মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট ,২০২০

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ২৬ মার্চ, ২০২০, ১২:৩৬:৩২

মৃত্যুর সংখ্যায় চীনকে ছাড়ালো স্পেন, বৃদ্ধদের ফেলে রেখে যাচ্ছেন কর্মীরা

মৃত্যুর সংখ্যায় চীনকে ছাড়ালো স্পেন, বৃদ্ধদের ফেলে রেখে যাচ্ছেন কর্মীরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : করোনা ভাইরাসে মৃত্যুর সংখ্যার হিসেবে চীনকে ছাড়িয়েছে স্পেন। মোট মৃত্যুর হিসেবে এখন পর্যন্ত বিশ্বে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সংখ্যক মানুষের মৃত্যু হয়েছে ইউরোপের এই দেশটিতে।

বুধবার পর্যন্ত স্পেনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সবশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে দেশে মারা গেছেন ৭৩৮ জন। আর আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে ৭ হাজার ৯৭৩ জন। একদিনে স্পেনে সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর সংখ্যা এটিই। দেশটিতে এখন করোনা ভাইরাস শনাক্ত হওয়া রোগীর সংখ্যা ৪৭ হাজার ৬১০ জন।

এর মধ্যে ১০ হাজারের বেশি করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রয়েছে কাতালোনিয়ায়। তবে সবচেয়ে খারাপভাবে আক্রান্ত হয়েছে রাজধানী মাদ্রিদ, সেখানে ১৪ হাজার ৫৯৭ জনের মধ্যে সংক্রমণের প্রমাণ পাওয়া গেছে।

মাদ্রিদ শহরে মৃতদের সৎকার করার প্রতিষ্ঠান মঙ্গলবার জানায় যে তারা কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্তদের মৃতদেহ সংগ্রহ করা বন্ধ করে দিয়েছে। শহরের প্রধান আইস রিঙ্ক বা বরফের মধ্যে স্কেটিং করার জায়গা ব্যবহার করা হবে অস্থায়ী মর্গ হিসেবে।

নাগরিকদের সহায়তা করতে যেসব সেনাদের নিয়োগ দেয়া হয়েছিল, তারা সোমবার কিছু বৃদ্ধ নিবাসে গিয়ে দেখতে পান যে সেখানে প্রবীণদের ফেলে রেখেই চলে গেছে নিবাসের কর্মীরা। সেখানে কয়েকজনকে মৃত অবস্থায়ও পান তারা।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয় যে নিবাসের কয়েকজন বাসিন্দার মধ্যে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর তাদের ফেলে চলে যান কয়েকটি নিবাসের

ইউরোপের অন্যান্য দেশের কী পরিস্থিতি?
সারাবিশ্বে এখন পর্যন্ত ৪ লাখ ৩৫ হাজারের বেশি মানুষের মধ্যে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। ইউরোপ এখন এই প্রাদুর্ভাবের কেন্দ্র।
ইতালি: ইতালিতে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৬৮৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। মোট মৃতের সংখ্যা ৭ হাজার ৫০৩ জন। গত চারদিন ধরে ইতালিতে নতুন করে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হওয়া রোগীর সংখ্যা কমছে।

ভাইরাস প্রাদুর্ভাব মোকাবেলা করতে আরোপ করা আইনের বাস্তবায়নে কড়াকড়ি আরোপ করেছে ইতালি। ভাইরাস শনাক্ত হওয়া কোনো ব্যক্তি যদি কোয়ারেন্টাইনের নিয়ম ভাঙ্গেন, তাহলে তাকে জরিমানাসহ সর্বোচ্চ পাঁচ বছরের কারাদণ্ড শাস্তির নিয়ম করা হয়েছে।

ফ্রান্স: ফ্রান্সে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছে ২৩১ জন। এ নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়ালো এক হাজার ৩৩১ জনে। স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান জেরোম সালোমন বলেছেন, লাইফ সাপোর্ট প্রয়োজন হচ্ছে এমন মানুষের সংখ্যা ফ্রান্সে ১২ শতাংশ বেড়েছে এবং 'মহামারি পরিস্থিতি দ্রুত খারাপ হচ্ছে।'
জার্মানি: জার্মানিতে প্রায় ৩৮ হাজার মানুষের মধ্যে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে, যার মধ্যে মারা গেছে ২০৬ জন।
যুক্তরাজ্য: যুক্তরাজ্যে এখন পর্যন্ত প্রায় ১০ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছে কোভিড-১৯ এ, মারা গেছে ৪৬৬ জন।
সুইজারল্যান্ড: সুইজারল্যান্ডে মৃত্যুর সংখ্যা ১৫৩। আক্রান্ত হয়েছে ১০ হাজারের বেশি মানুষ।
তবে ইউরোপের প্রধান শহরগুলোতে মানুষ অবরুদ্ধ অবস্থায় থাকায় বায়ুদূষণের মাত্রা কমেছে।
ইউরোপিয়ান এনভায়রনমেন্ট এজেন্সি জানিয়েছে, ইতালির মিলান শহরের বাতাসে ২০১৯ সালের একই সপ্তাহের তুলনায় ২১ শতাংশ কম নাইট্রোজেন ডাই-অক্সাইডের উপস্থিতি রেকর্ড করা হয়েছে।
মাদ্রিদের নাইট্রোজেন ডাই-অক্সাইড মাত্রা কমেছে ৪১ শতাংশ এবং পর্তুগালের রাজধানী লিসবনে কমেছে ৫১ শতাংশ।
সূত্র: বিবিসি

এই বিভাগের আরও খবর

  আফগানিস্তানে কারাগারে আইএসের হামলায় নিহত বেড়ে ৩৯

  ২ সহকর্মীকে গুলি করে হত্যা করলো বিএসএফ সদস্য

  করোনার নতুন চিকিৎসা, সাফল্যের ব্যাপারে ‘অনেকটাই নিশ্চিত’ ড. ফাউচি

  বেলারুশে রুশ নাগরিক আটক, রাষ্ট্রদূতকে তলব

  ভ্যাকসিনেও জাদুকরী সমাধান কোনোদিন মিলবে না: ডব্লিউএইচও

  বিশ্বে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ৭ লাখ ছুঁই ছুঁই

  অস্ত্রে মার্কিন নির্ভরতা থেকে সরে আসছে জার্মানি-ফ্রান্স

  ৩৭০ ধারা বাতিলের বর্ষপূর্তিতে কাশ্মীরে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা, কারফিউ জারি

  আফগান কারাগারে জঙ্গি হামলা; নিহত ২৪

  বিশ্বে আরও সাড়ে ৪ হাজার মানুষের মৃত্যু, শনাক্ত ২ লাখ

  মরুভূমিতে বসিয়ে রাখা হয়েছে বহু বিমান

আজকের প্রশ্ন

বিএনপির নেতারা আইন না বুঝেই মন্তব্য করে আইনমন্ত্রীর এমন বক্তব্যে আপনি কি একমত?