রবিবার, ২৫ আগস্ট ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০১৯, ১১:৩৯:৪৬

কাশ্মীরে ফের জঙ্গি হামলা, ৫ ভারতীয় জওয়ান নিহত

কাশ্মীরে ফের জঙ্গি হামলা, ৫ ভারতীয় জওয়ান নিহত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতে পুলওয়ামা হামলার মাস চারেক পর আবারও ভারতীয় সেনা জওয়ানদের ওপর হামলা চালাল জিহাদিরা। ভারতের কাশ্মীরের অনন্তনাগে ভারতীয় সেনার টহল চলাকালীন এই জঙ্গি হামলায় আজ বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত পাঁচ ভারতীয় জওয়ানের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এ ছাড়া প্রাণ হারিয়েছেন জম্মু-কাশ্মীর রাজ্যের এক পুলিশ কর্মকর্তা ও একজন সাধারণ নাগরিক। আহত হয়েছেন অন্তত পাঁচজন।

হামলার ঘটনাটি ঘটে গতকাল বুধবার বিকেলে দক্ষিণ কাশ্মীরের অনন্তনাগে। সেনা সূত্রে জানা গেছে, বুধবার বিকেলে অন্যদিনের মতোই কাশ্মীরের ব্যস্ততম কেপি চক বাসস্ট্যান্ডের কাছে টহল দিচ্ছিলেন সিআরপিএফ জওয়ানরা। সে সময় আচমকা মোটরবাইকে করে সেখানে হাজির হয় দুই জঙ্গি। মুখে কালো কাপড় জড়িয়ে এলোপাতাড়ি সেনা জওয়ানদের ওপর গুলি চালাতে থাকে জিহাদিরা। ছোড়া হয় গ্রেনেডও। দুই জঙ্গির কাছে অত্যাধুনিক স্বয়ংক্রিয় রাইফেল ছিল বলে জানা গেছে।

আচমকা এ হামলায় পাঁচ সিআরপিএফ জওয়ান নিহত হন। আহত হন আরো পাঁচজন। জওয়ানদের পাল্টা গুলিতে নিহত হয় এক জঙ্গি।

সর্বশেষ জানা গেছে, কাশ্মীরের মুস্তাক আহমেদ জারগার নেতৃত্বাধীন পাকিস্তানি জঙ্গি সংগঠন আল-উমর মুজাহিদিন এই হামলার দায় স্বীকার করেছে। এই মুস্তাক আহমেদ একসময় মাসুদ আজাহারের ছায়াসঙ্গী ছিলেন। উল্লেখ্য, কান্দাহার বিমান ছিনতাইয়ের সময় মাসুদের পাশাপাশি মুস্তাককেও ছাড়তে বাধ্য হয় ভারত সরকার।

এই বিভাগের আরও খবর

  আমাজনকে বাঁচাতে বিমান ভাড়া করে পানি ঢালছে বলিভিয়া

  অবরুদ্ধ কাশ্মীরে ঢুকতে পারেননি রাহুলসহ ১২ বিরোধীনেতা, বিমানবন্দর থেকেই ফেরত পাঠাল প্রশাসন

  কঠোর বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে কাশ্মীরে বিক্ষোভ

  কাশ্মীরে ভারতীয় পুলিশ কর্মকর্তার আত্মহত্যা

  মোদি এ যুগের হিটলার: আজাদ কাশ্মীরের প্রধানমন্ত্রী

  এবার কাশ্মীর সীমান্তে ১শ’ গেরিলা যোদ্ধা প্রস্তুত করল পাকিস্তান!

  আমাজনে আগুনের ঘটনায় বাণিজ্য চুক্তি বন্ধের হুমকি

  ৭০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ ভারতের অর্থনীতি

  কাশ্মীরে গণহত্যার ১০ লক্ষণ দেখছে জেনোসাইড ওয়াচ

  পোলান্ডে হঠাৎ বজ্রঝড়, শিশুসহ ৪ জনের প্রাণহানি

  আমাজনে আগুন আন্তর্জাতিক সংকট: ম্যাক্রোঁ

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?