বুধবার, ২০ নভেম্বর ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

শনিবার, ০৯ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:১৬:৫৯

জাকির নায়েককে তুলে দিচ্ছে না মাহাথির সরকার

জাকির নায়েককে তুলে দিচ্ছে না মাহাথির সরকার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মালয়েশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে তারা ডা. জাকির নায়েকের বিষেয়ে শিগগিরই ভারত সরকারকে চিঠি দেবে। কেন এখনই এই ইসলামিক বক্তাকে ফেরত দেয়া হবে না সেটি জানিয়ে এই চিঠি দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাইফুদ্দিন আবদুল্লাহ।

মালয়েশিয়ার ইংরেজী সংবাদ মাধ্যম দ্য স্টার অনলাইন জানিয়েছে, গত তিন বছর ধরে মালয়েশিয়ায় বসবাস করছেন জাকির নায়েক। সম্প্রতিক সময় তাকে দেশে ফিরিয়ে আনতে জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে ভারত সরকার। এর অংশ হিসেবে তারা মালয়েশিয়ার কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে জাকির নায়েককে ফিরিয়ে দেয়ার আহবানও জানিয়েছে।

তবে তাকে আপতত ভারতের হাতে তুলে না দেয়ার সিদ্ধান নিয়েছে মাহাথির সরকার। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাইফুদ্দিন আবদুল্লাহ জানান, তারা ভরত সরকারকে অবস্থান করে একটি চিঠি পাঠাতে যাচ্ছে। এটর্নি জেনারেল টমি থামাসের সঙ্গে আলোচনা করে চিঠির বিষয়বস্তু নির্ধারণ করা হবে। বৃহস্পতিবার এক সভায় তিনি এ তথ্য জানান।

তিনি আরো জানান, জাকির নায়েককে ফিরিয়ে দেয়া নিয়ে ভারতের পক্ষ থেকে অনুরোধ করা হয়েছে। তবে আমাদের প্রধানমন্ত্রী ইতোমধ্যে স্পষ্ট করে ব্যাখ্যা করেছেন কেনো তাকে এখনি ফেরত পাঠাবে না মালয়েশিয়া।

২০১৮ সালে দিল্লির পক্ষ থেকে তাকে ফেরত পাঠানোর আনুষ্ঠানিক আবেদন করা হলে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহথির মোহাম্মদ এ ব্যাপারে অনিচ্ছা প্রকাশ করেন।

এই বিভাগের আরও খবর

  চীনে কয়লা খনি দুর্ঘটনায় নিহত ১৫

  মালিতে সন্ত্রাসী হামলায় ২৪ সেনা নিহত

  সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে পাকিস্তান, লক্ষ্য কি ভারত?

  ক্যালিফোর্নিয়ার পর এবার ওকলাহোমায় গোলাগুলিতে নিহত ৩

  কাশ্মীরে তুষারধসে ৪ ভারতীয় সেনাসহ নিহত ৬

  ভারতে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় ১৪ জনের মৃত্যু

  পিয়াজের রেকর্ড দামে রাজনৈতিক অসন্তোষ সৃষ্টির আশঙ্কা: এএফপি

  কাশ্মীরে স্বায়ত্তশাসন বাতিলের তিন মাস পর চালু হলো ট্রেন

  হংকংয়ের বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভকারীদের সাথে পুলিশের তীব্র সংঘর্ষ

  যে কারণে এয়ার ইন্ডিয়া ও ভারত পেট্রোলিয়াম বিক্রির ঘোষণা

  শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন রাজাপাকসে

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?