মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ১১ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯, ০৫:১৮:৫০

থাই রাজকুমারীর মনোনয়ন বাতিল

থাই রাজকুমারীর মনোনয়ন বাতিল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী হওয়া হলো না থাইল্যান্ডের রাজকুমারী উবলরত্না রাজকন্যা সিরিবধনার (৬৭)। সোমবার (১১ ফেব্রুয়ারি) দেশটির নির্বাচন কমিশন তার মনোনয়নপত্রটি বাতিল করে দেয়।

দেশটির বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, সোমবার নির্বাচন কমিশন থাইল্যান্ডের জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণেচ্ছুক রাজনৈতিক দলগুলোর প্রধানমন্ত্রী পদে প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করে। এতে দেখা যায় রাজকুমারী উবলরত্নার নাম নেই। উবলরত্না দেশটির বর্তমান রাজা প্রিন্স মাহা ওয়াজিরালংকর্ণের বোন।

থাই নির্বাচন কমিশনের এক বার্তায় বলা হয়েছে, দেশটির ঐতিহ্য অনুযায়ী- রাজপরিবারের সদস্যরা রাজনীতির ঊর্ধ্বে। একই সঙ্গে তারা কোনো রাজনৈতিক পদেও থাকতে পারেন না।

দেশটির ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রার দল ‘থাই রাকসা চার্ট পার্টি’র সমর্থন নিয়ে পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী পদের জন্য লড়তে চেয়েছিলেন রাজকুমারী উবলরত্না।

গত শুক্রবার (০৮ ফেব্রুয়ারি) দলের পক্ষ থেকে তার নাম ঘোষণা করা হয়। যা থাইল্যান্ডের রাজনৈতিক ইতিহাসে প্রথম।

এ ঘটনায় এক বার্তায় রাজা মাহা ভাজিরালংকর্ণ রাজকুমারীর প্রধানমন্ত্রিত্বের লড়াইয়ে নামার এ চেষ্টাকে ‘অনুচিত’ এবং অসাংবিধানিক বলে মন্তব্য করেন।

আর রাজকুমারীকে মনোনয়ন দিয়ে নিষিদ্ধ হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছে সাবেক প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রার রাজনৈতিক দল থাই রাকসা চার্ট পার্টি।

এই বিভাগের আরও খবর

  কাশ্মীর সম্পর্কে ‘গোপন তথ্য’ ফাঁস করায় শেহলার বিরুদ্ধে মামলা

  ‘ইয়েমেনে সৌদিসহ ১৭ দেশ পরাজিত হয়েছে’

  তেল ট্যাংকার মুক্তির ঘটনায় ইরানের শক্তিমত্তা প্রমাণিত হয়েছে

  ভারতের মতোই ব্রিটিশরা এ দেশকে ২০০ বছর শাসন করেছে: অমর্ত্য সেন

  'ইরান আঘাত হানা শুরু করলে শত্রুরা পালানোরও পথ পাবে না'

  কাশ্মীর: 'বাড়ি বাড়ি গিয়ে যুবকদের তুলে নেয়া হচ্ছে'

  কাশ্মীর সামলাতে যে কৌশল নিলেন ইমরান খান

  ভারতীয় সেনার গুলিতে পাকিস্তানি দুই বেসামরিক নাগরিক নিহত

  সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে তুরস্কে ৩ মেয়র বরখাস্ত

  কাশ্মিরে মানবাধিকার পুরোপুরি লঙ্ঘিত হচ্ছে: মমতা

  সর্ববৃহৎ শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ দেখাল হংকংয়ের আন্দোলনকারীরা

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?