শনিবার, ৩০ মে ,২০২০

Bangla Version
  
SHARE

রবিবার, ১৭ মে, ২০২০, ০৩:৩৫:৪৮

ভার্জিন সঙ্গী চান মাত্র ৫৩ % ভারতীয়, সঙ্গমের সময় আপত্তি নেই নির্যাতনেও!

ভার্জিন সঙ্গী চান মাত্র ৫৩ % ভারতীয়, সঙ্গমের সময় আপত্তি নেই নির্যাতনেও!

ভারত ডেস্ক: যৌনতা। ছোট্ট শব্দ, খুব সাধারণ ও স্বাভাবিক একটি প্রক্রিয়া। অথচ ভারতীয় সমাজে এই নিয়ে আলোচনাও যেন নিষিদ্ধ। যদিও তথাকথিত সেই ধারণার দেওয়াল ভেঙে অনেকটাই বেরিয়ে আসতে পেরেছে নতুন প্রজন্ম।

সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে নিজেদের যৌন জীবন নিয়ে প্রকাশ্যে আলোচনা করার সাহসও দেখাতে পারছে নেট দুনিয়ায় ভাসমান যুবক-যুবতীরা। ফলে ভারতীয়দের যৌন জীবনের চাহিদা ঠিক কী ধরনের এই নিয়ে বিভিন্ন সমীক্ষাও চালাচ্ছে নানা সংস্থা।

সম্প্রতি গোটা ভারতে একাধিক রাজ্যের বিবাহিত এবং অবিবাহিত যুগলদের ওপর সমীক্ষা চালিয়েছিল সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে। যেই সমীক্ষার নাম দেওয়া হয়েছে ‘সেক্স সার্ভে ২০১৯’।

সেখানেই ভারতীয়দের যৌন জীবনের চাহিদা নিয়ে উঠে এসেছে একাধিক চমকপ্রদ তথ্য। সেখান থেকেই তুলে দেওয়া হল কয়েকটি পয়েন্ট।

১. একটা সময় ছিল যখন বেশিরভাগ ভারতীয়রাই চাইতেই যেন তাদের সঙ্গী অথবা সঙ্গিনীরা ভার্জিন হন। তবে সেই প্রবণতা এখন অনেকটাই কমেছে। ২০১৯ সালের সেক্স সার্ভে জানাচ্ছে, সঙ্গী/ সঙ্গিনী ভার্জিন কিনা তা এখনও বেশ গুরুত্ব রাখে ৫৩ শতাংশ ভারতীয়দের কাছে।

২. ফ্রি-তে ইন্টারনেট পাওয়ার এই যুগে বয়ঃসন্ধির সময় কমবেশি অনেকের নীল ছবি দেখার আসক্তি থাকে। কখনও কখনও তা নেশার পর্যায়ে পৌঁছে যায়। সমীক্ষা বলছে, পর্ন ছবি দেখার ক্ষেত্রে ছেলেদের আসক্তিই থাকে বেশি। সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারী প্রত্যেক চারজনের তিনজনই পর্ন ছবি দেখার কথা স্বীকার করেছেন। প্রায় ৮৫.৫ শতাংশ ছেলেদের মধ্যে নিয়মিত পর্ন ছবি দেখার প্রবণতা রয়েছে।

৩. যৌন সঙ্গমে লিপ্ত হওয়ার সময় অনেকেই রোমাঞ্চ পছন্দ করেন। যাকে সহজ ভাষায় ফ্যান্টাসি বলা হয়ে থাকে। জানা গিয়েছে, ৩০ শতাংশ যুগলরাই নিজের চোখ অথবা হাত-পা বাঁধা অবস্থায় সেক্স করতে ভালোবাসেন। প্রতি তিনজনের মধ্যে একজন পুরুষ এই প্রক্রিয়ায় লিপ্ত হতেও চেয়েছেন।

৪. অনেকেই বিছানায় পছন্দ করেন আগ্রাসন। এরকম ৩১ শতাংশ যুবক-যুবতী রয়েছেন যারা যৌন সঙ্গমের সময় কামড় বা চড়-থাপ্পর বেশ উপভোগ করে থাকেন। সে সময় শারীরিক নির্যাতনেও সুখ উপভোগ করেন তারা।

৫. নিজেদের ব্যক্তিগত সময়কে স্মরণীয় করে রাখতে অনেকেই সেগুলিকে ক্যামেরাবন্দি করে নিতে চান। কখনও এর পিছনে অসৎ উদ্দেশ্যও থাকে। সেই কারণে যৌন সঙ্গমের সময় ছবি বা ভিডিও নেওয়ার পক্ষপাতী নন সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ৮৯ শতাংশ যুগলরাই। বাকি ১১ শতাংশের এতে কোনও আপত্তি নেই।

৬. ইন্ডিয়া টুডে-র সমীক্ষার মতে, ৪০ শতাংশ যুগলই নিজেদের যৌন জীবনে পুরোপুরি খুশি অর্থাৎ ‘স্যাটিসফায়েড’ নন। আগে এই সমীক্ষায় অবশ্য ‘অতৃপ্ত’দের শতকরা শতাংশ অনেকটাই বেশি ছিল। সম্প্রতি সেটা অনেকটাই কমেছে।

৭. উদ্ভট জায়গায় যৌন সঙ্গমে লিপ্ত হওয়ার বাসনা থাকে অনেকের। একেও একপ্রকার ‘ফ্যান্টাসি’ বলা হয়ে থাকে। এই সমীক্ষায় প্রকাশ পেয়েছে, প্রত্যেক চারজনের মধ্যে একজনের ফ্যান্টাসি রয়েছে নিজেদের অফিস বা কাজের জায়গায় যৌন সঙ্গমে লিপ্ত হওয়ার।

 

এই বিভাগের আরও খবর

আজকের প্রশ্ন

বিএনপির নেতারা আইন না বুঝেই মন্তব্য করে আইনমন্ত্রীর এমন বক্তব্যে আপনি কি একমত?