চাইছিলো, ঘটনাস্থলেই তাকে পুলিশ হত্যা করুক। শহরের উপকণ্ঠে একটি স্কুলে ‘স্পেশাল নিডস' বা মূল স্রোতের বাইরের ছাত্রছাত্রীদের এক কর্মসূচিতে অংশ নিচ্ছিলো বলে জানা গেছে।

সহপাঠীদের কয়েকজনের মতে, আলেক মিনাসিয়ান অত্যন্ত শান্ত স্বভাবের মানুষ। মাথা নীচু করে দুই হাত একত্র করে তাকে হাঁটতে দেখা যেতো।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সকাল ১০টায় মিনাসিয়ানকে আদালতে হাজির করা হবে বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

পুলিশ এই হামলাকে একক ব্যক্তির অপরাধ হিসেবেই গণ্য করছে। তাদের সূত্র অনুযায়ী, জাতীয় নিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়েনি। আপাতত স্থানীয় পুলিশই ঘটনার তদন্ত করছে। রয়েল ক্যানাডিয়ান মাইন্টেড পুলিশ বাহিনীকে এখনো সক্রিয় ভূমিকা পালন করতে দেখা যায়নি। পর্যবেক্ষকদের মতে, এর অর্থ কোনো সন্ত্রাসবাদী যোগসূত্র পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, ইউরোপ ও আমেরিকায় অতীতে এমন কয়েকটি হামলায় আততায়ীরা নিজেদের তথাকথিত ইসলামিক স্টেট জঙ্গি হিসেবে তুলে ধরেছিল। এ ক্ষেত্রে তেমন কোনো ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে না। জার্মানির ম্যুনস্টার শহরেও সম্প্রতি একই ধরনের এক হামলা চালানো হয়েছিল। গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসে ক্যানাডার এডমন্টন শহরে সোমালিয়ার এক শরণার্থী স্টেডিয়ামের সামনে গাড়ি চালিয়ে ৪ জন পথচারীকে ধাক্কা মারে ও এক পুলিশ অফিসারকে ছুরি মেরে হত্যার চেষ্টা করে।

ক্যানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো এই হামলার তীব্র নিন্দা করেছেন। ‘অত্যন্ত দুঃখজনক ও অর্থহীন' এই হামলা সত্ত্বেও তিনি বলেন, মনে ভয় ছাড়াই ক্যানাডার শহরগুলিতে হাঁটাচলা করতে পারা উচিত।

মার্কিন প্রশাসনও হামলার নিন্দা করে ক্যানাডাকে প্রয়োজনে সব রকমের সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

সোমবারই টরন্টো শহরে জি-সেভেন গোষ্ঠীর পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠক শেষ হয়েছে। সম্মেলনস্থল থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরে এই হামলা ঘটেছে। জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাইকো মাস ততক্ষণে নিউ ইয়র্কের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়েছেন। তিনিও এই হামলার নিন্দা করেন।

সূত্র: সিবিসি নিউজ, বিবিসি

আজকের প্রশ্ন

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন ‘খালেদা জিয়ার শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে বিএনপির নেতারা মিথ্যাচার ও বিভ্রান্তি করছে। আপনিও কি তাই মনে করেন?