বুধবার, ২০ নভেম্বর ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৯, ১১:৫২:০০

শেষ মুহূর্তের গোলে বেঁচে গেল লিভারপুল

শেষ মুহূর্তের গোলে বেঁচে গেল লিভারপুল

স্পোর্টস ডেস্ক : পয়েন্ট টেবিলে ১৪তম অবস্থানে ছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। লিভারপুল সেখানে শীর্ষে। অন্য লিগ হলে রঙহীন ম্যাচ হয়ে পড়ত। কিন্তু ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের উত্তেজনা এখানেই। পয়েন্ট টেবিলে ধুঁকতে থাকা ম্যানইউ প্রথমার্ধে গোল করে ম্যাচ জমিয়ে তোলে।

ঘরের মাঠে খেলা হওয়ার লিভারপুলকে ধাক্কা দেওয়ার স্বপ্ন দেখে রেডসরা। কিন্তু দুর্বার লিভারপুল ম্যাচের ৮৫ মিনিটে গোল করে ১-১ এ সমতায় ফেরে। তুলে নেয় মূল্যবান এক পয়েন্ট। অপরাজিত থাকার রেকর্ড ধরে রাখে।

কিন্তু টানা জয়ের রেকর্ড হারায়। ওলে গুনার সুলসারের দল তিন পয়েন্টোর জায়গায় পায় এক পয়েন্ট। ম্যাচ শেষে টেবিলে এক ধাপ ওপরে ওঠে তারা। তারপরও সমান ৯ ম্যাচে ২৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থাকা অল রেডসদের থেকে ১৫ পয়েন্ট পিছিয়ে রেডসরা।

ম্যাচের শুরুতে লিভারপুলকে চেপে ধরে ম্যানইউ। কিন্তু কিছুক্ষণ বাদেই সেই চাপ কাটিয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিজেদের পায়ে নিতে শুরু করে জার্গেন ক্লপের শিষ্যরা। কিন্তু ম্যাচের ৩৪ মিনিটে সাদিও মানের দেওয়া দারুণ এক সুযোগ মিস করেন রর্বাতো ফিরমিনো। ঠিক তার পরেই গোল করে দলকে এগিয়ে নেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের তরুণ তারকা মার্কোস রাশফোর্ড। পিছিয়ে পড়ার আট মিনিট পরেই ইংলিশ লিগে ম্যানচেস্টার সিটির সমান টানা ১৮ জয় লক্ষ্য ধরে নামা লিভারপুল গোল করে। কিন্তু এবার ম্যানইউয়ের ত্রাতা হয়ে দাঁড়ায় ভিএআর।

গোল করার আগে বল সাদিও মানের হাতে লাগে। রেফারির চোখ এড়ালেও ভিএআরের চোখ এড়ায়নি। এরপর দ্বিতীয়ার্ধে গোল করতে মরিয়া হয়ে ওঠে লিভারপুল। প্রথমার্ধে তারা ৫৪ ভাগ বল পায়ে রাখে। অথচ ম্যাচ শেষে লিভারপুল ৬৮ ভাগ বল পায়ে রেখেছে। ম্যানইউয়ের শতাংশ নেমে আসে ৩২ ভাগে। আক্রমণের ফোয়ারাও ছোটায় অল রেডসরা। কিন্তু কাঙ্খিত গোল তারা পাচ্ছিল না। শেষ পর্যন্ত ম্যাচের ৮৫ মিনিটে অ্যাডাম লালানা অল রেডসদের হার হতে বাঁচান।

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?