বুধবার, ২১ নভেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

শুক্রবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৮, ০৮:৫০:৩৮

২৪ অক্টোবর সিলেট যাবেই জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট

২৪ অক্টোবর সিলেট যাবেই জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট

ঢাকা: জনসভার অনুমতি না পেলেও আগামী ২৪ অক্টোবর সিলেট যাবেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতৃবৃন্দ। ওই দিন জনসভা করতে না দিলেও ঐক্যফ্রন্টের নেতৃবৃন্দ মাজার জিয়ারত করতে সিলেট যাবেন। শুক্রবার সন্ধ্যায় গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

এর আগে বিকেল সাড়ে ৪টায় ধানমণ্ডি নাগরিক ঐক্যের নেতা মোবারক খানের বাসায় ঐক্যফ্রন্টের নেতৃবৃন্দ বৈঠকে বসেন। আড়াই ঘন্টা পরে বৈঠক থেকে বের হন ঐক্যফ্রন্টের নেতারা।

মোস্তফা মহসীন মন্টু বলেন, ২৩ অক্টোবর সিলেটে আমরা জনসভার করার জন্য অনুমতি চেয়েছিলাম। কিন্তু সরকার আমাদের অনুমতি দেয়নি। এরপর পরিবর্তে আমরা ২৪ তারিখে চেয়েছি। আশা করি, ২৪ তারিখে আমরা জনসভা করবো। সিলেট আমরা হরযত শাহ জালাল, শাহ পরাণ ও মেজর জেলারেল ওসমানীর মাজার জিয়ারত করবো। পরে জনসভার কাজ করবো।

অনুমতি না পেলে কী করবেন- এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, অবশ্যই আমরা যাবো। মাজার জিয়ারত করবো। এর জন্য তো অনুমতি লাগে না।

অনুমতি কেন দেওয়া হয়নি, এবিষয়ে কী আপনারা কিছু জানতে পেয়েছেন- এ বিষয়ে মন্টু বলেন, ওরা (প্রশাসন) বলেছেন, ২৩ অক্টোবর না কী স্বেচ্ছাসেবক লীগের একটি সমাবেশ আছে। আর এটা মেনে নিয়েই আমরা ২৪ তারিখের জন্য আবেদন করেছি। আর ২৪ তারিখে আমরা যাবো।

যদি পরবর্তী কর্মসূচিগুলোতেও অনুমতি না পান, সেক্ষেত্রে কী করবেন- এই প্রশ্নের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি বলেন, তখন আমরা বসে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবো।

তিনি জানান, আগামী ২৭ অক্টোবর চট্রগ্রামে জনসভার করার জন্য আমরা আবেদন করেছি। আশা করি আমরা অনুমতি পেয়ে যাবো। এছাড়া বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে যে, আগামী ২৬ অক্টোবর ঢাকায় পেশাজীবীদের সঙ্গে আমরা মতবিনিময় সভা করবো। তবে স্থান এখনও আমরা নির্ধারণ করা হয়নি। পরে আপনাদেরকে জানিয়ে দেওয়া হবে।

মন্টু আরো জানান, লিয়াজোঁ কমিটি আগেই গঠন করা হয়েছে। আর আজকে সমন্বয় কমিটি গঠন করা হয়েছে।

সমন্বয় কমিটিতে কারা কারা আছে- এই প্রশ্নের জবাবে তিনি কলেন, নামগুলো আপনাদেরকে পরে জানিয়ে দেওয়া হবে। তবে আজকে বৈঠকে যারা যারা ছিলেন, তারা সবাই সমন্বয় কমিটিতে আছেন।

সর্বশেষ বৃহস্পতিবার ঢাকায় নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের কুটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট্র।

বৈঠকে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, গণস্বাস্থ্য বোর্ডের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, জেএসডির প্রেসিডিয়াম সদস্য তানিয়া রব, সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, ডাকসুর সাবেক সহসভাপতি সুলতান মোহাস্মদ মনসুর আহমেদ, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু উপস্থিত ছিলেন।

আজকের প্রশ্ন

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন ‘খালেদা জিয়ার শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে বিএনপির নেতারা মিথ্যাচার ও বিভ্রান্তি করছে। আপনিও কি তাই মনে করেন?