মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ২৫ জুন, ২০১৯, ১০:৪০:৩৫

বিভিন্ন জেলায় নিয়োগ দেবে মেরী স্টোপস

বিভিন্ন জেলায় নিয়োগ দেবে মেরী স্টোপস

ঢাকা : নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে মেরী স্টোপস বাংলাদেশ। প্রতিষ্ঠানটি ফিল্ড কো-অর্ডিনেটর (পুরুষ) পদে এই নিয়োগ দেবে। আগ্রহী পুরুষ প্রার্থীরা অনলাইনের মাধ্যমে সহজেই আবেদন করতে পারেন।

পদের নাম

ফিল্ড কো-অর্ডিনেটর (পুরুষ)

যোগ্যতা

প্রার্থীদের স্নাতক পাস হতে হবে। প্রার্থীকে সর্বনিম্ন দুই বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। পুরুষরা আবেদন করতে পারবেন। মাতৃস্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানে অথবা ফার্মাসিউটিক্যালস কোম্পানিতে মার্কেটিং ও সেলসে দুই বছর কাজ করার অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। মাঠ পর্যায়ে মার্কেটিংয়ে কাজ করার অভিজ্ঞতাসম্পন্ন প্রার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। প্রার্থীদের মাঠ পর্যায়ে সেবা বিপণন কাজে সংস্থার লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য ফার্মেসি/গ্রাম্য ডাক্তার/ডাক্তার ও উদিষ্ট জনগোষ্ঠীর সঙ্গে সুসম্পর্ক তৈরির মানসিকতা থাকতে হবে। প্রার্থীদের স্মার্ট, উদ্যমী ও কর্মঠ হতে হবে।

বেতন-ভাতা

বেতন ১৪,০০০-১৮,০০০ টাকা + অন্যান্য সুবিধা

কর্মস্থল

গাইবান্ধা, নরসিংদী, নারায়ণগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, যশোর, সিলেট, গাজীপুর (টঙ্গী ), চট্টগ্রাম (হালিশহর), ঢাকা (কেরানীগঞ্জ)।

আবেদনের প্রক্রিয়া

আগ্রহী প্রার্থীদের দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি, দুজন পরিচয়দানকারীর (অনাত্মীয়) নাম, ঠিকানাসহ [যার একজনকে অবশ্যই পূর্বের/বর্তমান কর্মস্থলের হতে হবে] পূর্ণাঙ্গ জীবনবৃত্তান্ত অথবা মেরী স্টোপস বাংলাদেশের নির্ধারিত সিভি ফরমে প্রয়োজনীয় শিক্ষাগত যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা ও প্রশিক্ষণের কাগজপত্রসহ মহাব্যবস্থাপক, মানবসম্পদ ও প্রশাসন, মেরী স্টোপস বাংলাদেশ, বাড়ি-৬/২, ব্লক-এফ, কাজী নজরুল ইসলাম রোড, লালমাটিয়া হাউজিং এস্টেট, ঢাকা-১২০৭ ঠিকানায় পাঠাতে অনুরোধ করা যাচ্ছে। সিভি ফরম পাওয়া যাবে (https://mariestopes.org.bd/join-our-team/) এই লিংকে।

আবেদনপত্র ও খামের ওপর প্রার্থীর পদ ও কর্মস্থলের নাম অবশ্যই উল্লেখ করতে হবে। মেরী স্টোপস বাংলাদেশে কর্মরত প্রার্থীদের ক্ষেত্রে অবশ্যই যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। যেকোনো ধরনের তদবির প্রার্থীর অযোগ্যতা হিসেবে বিবেচিত হবে।

আবেদনের শেষ তারিখ

আগ্রহী প্রার্থীরা আগামী ২৯ জুন, ২০১৯ পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?