রবিবার, ১৯ জানুয়ারী ,২০২০

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ০৫ ডিসেম্বর, ২০১৯, ০২:১৩:২৬

নয়াপল্টন থেকে বিএনপির ৭ জনকে তুলে নিয়ে গেছে পুলিশ

নয়াপল্টন থেকে বিএনপির ৭ জনকে তুলে নিয়ে গেছে পুলিশ

ঢাকা : রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে দলটির ৭ কর্মীকে তুলে নিয়ে গেছে পল্টন থানা পুলিশ ও সাদা পোশাকধারী গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে ২ জন ও কার্যালয়ের আশপাশ থেকে আরও ৫ কর্মীকে আটক করে নিয়ে যায় ডিবি পুলিশ।

তাৎক্ষণিকভাবে আটককৃতদের নাম জানা যায়নি। তবে এরা সবাই বিএনপির সাধারণ কর্মী বলে জানা গেছে।

প্রত্যক্ষর্শীরা জানায়, বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচতলার বইয়ের দোকানের সামনে শান্তিপূর্ণ অবস্থান করছিলেন তারা। এসময় পল্টন থানা পুলিশ ও গোয়েন্দা পুলিশ তাদের আটক করে নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে মতিঝিল জোনের সহকারী উপ-কমিশনার (এসি) জাহিদুল ইসলাম ব্রেকিংনিউজকে বলেন, ‘৭ জন আটকের খবর আমিও পেয়েছি। তবে তাদের কারা আটক করেছে বিষয়টি এখনও নিশ্চিত না। সাদা পোশাকে ডিবি পুলিশ আটক করতে পারে।’

এর আগে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন শুনানি আবারও পিছিয়ে দেয়ায় দুপুর ১২টার দিকে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস, মহিলা দলের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হেলেন জেরিন খানসহ বেশ কিছু নারী নেত্রীদের নয়াপল্টনে বিক্ষোভ মিছিল করতে দেখা যায়।

এদিকে চ্যারিটেবল মামলায় সাজাপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন শুনানিকে কেন্দ্র করে এদিন সকাল থেকেই নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কাযালয়ের সামনে পুলিশের বিপুলসংখ্যক সদস্যের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় ৭ বছরের সাজাপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার জামিন শুনানি ফের পিছিয়ে আগামী ১২ ডিসেম্বর শুনানির জন্য পরবর্তী দিন ধার্য করেছেন আপিল বিভাগ। ১২ ডিসেম্বরের মধ্যে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর ‘শারীরিক অবস্থার সবশেষ অবস্থা’ জানিয়ে প্রতিবেদন দাখিল করতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) জামিন শুনানি শেষে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

এদিকে বেগম জিয়ার জামিন আদেশ পেছানোকে কেন্দ্র করে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের এজলাস কক্ষে নজিরবিহীন হট্টগোলের ঘটনা ঘটেছে। এক পর্যায়ে ১২ ডিসেম্বর পর্যন্ত বেগম জিয়ার জামিন শুনানি মুলতবি করে এজলাস ছেড়ে যান প্রধান বিচারপতি।

আদেশ দেয়ার পরই আদালতে অবস্থানরত বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা ‘এ আদেশ মানি না’ বলে উচ্চস্বরে কথা বলতে থাকেন। এসময় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা বিএনপিপন্থি আইনজীবীদের শ্লোগানের বিরোধিতা করলে শুরু হয় হট্টগোল, দুপক্ষের বাকবিতণ্ডা।

এই বিভাগের আরও খবর

  সিটি নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের জন্য নির্বাচন কমিশনের অযোগ্যতাই দায়ী: ফখরুল

  প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৮৪তম জন্মবার্ষিকী আজ

  পোস্টার ছেঁড়া ছোটলোকি কাজ: ইশরাক

  ভোট পেছানোয় আতিক খুশি হলেও তাপস নাখোশ

  পিছিয়ে গেল ঢাকা সিটি নির্বাচন

  ঢাকা সিটি নির্বাচনে ইভিএম বাতিলের আহ্বান ঐক্যফ্রন্টের

  যুক্তরাষ্ট্রের তুলনায় বাংলাদেশে বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড কম: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  ভবিষতের পরিকল্পনাগুলো বুঝে নিতে হবে: আলাল

  নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের দাবি জাসদের

  কি কারণে স্বাধীনতার ৫০ বছর উদযাপন করবো? প্রশ্ন মঈন খানের

  রাজধানীবাসী সেবক হিসেবে নির্বাচিত করবে: তাপস

আজকের প্রশ্ন

ঢাকার সিটি নির্বাচনে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট হলে জনগণের রায় প্রতিফলিত হবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আপনিও কি তাই মনে করেন?