রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ,২০২০

Bangla Version
  
SHARE

শনিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯, ০২:১৯:১০

যে শহরের রাস্তাগুলোর নাম নেই!

যে শহরের রাস্তাগুলোর নাম নেই!

ঢাকা : শহর মানেই হরেক নামের রাস্তার সমারোহ। রাস্তার নামেই নগরবাসীরা চিনে নেয় শহরে তাদের গন্তব্য স্থান।

অথচ এমন এক শহর রয়েছে যে শহরের রাস্তাগুলোর নেই কোন নাম।

জার্মানির নামহীন রাস্তার শহরটি হচ্ছে হিলগারমিশেন। বার্লিন থেকে প্রায় ৪০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এ শহর।

অর্ধেক গ্রাম অর্ধেক শহর এই হিলগারমিশেন। ১৯৭০ সালে কয়েকটি গ্রাম নিয়ে গঠিত হয় এটি।

তাহলে এ শহরের বাসিন্দাদের ঠিকানা বোঝানো হয় কীভাবে?

জানা গেছে, বাড়ির নম্বরই একমাত্র ভরসা। এতে বেশ বেগ পেতে হয় আগন্তুক ও পর্যটকদের। জরুরি পরিষেবা পেতে ভোগান্তিতে পড়তে হয় স্থানীয়দেরও।

সে কারণে হিলগারমিশেনের রাস্তাগুলো নামকরণের উদ্যোগ নেন স্থানীয় কাউন্সিলর।

তবে এ সিদ্ধান্তে গণভোটের ব্যবস্থা করেন কাউন্সিলর।

গত রোববার ভোট দেন বাসিন্দাদের সকলেই। কিন্তু ফলাফলে হতবাক হয়ে যায় কর্তৃপক্ষ।

রাস্তাগুলোর নামকরণে অনিচ্ছুক শহরবাসীর ৬০ শতাংশই।

আর বাকি ৪০ শতাংশ ইতিমধ্যে নিজেদের পছন্দের নাম দিয়েছেন।

কেন স্থানীয়রা রাস্তার নাম পেতে অনিচ্ছুক প্রশ্নে অধিকাংশরাই জানান, হিলগারমিশেনের এই বৈশিষ্ট্য তাদেরকে ৪৯ বছর ধরে আলাদা মর্যাদা দিয়ে রেখেছে।

সবাই তাদের শহরকে চেনে এ কারণেই। তাই কার্যত অসুবিধা হলেও নামহীন রাস্তার শহর হিসেবে বেশ ভালো আছেন তারা।

নামহীন রাস্তার হিলগারমিশেন শহরে বর্তমানে দু’হাজার ২০০ মানুষ বসবাস করছেন।

এই বিভাগের আরও খবর

  মৃত মেয়ের সঙ্গে মায়ের সাক্ষাতের ভিডিও প্রকাশ, বিশ্বজুড়ে হইচই

  যুগ যুগ ধরে মন্দিরে উলঙ্গ হয়ে জাপানি পুরুষরা যে প্রার্থনা করে!

  ঢাকার ভোটে ভিলেন কে? ফেসবুক, ঘুম, না কোরমা-পোলাও

  পরকীয়া ধরে ফেলায় স্বামীর পুরুষাঙ্গ কাটলেন স্ত্রী!

  স্ত্রীর মাথা কেটে থানায় গিয়ে জাতীয় সংগীত গাইল স্বামী!

  বিয়ের আসর থেকে পালানো প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন

  যে গ্রামের সুন্দরী মেয়েদেরও বিয়ে করতে চায় না কেউ

  আজহারীর কাছে ইসলাম গ্রহণ করা সেই ১১ জনকে ভারতে ফেরত

  যেভাবে করবেন ই-পাসপোর্ট

  দ্বিতীয় স্ত্রী তালাক দিয়ে ফিরলেন স্বামী, দুধে গোসল দিয়ে বরণ করলেন প্রথমজন

  বরগুনায় মোবাইল ফোনে প্রেম, অতঃপর...

আজকের প্রশ্ন

ঢাকার সিটি নির্বাচনে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট হলে জনগণের রায় প্রতিফলিত হবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আপনিও কি তাই মনে করেন?