রবিবার, ১৬ আগস্ট ,২০২০

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১১:১২:০৯

বাংলাদেশের জন্য বড় বিপদ অপেক্ষা করছে: মান্না

বাংলাদেশের জন্য বড় বিপদ অপেক্ষা করছে: মান্না

ঢাকা: সামনে বাংলাদেশের জন্য বড় বিপদ অপেক্ষা করছে বলে মন্তব্য করেছেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না।
তিনি বলেছেন, এনআরসির (ভারতের নাগরিকপঞ্জির) পরে সেখান থেকে বাদ পড়াদের ব্যাপারে বলা হয়েছে, তাদেরকে ভারতে থাকতে দেয়া হবে না। সামনে বাংলাদেশের জন্য বড় বিপদ অপেক্ষা করছে।

মঙ্গলবার রাজধানীর সেগুনবাগিচার বাংলাদেশ শিশু কল্যাণ পরিষদ মিলনায়তনে নিজের দলের নতুন ওয়েবসাইট প্রদর্শন এবং দেশের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে এক আলোচনা তিনি এসব কথা বলেন।

রোহিঙ্গা সমস্যার সুরাহা না হতেই ভারতের আসাম রাজ্যের নাগরিকপঞ্জিতে ১৯ লাখ মানুষের স্থান না পাওয়া বাংলাদেশের জন্য নতুন সংকট হিসেবে উল্লেখ করেন মাহমুদুর রহমান মান্না।

নাগরিক ঐক্যের এই আলোচনা সভায় দলের প্রধান উপদেষ্টা এসএম আকরাম, সমন্বয়ক শহিদুল্লাহ কায়সার, কেন্দ্রীয় নেতা মমিনুল ইসলাম, সোহরাব হোসেন, মঞ্জুর কাদেরও বক্তব্য রাখেন।

রোহিঙ্গা সঙ্কটের সমাধান সরকারই আটকে দিয়েছে বলে মন্তব্য করে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মান্না বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে বাংলাদেশ মিয়ানমারের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় চুক্তি করে মাধ্যমে বিষয়টিকে সমাধানের ‘অযোগ্য’ করে ফেলেছে। সরকার অনেক দেশকে বন্ধু দাবি করলেও কোনো দেশ বাংলাদেশের পক্ষে দাঁড়ায়নি বরং তারা মিয়ানমারের পক্ষে দাঁড়িয়েছে।

মান্না বলেন, সরকার নিজের ব্যর্থতা ঢাকার জন্য এখন রোহিঙ্গাদের ওপর নানারকম নিপীড়ন চালাচ্ছে। কিন্তু তারা এনআইডি পেয়ে যাচ্ছে। তাদের মোবাইল সিম বন্ধ করবে কীভাবে?

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে অনিয়ম নিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ উল্লেখ করে ডাকসুর সাবেক ভিপি মান্না বলেন, বিনা পরীক্ষায় এখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছে। অনেকে নাকি ডাকসুর নেতাও হয়েছে। এদের ভর্তি বাতিল করে দেন। কিন্তু ভিসির কী এই ক্ষমতা আছে?

তিনি বলেন, এই সরকার কোনো একটা কাজও ঠিকভাবে করতে পারছে না। রোহিঙ্গাদেরও এরা বের করতে পারবে না। বিরোধী দলকে নির্যাতন, অত্যাচার, গ্রেফতার করা ছাড়া কিছুই করতে পারছে না, এমনকি মশাও মারতে পারে না এ সরকার।

নির্মাণাধীন রূপপুর পারমাণবিক কেন্দ্রের বালিশ কাণ্ড এবং ফরিদপুর মেডিকেল কলেজে পর্দাকাণ্ডের প্রসঙ্গে মান্না বলেন, বাংলাদেশে এখন বালিশের দাম বেশি, না পর্দার দাম বেশি? লাখ টাকা দিয়ে এখন পর্দা বানায়, একথা আমরা কখনও শুনিনি। রূপপুর প্রকাশিত হয়েছে, তখন ভেতরে ভেতরে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ তো ছিল। কিন্তু কোনো ব্যবস্থা তো নেয়া হয়নি।

 

এই বিভাগের আরও খবর

  বঙ্গবন্ধুর হত্যার বিচারে বিরোধিতা করে জিয়া ও বিএনপি: কাদের

  আপোষহীন নেতৃত্বের কারনেই খালেদা জিয়া দেশনেত্রী থেকে দেশমাতা : ডাঃ ইরান

  জাতির জনক সব দলের, সব মানুষের : জি এম কাদের

  বাংলাদেশের প্রতিটি জেলায় প্লাজমা সেন্টার হওয়া দরকার : জাফরুল্লাহ চৌধুরী

  ‘বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা ইতিহাসে সবচেয়ে মর্মান্তিক’

  খালেদা জিয়াকে মুক্ত বলা হলেও কার্যত তিনি মুক্ত নন : রিজভী

  ‘খালেদার কেক না কাটার সিদ্ধান্ত জাতিকে স্বস্তি দেবে’

  জাতির কাছে বিএনপির ক্ষমা চাওয়া উচিত: তথ্যমন্ত্রী

  জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুর ৪৫তম শাহাদত বার্ষিকী কাল

  ১৫ ও ২১ আগস্টের কুশীলবরা এখনও সক্রিয় : কাদের

  অনুপ্রবেশ করে ষড়যন্ত্রকারীরা আওয়ামী লীগ হয়ে গেছে: রেজাউল করিম

আজকের প্রশ্ন

বিএনপির নেতারা আইন না বুঝেই মন্তব্য করে আইনমন্ত্রীর এমন বক্তব্যে আপনি কি একমত?