রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ০৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ০৯:৫৫:৪৯

মানুষের মতোই টিভি দেখতে পছন্দ করে ডলফিনরাও!

মানুষের মতোই টিভি দেখতে পছন্দ করে ডলফিনরাও!

ঢাকা : অনেক মানুষই আছে যারা সোফায় গা এলিয়ে দিয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা টেলিভিশন দেখেই যান, নড়াচড়া আর করেন না সেখান থেকে। অদ্ভুত হলেও সত্যি, একই আচরণ দেখা গেছে ডলফিনদের মাঝেও!

ফ্লোরিডার ডলফিনস প্লাস মেরিন ম্যামাল রেসপন্ডার নামের একটি প্রতিষ্ঠান ডলফিন উদ্ধারের কাজ করে। তারা একটা অ্যাকুরিয়ামে রাখা ১১টি বটলনোজ ডলফিন ও ৫টি রাফ টুথড ডলফিনকে টিভি দেখায়।  এরপর এই গবেষণার ফলাফল প্রকাশিত হয় জু বায়োলিজি জার্নালে।

ডলফিনগুলোকে দেখানো হয় ডেভিড অ্যাটেনবরোর ‘প্ল্যানেট আর্থ’ অনুষ্ঠানটি।  এছাড়া শুধু পরিবেশ দেখানো হচ্ছে এমন কিছু অনুষ্ঠানে দেখানো হয়। সবশেষে স্পঞ্জবব স্কয়ারপ্যান্টস নামের কার্টুনটি দেখানো হয়।

গবেষকরা টিভি দেখার সময়ে ডলফিনদের আচরণ পর্যবেক্ষণ করেন। দেখা যায়, তাদের মাঝে রেগে যাওয়া আগ্রাসী আচরণ (মাথা ঝাঁকানো বা কামড় দেওয়ার ভঙ্গী), অথবা আগ্রহ ( মাথা উঁচু করা বা টিভিতে মাথা ঠেকানো, বুদবুদ ছাড়া) দেখা যায় টিভি দেখার সময়ে।

আরও দেখা যায়, কী দেখানো হচ্ছে তা নিয়ে তেমন একটা মাথাব্যথা নেই ডলফিনদের। তবে কিছু কিছু ডলফিন টিভির প্রতি বেশি উৎসাহ দেখায়। রাফ টুথড ডলফিনগুলো টিভি দেখার সময়ে বেশি প্রতিক্রিয়া দেখায় বটলনোজ ডলফিনের তুলনায়। তবে দুই ধরনের ডলফিনই লম্বা সময় ধরে টিভি দেখে।

অন্যদিকে, বটলনোজ নারী ডলফিনের তুলনায় পুরুষ ডলফিনের মাঝে টিভি দেখার সময় বেশি হয়। তারা টিভি দেখে উৎসাহও প্রকাশ করে বেশি।  অন্যদিকে রাফ টুথড ডলফিনের পুরুষরা নারীদের তুলনায় অল্প কিছুটা উৎসাহ বেশি দেখায়।

কিন্তু টিভি দেখে ডলফিনদের মাঝে রেগে যাওয়ার প্রবণতা আসে কেন? গবেষকরা মনে করেন, টিভির চ্যানেল পাল্টানো বা টিভিতে দেখানো পরিবেশের সাথে যোগাযোগ করতে না পারার কারণে তারা রেগে যায়। ভবিষ্যতে ডলফিনের জীবনের মান উন্নয়নে টিভি ব্যবহার করা যেতে পারে বলে আশা করছেন গবেষকরা।

সূত্র: ম্যাশেবল

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?