শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ২৩ মে, ২০১৯, ০১:৩১:২৫

বিফলে গেলো ‘প্রিয়াঙ্কা ম্যাজিক’

বিফলে গেলো ‘প্রিয়াঙ্কা ম্যাজিক’

অনলাইন ডেস্ক: ভারতে ভোট গণনার সময় যত গড়াচ্ছে মোদির দল বিজেপির দাপট তত বাড়ছে। জাতীয় নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইটে দেয়া তথ্যানুযায়ী ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) একাই সারা দেশে ২৯৪টি আসনে এগিয়ে আছে। অর্থাৎ তারা গতবারের চেয়েও বেশি সংখ্যক আসন পেতে চলেছে।

তাহলে কংগ্রেস দলের সভাপতি রাহুল গান্ধীর বোন প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর আকর্ষণীয় ব্যক্তিত্ব কোন কাজে এল না?

লোকসভা নির্বাচনের আগে গত ফেব্রুয়ারি মাসে হঠাৎ করেই রাজনীতিতে যোগ দেন রাহুলের বোন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। ধারণা করা হয়েছিলো এই নির্বাচনে কংগ্রেসকে জেতাতে তিনি বেশ বড় ধরনের ফ্যাক্টর হয়ে উঠবেন। কেননা ভারতের সাধারণ লোকজনের মধ্যে বরাবরই তাকে নিয়ে বেশ আগ্রহ লক্ষ্য করা গেছে। তাই প্রিয়াঙ্কা রাজনীতিতে আসায় ভয় পেতে শুরু করেছিলেন মোদিসহ বিজেপির তাবড় নেতারাও।

প্রিয়াঙ্কা নির্বাচনে ব্যাপক প্রচার চালিয়েছেন মূলত ভারতের উত্তর প্রদেশ রাজ্যে। তিনি প্রচার চালিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির শাসনামলে বেকারত্বের হার বৃদ্ধি, নোটবন্দী বা ডি-মনিটাইজেশান এবং কৃষকদের ন্যায্য অধিকার বঞ্চিত করার নীতির বিরুদ্ধে।

তিনি ঘুরে বেড়িয়েছেন গাড়িতে, ট্রাকে, এমনকী নৌকায়। অনেক রোডশো-তে অংশ নিয়েছেন। অজস্র জনসভায় ভাষণ দিয়েছেন। সমর্থকদের সঙ্গে হাসিমুখে অভিবাদন বিনিময় করেছেন, হাত নেড়েছেন প্রিয়াঙ্কা। করমর্দন করেছেন অসংখ্য মানুষের সঙ্গে। সেলফিতে পোজ দিয়েছেন প্রচুর। সমর্থকদের বাচ্চাদের কোলে বসিয়ে ছবি তুলেছেন।

প্রিয়াঙ্কা গান্ধী অবশ্য লোকসভা আসনে প্রতিদ্বন্দিতা করেননি। কিন্তু তিনি নির্বাচনী প্রচারণার ব্যাপারে তিনি যেখানে গেছেন যা করেছেন তা নিয়ে সংবাদমাধ্যম বিপুলভাবে উৎসাহী ছিল।

মন্দিরে, মাজারে যেখানে তিনি গেছেন, তা মূল সংবাদে সবসময় স্থান পেয়েছে। তার মা সোনিয়া গান্ধীর নির্বাচনী এলাকা রায়বেরিলিতে সাপুড়েদের গ্রামে যখন তিনি গেছেন তখন সাপ হাতে তার ছবি ছড়িয়ে পড়েছে সংবাদমাধ্যমে। মধ্যভারতে তাকে দেখা গিয়েছিল বেড়া টপকে জনতার মাঝে চলে যেতে, যখন তার নিরাপত্তা রক্ষীরা তাকে ধরতে দৌড় দেয়।

কিন্তু এত কিছুর পরও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। ভোটের ফলাফল দেখে মনে হচ্ছে কংগ্রেস পার্টির ভাগ্য পরিবর্তনে তার সব উদ্যোগ কার্যত বিফল হয়েছে।বিপুল আসনে জয় পেতে চলেছে মোদির দল। এখন কেবল আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয়া বাকি।

সূত্র: বিবিসি বাংলা

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?