শনিবার, ১৬ নভেম্বর ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ১০:৩২:৪৩

ভারতে প্রকাশ্যে পিটিয়ে মুসলিম হত্যা মামলার ৬ আসামি খালাস

ভারতে প্রকাশ্যে পিটিয়ে মুসলিম হত্যা মামলার ৬ আসামি খালাস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: গরু পাচারের অভিযোগে রাস্তায় প্রকাশ্যে এক মুসলিমকে পিটিয়ে হত্যা মামলার ৬ আসামিকে মুক্ত করে দিল ভারতের আদালত।

২০১৭ সালে পেহলু খান নামের এক ব্যক্তিকে প্রকাশ্যে পিটিয়ে মেরেছিল দুর্বৃত্তরা। আর সে হত্যাকাণ্ডের দৃশ্য ধরাও পড়েছিল ক্যামেরায়।

ওই ভিডিওফুটেজ দেখে পুলিশ যাদের সনাক্ত করে আদালতের দ্বারস্থ করেছিল তারা হলেন- বিপিন যাদব, রবীন্দ্র কুমার, কালুরাম, দয়ারাম, যোগেশ কুমার ওরফে ঢোলিয়া এবং ভীম রতি।

সরকারি আইনজীবী যোগেন্দ্র খতনা জানান, এ ৬ আসামির বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৪৭, ৩২৩, ৩৪১, ৩০২, ৩০৮, ৩৭৯ এবং ৪২৭ ধারায় অভিযোগ আনা হয়।

তবে বুধবার রাজস্থানের একটি আদালত সেই মামলায় অভিযুক্ত ৬ আসামিকে ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা নিশ্চিত নয়, এমন যুক্তিতে খালাস দিয়েছেন। খবর ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানায়, আদালতে এই মামলায় ৪০ জনেরও বেশি সাক্ষ্য দিয়েছেন। সাক্ষ্যদানকারীদের মধ্যে পেহলু খানের দুই ছেলেও ছিলেন যারা ঘটনার দিন তাদের বাবার সঙ্গে ছিলেন।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ১ এপ্রিল রাজস্থানের দিল্লি-আলওয়ার হাইওয়ের ওপর দিয়ে গরু নিয়ে যাচ্ছিলেন পেহলু খান। ওই দিন জয়পুরের গৃহপালিত পশুমেলা থেকে গরু কিনে হরিয়ানায় ফিরছিলেন তিনি। তার সঙ্গে আরও ৬ জন ছিলেন।

এসময় বেহরো নামক জায়গায় এলে ভারতের স্বঘোষিত গোরক্ষকদের আক্রমণের শিকার হন পেহলু খান। তার বিরুদ্ধে গরু পাচারের অভিযোগ আনে তারা।

এসময় মেলা থেকে গরু কিনে আসার বিল দেখায় পেহলু। কিন্তু তা সত্ত্বেও কোনো কথা না শুনে গোরক্ষকরা তাকে নৃশংসভাবে পেটায় ও নির্যাতন চালায়।

পেহলুর ওপর আক্রমণকারীরা সবাই ছিলেন হরিয়ানার নুহর বাসিন্দা। এ ঘটনার দুদিন পর একটি বেসরকারি হাসপাতালে মৃত্যু হয় পেহলুর।

কিন্তু উল্টো মামলায় জড়িয়ে যায় পেহলু খানের পরিবার।

সে সময় রাজস্থানের আইন অনুযায়ী, গরু পাচারের অভিযোগে পেহলু খানের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে পুলিশ। পেহলুর দুই ছেলে ইরশাদ ও আরিফের বিরুদ্ধেও চার্জশিট দেয় পুলিশ। ৫, ৮ ও ৯ ধারায় মামলা দায়ের হয়।

ঘটনাটি সে সময় ভারতীয় গণমাধ্যমে এলে ভারতজুড়ে হইচই পড়ে যায়। পেহলু হত্যার বিচার চান অনেকেই। বুধবারে আদালতের এমন রায়ে অনেকেই বিস্ময় প্রকাশ করেছেন।

রাজস্থান সরকারের অতিরিক্ত মুখ্য সচিব (স্বরাষ্ট্র) রাজীব স্বরূপ বলেছেন, পেহলু খান গণপিটুনি মামলার এই রায়ের বিরুদ্ধে সরকার উচ্চ আদালতে আপিল করবে।

পেহলু খানকে মারার সেই ভিডিওটি-

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?