বৃহস্পতিবার, ১৮ অক্টোবর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল, ২০১৮, ১০:১২:১৪

গাজীপুর-খুলনায় প্রার্থীরা মাঠে নামছেন আজ

গাজীপুর-খুলনায় প্রার্থীরা মাঠে নামছেন আজ

নিউজ ডেস্ক: ভোটযুদ্ধে জয়ী হতে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রচারণা নামছেন গাজীপুর ও খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রার্থীরা। যদিও অনেকেই আগে থেকে প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন প্রার্থীরা, তবে সেটি অনানুষ্ঠানিক ভাবে।

জাতীয় নির্বাচনের আগে এই নির্বাচনকে বেশ গুরুত্ব সহকারে দেখছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও তাদের প্রধান প্রতিপক্ষ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি। অন্যান্য দলের প্রার্থী নির্বাচনের মাঠে থাকলেও নৌকা এবং ধানের শীষের মধ্যে হবে মূল লড়াই। ইতোমধ্যে বিএনপির প্রার্থীদের পাশাপাশি সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে সেনা মোতায়েনের দাবি জানিয়েছে সাবেক নির্বাচন কমিশনার ও নির্বাচন বিশেষজ্ঞরা।

নিজেদের প্রার্থীদের জয়ী করতে নির্বাচনী মাঠে নামবেন বিএনপির শীর্ষ নেতারা। আর আওয়ামী লীগের এমপি-মন্ত্রীরা ছাড়া শীর্ষ পর্যায়ে থাকা নেতারা প্রচারণায় নামবেন। তবে  সামালেচনার মুখে আচরণ বিধিমালা সংশোধন না হওয়ায় আওয়ামী লীগ চাইলেও মন্ত্রী বা এমপিরা প্রচারে অংশ নিতে পারবেন না।

ইসির কর্মকর্তারা জানান, দুই সিটি করপোরেশন এলাকায় আচরণ বিধিমালা প্রতিপালন করে প্রার্থীরা প্রচার চালাচ্ছেন কি না- তা দেখতে অতিরিক্ত ম্যাজিস্ট্রেট মাঠে থাকবেন। কেউ বিধিমালা লঙ্ঘন করে প্রচার চালালে ছয় মাসের জেল বা ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয়দণ্ড দিতে পারবেন। আর রাজনৈতিক দল বিধি লঙ্ঘন করলে ৫০ হাজার টাকা জরিমানার বিধান রয়েছে। আর কমিশন আচরণ বিধিমালা লঙ্ঘনের দায়ে প্রার্থিতা বাতিল করতে পারবে। পাশাপাশি কমিশনও প্রচার কার্যক্রম নজরদারি করবে। কমিশন কর্মকর্তারা মনে করেন, প্রচারের শুরুর দিন থেকেই বোঝা যাবে আগামী দিনের পরিস্থিতি কেমন হবে।

খুলনা সিটি করপোরেশন
এ সিটিতে  মেয়র প্রার্থী ৫ জন, ১৯টি সাধারণ ওয়ার্ডে ১৪৮ জন কাউন্সিলর এবং ৪টি সংরক্ষিত আসনে ৩৮ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। মেয়র পদে যে পাঁচজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন তারা হলেন- আওয়ামী লীগের তালুকদার আবদুল খালেক, বিএনপির নজরুল ইসলাম মঞ্জু, জাতীয় পার্টির এসএম শফিকুর রহমান মুশফিক, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের অধ্যক্ষ মাওলানা মুজ্জাম্মিল হক এবং বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি-সিপিবির মিজানুর রহমান বাবু।

গাজীপুর সিটি করপোরেশন
এ সিটিতে মেয়র পদে ৭ জন, ৫৭টি সাধারণ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ২৫৬জন ও ১৯টি সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ৮৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

মেয়র প্রার্থীরা হলেন- আওয়ামী লীগ ও ১৪ দলের মো. জাহাঙ্গীর আলম, ২০ দলীয় জোট ও বিএনপি মনোনীত হাসান উদ্দিন সরকার, ইসলামী ঐক্য জোটের ফজলুর রহমান, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. নাসির উদ্দিন, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের মো. জালাল উদ্দিন, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির কাজী মো. রুহুল আমিন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ফরিদ আহমদ।

এই বিভাগের আরও খবর

  ২৭ অক্টোবর চট্টগ্রাম, ৩০ অক্টোবর রাজশাহীতে সমাবেশ করবে ঐক্যফ্রন্ট

  বৃহস্পতিবার কূটনীতিকদের সঙ্গে বসছে ঐক্যফ্রন্ট

  ভারতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর পদত্যাগ

  ‘যাওয়ার আগে সরকার একটা মরণ কামড় দেবে’

  যে ঐক্যটা হয়েছে সেটা ঐক্য নয় বিএনপিকে ক্ষমতায় বসানো : ইনু

  বিএনপির নেতা দরকার, তাই ড. কামাল হোসেনের উপর ভর করেছে: কাদের

  স্বৈরাচার আমলেও এতো মামলা হয়নি: নজরুল

  মাহবুব তালুকদারের সরে দাঁড়ানো উচিত : নাসিম

  দুই একজন চলে গেলে তাতে প্রভাব পড়বে না: রিজভী

  মোর্ত্তজা-মঞ্জুরকে বহিষ্কার, নতুন চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে ২০ দলেই থাকছে এনডিপি

  ভুল বুঝতে পারলে এনডিপি-ন্যাপ ফিরে আসবে: জোট সমন্বয়ক

আজকের প্রশ্ন

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন ‘খালেদা জিয়ার শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে বিএনপির নেতারা মিথ্যাচার ও বিভ্রান্তি করছে। আপনিও কি তাই মনে করেন?