Timesofbangla.com
১২ বছর বয়সেই আত্মহত্যার কথা ভেবেছিলেন ভাট কন্যা
Wednesday, 12 Sep 2018 15:32 pm
Reporter :
Timesofbangla.com

Timesofbangla.com

বিনোদন ডেস্ক : অবসাদে আক্রান্ত তারকা শুধু হলিউডে নয়, বলিউডও অসংখ্য নজীর রয়েছে। এর মধ্যে হতাশার সঙ্গে লড়াই করে সুস্থ হয়েছেন দীপিকা পাড়ুকোন। এবার অবসাদ নিয়ে মুখ খুললেন বিখ্যাত নির্মাতা মহেশ ভাট। তিনি জানালেন, তার মেয়ে এতো বেশি অবসাদগ্রস্ত হয়ে গিয়েছিলেন যে আত্মহত্যা করার কথা ভেবেছিলেন!

আলিয়া ভাটের বোন শাহিনের ডিপ্রেশনের কথা আগেও প্রকাশ্যে এসেছে। অক্টোবরেই প্রকাশ্যে আসবে শাহিনের লেখা একটি বই, সেখানে তার মানসিক অবস্থার কথা লেখা থাকবে। সেই পরিপ্রেক্ষিতে মহেশ ভাট তার কন্যা শাহিন ভাটের অবসাদের কথা তুলে ধরেন গণমাধ্যমে।

মহেশ ভাট বলেন, ‘মাত্র ১২-১৩ বছর বয়সে আত্মহত্যা করার কথা ভেবেছিল আমার মেয়ে শাহিন। ১৬ বছর বয়সে বোঝা যায় সে ক্লিনিক্যাল ডিপ্রেশনের শিকার।’ তারিক খান পরিচালিত ‘ডার্ক সাইড অব লাইফ: মুম্বাই সিটি’ সিনেমার ট্রেলার লঞ্চে মহেশ ভাট এ কথা জানান।

মুম্বাই শহরের এই অন্ধকার দিকটাও তিনি দেখেছেন বলে দাবি করেন মহেশ ভাট। তিনি আরও বলেন, ‘বলিউডে এ রকম অনেক ঘটনা ঘটতে দেখেছি। একটি মেয়ে কাজের জন্য এসেছিল ইন্ডাস্ট্রিতে। পরে সে আত্মহত্যা করে, আজও তার মৃতদেহটার ছবি ভেসে উঠলে শিউরে উঠি।’

সিনেমা নিয়ে মহেশ ভাট বলেন, ‘এটা খুবই কঠিন একটা ব্যবসা। তাই সবাই এটা করতে পারে না। আর এই ব্যবসায় হতাশার দিকে চলে যায় মানুষ। একটা ট্রেলার লঞ্চ করার পর, সবসময় মনে হয় হাততালি পড়বে তো? মানুষ প্রশংসা করবে, এটা ভাবতে অনেক সাহস দরকার হয়। একজন নির্মাতা যত বড়ই হন না কেন, সিনেমা মুক্তি পেলেই সবাই আতঙ্কে থাকে। এটাই বিনোদন জগতের বৈশিষ্ট্য। এসবের মধ্যে বেশির ভাগ লোকই তাই ভয়ে পালিয়ে যায়, কয়েকজনই সফল হতে পারে।’

সূত্র: ইন্ডিয়া টাইমস