শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৯, ০১:১৩:১৮

ভেঙেই গেল এলডিপি, অলি-রেদোয়ানের বিপরীতে আব্বাসী-সেলিম

ভেঙেই গেল এলডিপি, অলি-রেদোয়ানের বিপরীতে আব্বাসী-সেলিম

ঢাকা : শেষ পর্যন্ত ভেঙেই গেল বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এলডিপি। গত ৯ নভেম্বর অবসরপ্রাপ্ত কর্নেল অলি আহমেদকে সভাপতি এবং ডক্টর রেদোয়ান আহমেদকে সাধারণ সম্পাদক করে এলডিপির নতুন কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটি ঘোষণা হয়। এই কমিটি থেকে বাদ পড়েন দলটির সাবেক সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম। তারপর থেকেই মূলত দলটির মধ্যে ভাঙনের সুর ওঠে। আজ তা চূড়ান্ত রূপ পেল।

সোমবার (১৮ নভেম্বর) সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে এলডিপির পদবঞ্চিত নেতারা সংবাদ সম্মেলন করে অলি আহমেদ এবং রেদোয়ান আহমেদের বিপরীতে ৭ সদস্যের একটি সমন্বয় কমিটি ঘোষণা করেন।

এলডিপির সাবেক সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম এই কমিটি ঘোষণা করেন। সমন্বয় কমিটির সভাপতি হিসেবে নেত্রকোনা-১ (দুর্গাপুর-কলমাকান্দা) আসনের তিনবারের সাবেক সংসদ সদস্য ও বিএনপি সরকারের সাবেক হুইপ আবদুল করিম আব্বাসীর নাম ঘোষণা করা হয়। আর সদস্য সচিব হন সেলিম।

সংবাদ সম্মেলনে সেলিম বলেন, ‘গত বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে বেগম খালেদা জিয়া সরকারের রোষানলে পড়ে কারাবন্দি রয়েছেন। তাঁকে মুক্ত করার জন্য যখন দল-মত-নির্বিশেষে জাতীয় ঐক্য গড়া দরকার তখন নিজেদের মধ্যে বিভেদ তৈরি করার জন্য একটি পক্ষ তৎপর হয়ে উঠেছে। এরমধ্যে কর্নেল অলি সাহেব তার এক বক্তব্যে পুরো বিএনপির নেতৃত্বকেই চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন। তিনি এই বক্তব্যে বেগম জিয়া কারাবন্দি থাকায় এবং তারেক রহমান দেশের বাইরে থাকায় বিএনপির নেতৃত্ব নেয়ার আগ্রহ প্রকাশের ইঙ্গিত রয়েছে।’

কর্নেল অলির প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি আরও বলেন, ‘একজন সিনিয়র রাজনীতিবিদ হিসেবে দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে যেখানে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ রাখার প্রয়াস চালাবেন সেখানে জোটের মধ্যে বিভেদ তৈরির জন্য ‘জাতীয় মুক্তি মঞ্চ’ তৈরি করেছেন। শুরুতে মুক্তি মঞ্চকে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আলাদা প্ল্যাটফর্ম বলা হলেও ধীরে ধীরে সেটি জিয়া পরিবার আর বিএনপির বিষোদগার করার প্লাটফর্মে পরিণত হয়।’

সেলিম বলেন, ‘এই ‘জাতীয় মুক্তি মঞ্চ’ বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্বকে বিতর্কিত আর দুর্বল করার চেষ্টার ষড়যন্ত্র শুরু করে। যা আমাদের মত জাতীয়তাবাদী আদর্শের পক্ষে মেনে নেয়া কঠিন হয়ে পড়ে। এ অবস্থায় কোনও দলের সাথে নিজেকে খাপ খাওয়ানো আমাদের জন্য দুরূহ হয়ে পড়েছে।’

সেলিম বলেন, ‘আমরা অঙ্গীকার করছি, দেশের এই ক্রান্তিকালে দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব এবং জাতীয়তাবাদী আদর্শের সৈনিকদের দুর্দিনে দেশপ্রেমিক হিসেবে জাতীয়তাবাদী আদর্শের রাজনীতিতে আরও বলিষ্ঠভাবে অংশগ্রহণ করবো। সাথে সাথে সকল ষড়যন্ত্র মোকাবিলায় সক্ষম হবো। সারাদেশে এলডিপি নেতাকর্মীদের সাথে যোগাযোগ করে অচিরেই একটি কার্যকর ভূমিকায় অবতীর্ণ হবো।’

এই প্রয়াসে বিএনপি স্বীকৃতি দেবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি।

বিভক্ত এলডিপির এই সদ্য সদস্য সচিব আরও বলেন, ‘বিএনপি ভেঙে এলডিপি গঠন করে যে পাপ করেছিলাম, এবার তার প্রায়শ্চিত্ত করতে চাই।’

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সেলিম বলেন, ‘বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি যদি আমাদের আমন্ত্রণ জানায় তাহলে আমরা এলডিপি বিলুপ্ত করে প্রয়োজনে বিএনপিতে যুক্ত হবো।’

এই বিভাগের আরও খবর

  খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সারাদেশে যুবদলের বিক্ষোভ কর্মসূচী পালিত

  আসল রহস্য ফাঁস হওয়ার ভয়ে খালেদা জিয়ার স্বজনদের স্বাক্ষাৎ করতে দেয়া হচ্ছে না : রিজভী

  আ.লীগ দেশের সব অর্জন ধ্বংস করে ফেলেছে: ফখরুল

  টিউলিপ রুপা রুশনারা ও আফসানাকে আ’লীগের অভিনন্দন

  দৈনিক সংগ্রামের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া উচিৎ: কাদের

  শনিবার দেশব্যাপী যুবদলের বিক্ষোভ

  খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ‌‌‘মিছিল করায়’ ছাত্রদল নেতাকে কুপিয়ে জখম

  সাতক্ষীরা জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা

  আ.লীগে এখনো মোশতাকদের পদচারণ রয়েছে: পরিকল্পনামন্ত্রী

  আ’লীগের সংসদীয় ও স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের সভা সোমবার

  আগামীকাল যৌথসভা ডেকেছে বিএনপি

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?