বুধবার, ২৭ মে ,২০২০

Bangla Version
  
SHARE

শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৯, ০৯:৪৮:৫০

আমার সাথে ৬টি নারী জ্বীন আছে…

আমার সাথে ৬টি নারী জ্বীন আছে…

ঢাকা : গ্রিডের হাই ভোল্টেজ বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন। সামান্য স্পর্শ লাগলেই মৃত্যু হতে পারে। ১৫০ ফুট উঁচু এমনই এক বৈদ্যুতিক টাওয়ারের মাথায় উঠে গেলেন মো. নাসির নামের এক ব্যক্তি। চূড়ায় উঠে তিনি চিৎকার করে বললেন আজান দিতে। আজান দেয়ার পর নিজে নিজেই আবার নিচে নেমে এসে জ্ঞান হারিয়ে ফেললেন। গত ২৬ সেপ্টেম্বর কুমিল্লা জেলার তিতাস উপজেলায় ঘটনাটি ঘটেছে।

নাসির দাবি করলেন তার ওপর নাকি জ্বীনের আছর আছে। তিনি বলেন, ‘আমার সাথে ছয়টি নারী জ্বীন থাকে, চারটি আমাকে অনেক মারধর করে। এদের কথা না শুনলে ব্লেড দিয়ে আমার শরীর কেটে রক্ত খায়। আমাকে মেরে ফেলার জন্য কয়েকবার বিদ্যুতের টাওয়ারে তুলেছে। জ্বীনদের মধ্যে দুটি ভালো, তারা আজান দিতে বললে আজানের ধ্বনি শুনে চারজন চলে যায়। দুজন আমাকে নিরাপদে নামিয়ে দিয়ে যায়।’

নাসিরের বাবা ফোনে বলেন, ‘তার (নাসির) ওপর জ্বীনের আছর আছে। ছোটবেলা থেকেই সে এ রোগে ভুগছে। জ্বীন চলে গেলে সে নিজে নিজেই চলে আসতে পারবে।’

এ বিষয়ে কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-৩-এর ডিজিএম আক্তার হোসেন বলেন, ‘নাসির যখন টাওয়ারের চূড়ায় ওঠেন, তখনো বিদ্যুৎ ছিল। খবর পেয়ে যোগাযোগ করি পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি বাংলাদেশের সঙ্গে। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।’

আজকের প্রশ্ন

বিএনপির নেতারা আইন না বুঝেই মন্তব্য করে আইনমন্ত্রীর এমন বক্তব্যে আপনি কি একমত?